সেন্ট্রাল ফ্লোরিডায় বাংলাদেশ সমিতির ইদ পুর্নমিলনী

প্রবাস

জুয়েল সাদত, আমেরিকা থেকে : বাংলাদেশ সমিতি সেন্ট্রাল ফ্লোরিডার আয়োজনে ইদ পুনমিলনি ও স্কুল-কলেজ গ্রাজুয়েটদের সম্বর্ধনা গত ২৯ জুন শনিবার সেন্ট্রাল ফ্লোরিডার সেনফোড এ অনুষ্টিত হয়।

সেনফোড সিভিক সেন্টারে অনুষ্টিত বাংলাদেশ সমিতির ইদ পুনমিলনি, শিক্ষাথীদের সম্বর্ধনা ও কমিউনিটি এওয়ার্ড প্রদান অনুষ্টানে সম্মাানিত অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন সেনফোড সিটির মেয়র জেফ ট্রিমপ্লেড।

সিভিক সেন্টারে বিকাল থেকেই নানান কাপড়ের দোকান খাবারের দোকান সহ নানান দোকানে উৎসব মুখর ছিল। নানান শহর থেকে প্রবাসীরা ইদ পুর্নমিলনি ও শিক্ষাথীদের সম্বর্ধনায় উপস্থিত হন। মুল অনুষ্টান শুরু হয় রাত আটটায়।

নাজিম উল্লাহ লিটনের পরিচালনায় বাংলাদেশ সমিতির অনুষ্টানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন সমিতির আহবায়ন নুরুল ইসলাম ও সদস্য সচিব জাহেদ আলম। প্রথমে জাতীয় সংগীতের মাধ্যমে মুল অনুষ্টান শুরু হয়।

সেনফোড সিটির মেয়র তার বক্তব্য বলেন, এই ধরনের অনুষ্ঠানে আমাকে আমন্ত্রন জানানোয় ধন্যবাদ। আমি ধন্যবাদ জানাচিছ উপস্থিত সকলকে। বাংলাদেশীরা আমাদের শহরের অর্থনীতিতে বিশেষ ভুমিকা রাখছেন।

মুল অনুষ্টান শুরুর পর স্থানীয় শিল্পীরা জনপ্রিয় সংগীত পরিবেশন ও শিশু শিল্পীরা নাচ পরিবেশন করেন। রাত সাড়ে নয়টায় মেয়র জেফ ট্রিমপ্লেড ও আমন্ত্রিত অতিথিরা ২০১৯ সালের প্রেসিডেন্ড এওয়ার্ড প্রাপ্ত হাই স্কুল ও কলেজ গ্রাজুয়েট কৃতি শিক্ষাথীদের হাতে ক্রেষ্ট তুলে দেন। মোট ২০ জন স্কুল ও কলেজ গ্রাজুয়েটদের সম্মামনা প্রদান করা হয়।

কমিউনিটির তিন কমিউনিটি একটিভিষ্ট নুরেন হায়দার, এ কে এম হোসেন হিটু ও সাংবাদিক জুয়েল সাদতকে সমিতির পক্ষ থেকে কমিউনিটিতে বিশেষ অবদান রাখায় বিশেষ সম্মামনা প্রদান করা হয়।

সন্ধা সাতটা থেকে রাত ১২টা পর্যন্ত চলে ইদ পুর্নমিলনি ও নানান ইদ মেলার আয়োজন সাথে ছিল চট্রগ্রামের মেজবান। ছিল নানান রকমের দোকান ও সাংস্কৃতিক অনুষ্টান। পুরো অনুষ্টানেই ছিল ইদ গেটটুগেদারের আডডা বাজি ও বিভিন্ন স্থান থেকে আগত প্রবাসীদের সেতু বন্ধন। পুরোটা অনুষ্টান ইদের আমেজে প্রবাসীদের মিলন মেলায় পরিনত হয়। প্রথম বারের মত বিভিন্ন ক্ষেত্রের স্কুল কলেজ বিশ্ববিদ্যালয় ও প্রেসিডেন্ড প্রাপ্তদের সম্মানিত করায় কমি্উনিটির সকলের প্রশংসা কুড়ায় বাংলাদেশ সমিতির কৃতি শিক্ষাথীদের সম্বর্ধনা।

অতিথি শিল্পী হিসাবে সংগীত পরিবেশন করেন পাপ্পু আহমদ ও ইমতিয়াজ বাবু। তাদের দুজন বাংলাদেশের জনপ্রিয় সংগীত পরিবেশনা প্রবাসীরা উপভোগ করেন।

অনুষ্টানে বিভিন্ন ভাবে সহযোগীতা করেন ইসহাক আলী, হেলাল আহমদ, নুরুল ইসলাম, সামস আহমেদ শোভন, জাহেদ আলম, মুরাদ হোসেন, স্বপন অধিকারী, মিজান মোস্তফা সবুজ, আব্দুল জলিল, আনোয়ার হোসেন সেন্টু, নাজিম উল্লাহ লিটন, জাহাঙ্গির সরদার, মো: শফি, সোহেলী পারভীন, জুলী আহমদ, নাজিয়া নুজহাত নিশি, আজিুজুর রহমান প্রমুখ ।

বাংলাদেশ সমিতি নতুন সংগঠন হিসাবে তাদের প্রথম অনুষ্টানেই জানান দিল তারা কমিউনিটিতে নতুন কিছু দেবার প্রত্যাশায়। সমিতির সদস্য সচিব জাহেদ আলম ঘোষনা দিলেন আগামীতে কমিউনিটির দুস্থ অসহায় ছাত্র ছাত্রীদের বৃত্তি প্রদান করা হবে।

  •  
  •  

Leave a Reply