সিলেটে পরোয়ানাভুক্ত আসামীদের ধরতে পুলিশ সুপারের নতুন কৌশল

সিলেট বিভাগ

সিলেটে বিভিন্ন মামলার গ্রেফতারী পরোয়ানাভুক্ত আসামীরা আর রেহাই পাবে না। পালিয়ে গিয়ে রক্ষা হবে না তাদের। গ্রেফতারী পরোয়ানাভুক্ত আসামীদের তালিকা সাঠানো হয়েছে সমস্ত জেলা জুড়ে। সিলেটের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ ফরিদ উদ্দিনের এমন উদ্যোগ অনেক প্রশংসনীয় বলে মনে করছেন সাধারণ মানুষ।

সিলেট জেলার ১১ টি থানার ৮৭ টি ইউনিয়ন পরিষদ ও ৪ টি পৌরসভায় স্থাপিত বিট পুলিশিং কার্যালয়ে গ্রেফতারী পরোয়ানার আসামীদের নামের তালিকা সাঠানো হয়েছে। পুলিশ সুপার ফরিদ উদ্দিন সিলেটভিউ২৪ডটকমকে জানিয়েছেন, অনেক মানুষ জানেন না তিনি আদালতের গ্রেফতারী্রোয়ানাভুক্ত আসামী। এই তালিকা সিলেটের প্রতিটি ইউনিয়ন ও পৌরসভায় টানানোর ফলে সবাই জানতে পারবেন। কিংবা এই আসামীর নাম তালিকায় দেখলে আসামীর অবস্থান অন্য যেকেউ পুলিশকে জানাতে পারবেন। আর এতেই আসামীকে পুলিশ গ্রেফতার করতে পারবে সহজে।

ইউনিয়ন পরিষদের দেয়ালে এই তালিকা টানানোর ফলে ওয়ারেন্ট ভুক্ত পলাতক ব্যক্তিগন নিজে থেকেই আদালতে আত্মসমর্পন করবে বলে আশাবাদ করছেন সিলেটের পুলিশ সুপার। আর এতে আদালতে বিচারধীন মামলা দ্রুত নিষ্পত্তি হবে বলেও তিনি জানিয়েছেন।

২০১৯ সালের ১৩ জুন সিলেটের পুলিশ সুপার হিসেবে ফরিদ উদ্দিন যোগদান করেন। এরপর থেকে তিন একের পর এক গুরুত্বপূর্ণ কাজ করে যাচ্ছেন। পুলিশ বিভাগের উপর মানুষের আস্থা পুরোপুরি আনতে তিনি অনেকটা ব্যতিক্রমী ভুমিকা পালন করে সর্বমহলে প্রশংসা কুঁড়িয়েছেন ইতিমধ্যে। পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সার্টিফিকেট পেতে তিনি তাঁর কার্যালয়ের নিচতলায় আলাদা একটি কাউন্টার খুলেছেন। সর্বশেষ ওয়ারেন্টভুক্ত আসামীদের নামের তালিকা সিলেটের প্রতিটি ইউনিয়নে টানানোর ফলে পুলিশের কাজের মান আরেক ধাপ বেড়ে গেল বলে সাধারণ মানুষের মন্তব্য।

পুলিশ সুপার ফরিদ জানিয়েছেন, পুলিশের নিয়ম মাফিক কাজ গ্রেফতারী পরোয়ানাভুক্ত আসামীদের গ্রেফতার করা। কিন্তু আসামীদের এই তালিকা টানানোর ফলে অনেকে আদালতে আত্মসমর্পণ করলে পুলিশ অন্য গুরুত্বপূর্ণ কাজে এগুতে পারবে।

Leave a Reply