রিফাত হত্যাকাণ্ড : সবাই দাঁড়িয়ে ছিল, প্রতিবাদ করল ছাত্রদল নেতা

সারাদেশ

একবার এ খুনির কাছে তো, আরেকবার ও খুনির কাছে। কখনো পেছন থেকে জাপটে ধরছেন, আবার কখনো একেবারে খুনির হাতে থাকা ‘রাম-দা’র সামনে গিয়ে পথ আগলে ধরছেন। যেন ক্যামেরার সামনে সিনেমার শ্যুটিং। কিন্তু না, এ যেন সিনেমাকেও হার মানানো গল্প। সিনেমায় এত রক্তের দেখা মেলে না, যত লাল এক মিনিটের হামলায় খুনিরা রিফাতের শরীর থেকে ঝরাল।

দিনের বেলায় প্রকাশ্যে জনবহুল কলেজর গেটে হামলে পড়েছে খুনিরা। তবুও শত শত মানুষ ঠায় দাঁড়িয়ে দেখছে। অনেকের হাতে মোবাইল। ক্যামেরা চালু করে দিব্যি ছবি তুলছে। দাঁড়িয়ে থাকারা প্রায় সবাই যুবক। তাদের মধ্যে থেকে কেউ এলো না বাঁচাতে! বরং হামলা শেষে একজন এগিয়ে এসে খুনিদের পালিয়ে যেতে ইশারা করল।

উল্লেখযোগ্য ভিডিও ফুটেজে দেখা যায় শতাধিক লোকের মাঝে প্রকাশ্য দেশীয় অস্ত্র দিয়ে এলোপাতাড়িভাবে কোপাতে থাকে রিফাতকে। উক্ত ভিডিওতে দেখা যায় সবাই যার যার মতো করে দাঁড়িয়ে ছিলেন, শুধু একমাত্র সাহসী ব্যক্তি, যে রিফাতকে বাঁচাতে প্রতিকূলতা উপেক্ষা করে এগিয়ে এসেছিল। সেই ফুটেজ অনুসন্ধানে বেরিয়ে আসে তার নাম। তিনি হলেন, বরগুনা জেলা ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক রনি।

এ নিয়ে সাধারণ মানুষের কৌতূহলের শেষ নেই। আমিনুল ইসলাম নামের এক ব্যক্তি বলেন, যদি পুলিশের সিসি ক্যামেরা ফুটেজ থেকে থাকে তবে কেন পুলিশ ঘটনাস্থলে সাথে সাথে আসলো না।

জুয়েল নামের এক ব্যক্তি বলেন, আমি বুজলাম না স্ত্রী এতবার আটকানোর চেষ্টা করার পরেও তাকে একটা আঘাত ও করল না। এইটার রহস্য কী ?

এম. সোলায়মান নামের এক ব্যক্তি বলেন, আমার প্রশ্ন হলো পুলিশ যেহেতু অবগত ছিলেন যে নয়নের বিরুদ্ধে মাদক কারবারসহ ১০-১২টি মামলা রয়েছে। সেখানে নয়ন কীভাবে প্রকাশ্যে ঘুরে বেড়াত? কাদের ছত্রছায়ায় একের পর এক অপরাধ করে যাচ্ছে? এর পেছনে কারা?

বরগুনা থানার ওসি আবির মাহমুদ বলেন, ঘটনার পর থেকেই আমরা যথাযথ পদক্ষেপ নিয়েছি, ইতোমধ্যে আমরা আসামিদের গ্রেফতার করেছি। ইনশাআল্লাহ দ্রুততার সাথে আরও যারা জড়িত রয়েছেন সকলকে আমরা আইনের আওতায় আনবো বলে তিনি আশ্বাস দেন।

উল্লেখ্য, বুধবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে বরগুনা সরকারি কলেজের সামনে শত শত লোকের উপস্থিতিতে স্ত্রীর সামনে শাহ নেয়াজ রিফাত শরীফ (২৫) নামের এক যুবককে কুপিয়ে হত্যা করে সন্ত্রাসীরা।

এরই মধ্যে রিফাতকে কুপিয়ে হত্যার একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়লে তা ভাইরাল হয়ে যায়।

Leave a Reply