টিভি লাইভে ভূমিকম্পে কেঁপে উঠলেন জাসিন্ডা

প্রকাশিত: ৭:১৪ অপরাহ্ণ, মে ২৫, ২০২০

টিভি লাইভে ভূমিকম্পে কেঁপে উঠলেন জাসিন্ডা

করোনাভাইরাস মহামারির কারণে গত কয়েকমাস ধরেই বাসায় থেকে কাজ করছেন বিশ্বের অসংখ্য মানুষ। অন্য ক্ষেত্রে খুব একটা সমস্যা না হলেও বিভিন্ন সময় বিড়াল, কুকুর, এমনকি শিশুদের কারণেও বিপত্তিতে পড়তে হয়েছে লাইভ বা সরাসরি সম্প্রচারিত অনুষ্ঠানে। এবার সেই তালিকায় যোগ হয়েছে ভূমিকম্পও। তাও ছোটখাটো অনুষ্ঠান নয়, বাগড়া দিয়েছে খোদ প্রধানমন্ত্রীর অনুষ্ঠানেই।

সোমবার সকালে নিউজহাবের এএম শোতে লকডাউন শিথিলের বিষয়ে সংসদের এক্সিকিউটিভ উইংয়ে বসে সরাসরি সাক্ষাৎকার দিচ্ছিলেন নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী জাসিন্ডা আরডার্ন। এর মধ্যেই আচমকা আঘাত হানে ৫ দশমিক ৮ মাত্রার শক্তিশালী ভূমিকম্প। এতে এখন পর্যন্ত তেমন কোনও ক্ষয়ক্ষতির খবর পাওয়া না গেলেও বাধাগ্রস্ত হয় প্রধানমন্ত্রীর অনুষ্ঠানটি।

ক্যামেরায় দেখা যায়. সরাসরি সাক্ষাৎকারের মধ্যেই ভয়ঙ্করভাবে দুলে উঠছে জাসিন্ডার রুম। তবে এতে ঘাবড়ে যাননি তিনি। বরং, মুখে হাসি ধরেই রেখেই বলতে থাকেন, ‘এখানে কিছুটা ভূকম্পন হচ্ছে… বেশ ভালোই কাঁপছে। দেখতে পারছেন আমার পেছনের জিনিসপত্র সরে যাচ্ছে…।

এসময় অনুষ্ঠানের উপস্থাপক জিজ্ঞেস করেন, তিনি ঠিক আছেন কি না এবং সাক্ষাৎকার চালিয়ে যাবেন কি না। জবাবে জাসিন্ডা সহজভাবেই বলেন, ‘ঠিক আছি, আমি কোনও ঝুলন্ত লাইটের নিচে নেই। মনে হচ্ছে কাঠামোগতভাবে আমি বেশ শক্তপোক্ত জায়গায় আছি।’

তার এমন সাহসিকতা ও সহজ-সরল আলাপচারিতা মুহূর্তেই ভাইরাল হয়ে যায় সামাজিক যোগাযোমাধ্যমে।

অবশ্য নিউজিল্যান্ডবাসীর কাছে ভূমিকম্প নতুন কিছু নয়। বিশ্বের মধ্যে অন্যতম ভূকম্পনপ্রবণ এলাকা সেটি। ভূতাত্ত্বিক কার্যক্রম পর্যবেক্ষক জিওনেটের তথ্যমতে, নিউজিল্যান্ডে প্রতিবছর অন্তত ২০ হাজার ভূমিকম্প হয়, অর্থাৎ প্রতিদিন ঘটছে ৫০ থেকে ৮০টি। যদিও এর বেশিরভাগই খুব কম মাত্রায় হওয়ায় মানুষের ইন্দ্রিয় সেগুলো অনুভব করতে পারে না।


  •