লন্ডনে যেমন ঈদ কাটালেন ক্রিকেটাররা

খেলার খবর

লন্ডন : কেনিংটন ওভালে একদিন পরেই বাংলাদেশ মাঠে নামবে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে, তার আগের মঙ্গলবারই ইংল্যান্ডে পালিত হচ্ছে ঈদ।

আইসিসি ক্রিকেট বিশ্বকাপ ২০১৯ খেলতে আসা বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের প্রায় সবাই যোগ দিয়েছেন ঈদের আনন্দে। খবর বিবিসির।

লন্ডনের সেন্ট্রাল মসজিদে আজ ঈদের নামাজ আদায় করেছেন সবাই।

খেলোয়াড়দের সাথে ছিলেন টিম ম্যানেজার খালেদ মাহমুদ সুজন, নির্বাচক হাবিবুল বাশার ও মিডিয়া ম্যানেজার রাবিদ ইমাম।

ক্রাইস্টচার্চের মসজিদে হামলার ঘটনার পর বাংলাদেশের ক্রিকেটারদের ঈদ জামাতের সম্ভাব্য স্থান বলা হয়নি শুরুতে। তবে আলাদা কোনো নিরাপত্তা ব্যবস্থাও নেয়া হয়নি।

বাংলাদেশ দলের প্রায় সবাই পাঞ্জাবি পরে নামাজ আদায় করেন।

ঈদের আগে বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের অধিনায়ক মাশরাফী বিন মোর্ত্তজা বলেন, আমাদের তো খেলাই ঈদ, ঈদে সবাই দোয়া করবেন। আপনারা ঈদ করেন ভালোভাবে।

কেমন ছিলো ঈদের সকাল?
লন্ডনে মঙ্গলবার সকাল থেকেই বিরূপ আবহাওয়া। কনকনে ঠান্ডা বাতাস,আর সকাল থেকেই থেমে থেমে বৃষ্টি হচ্ছিলো।

সকালটা ছিলো বাংলাদেশের ক্রিকেটারদের জন্য মুক্ত। কেউ পরিবারকে সময় দিয়েছেন, কেউ বা ছবি তুলে উদযাপন করেছেন। নামাজের পর সাকিব আল হাসান স্ত্রী ও কন্যাকে নিয়ে লন্ডনের রাস্তায় বের হন।

কিন্তু ক্রাইস্টচার্চের সেই শুক্রবারের কথা কি বাংলাদেশের ক্রিকেটারদের মাথায় এসেছিলো?

টিম ম্যানেজার খালেদ মাহমুদ সুজন বিবিসি বাংলাকে জানান, এমন কিছুই হয়নি বা মাথায় আসেনি কারো।

“সকাল থেকেই সবাই খুশি ছিল বেশ, আমরা নিজেরাই নামাজের ব্যবস্থা করি।”

“আমরা নিজেরাই হাই কমিশনের সাপোর্ট নিয়ে নামাজ পড়েছি, ক্রিকেটারদের জন্য একেবারে আলাদা একটা জায়গা করে দেয়া হয়েছে,” বলছিলেন খালেদ মাহমুদ সুজন।

বাংলাদেশ দল যেখানে নামাজ পড়ে সেখানে আর কারো জায়গা দেয়া হয়নি, ভক্তরাও কাছে আসতে পারেননি বলে জানা গেছে।

  •  
  •  

Leave a Reply