যে কোনো মুহূর্তে বেগম খালেদা জিয়া’র মুক্তি : কাদের

রাজনীতি

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক, সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, আনুষ্ঠানিকতা শেষ হলে যেকোনো মুহূর্তে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া মুক্তি পাবেন। তিনি বলেন, আশা করি বিএনপি করোনাভাইরাস মোকাবিলায় সর্বাত্মক সহযোগিতা করবে। বুধবার (২৫ মার্চ) সচিবালয়ে সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে এক ব্রিফিংয়ে তিনি এ কথা বলেন।

সেতুমন্ত্রী বলেন, কারাবন্দী বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি সময়ের ব্যাপার মাত্র। আনুষ্ঠানিকতা শেষ হলেই বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে মুক্তি দেয়া হবে। প্রধানমন্ত্রীর দেয়া নির্দেশের কোনো পরিবর্তন হবে না। তাই বিএনপিকে বিষয়টি ইতিবাচকভাবে দেখার আহ্বান জানাচ্ছি।

এর আগে, প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশেই বেগম খালেদা জিয়ার ৬ মাসের মুক্তির জন্য সুপারিশ করা হয়েছে বলে মঙ্গলবার বিকেলে জানান আইনমন্ত্রী আনিসুল হক। মঙ্গলবার (২৪ মার্চ) বিকেল ৪টার দিকে গুলশানের নিজ বাসভবনে সংক্ষিপ্ত সংবাদ সম্মেলনে এ কথা জানান তিনি।

সেসময় আনিসুল হক বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এ ব্যাপারে নির্দেশ দিয়েছেন। প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ হচ্ছে আইনি প্রক্রিয়ায় দুই শর্তে দণ্ডাদেশ স্থগিত রেখে তাকে মুক্তি দেয়া হোক। সরকার মানবিক কারণে সদয় হয়ে এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে। ফৌজদারি কার্যবিধির ৪০১ ধারা (উপধারা-১) অনুযায়ী এটা আইনি প্রক্রিয়ায় করা হয়েছে।

তিনি আরো বলেন, বিদেশে গমন না করার শর্তে প্রধানমন্ত্রীর আদেশে খালেদা জিয়ার দণ্ডাদেশ ছয় মাসের জন্য স্থগিত করা হয়েছে। এ সময় তাকে বাসায় থেকে চিকিৎসা গ্রহণ করতে হবে। বেগম খালেদা জিয়ার বয়স বিবেচনায় মানবিক কারণে সরকার সদয় হয়ে দণ্ডাদেশ স্থগিত রাখার এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

উল্লেখ্য, জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট ও জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় ১৭ বছরের কারাদণ্ড নিয়ে ২০১৮ সালের ৮ ফেব্রুয়ারি থেকে কারাবন্দি রয়েছে বিএনপি চেয়ারপারসন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়া। তাকে পুরান ঢাকার পরিত্যক্ত কেন্দ্রীয় কারাগারে বিশেষ কারাগার স্থাপন করে সেখানে রাখা হয়। গত বছরের এপ্রিল থেকে তিনি বিএসএমএমইউতে চিকিৎসাধীন।

Leave a Reply