বিশ্বনাথে জমজমাট ঘুড়ি ও পিঠা উৎসব

প্রকাশিত: ৮:৩৭ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ২৭, ২০১৭

বিশ্বনাথে জমজমাট ঘুড়ি ও পিঠা উৎসব

গ্রাম বাংলার আবহমান ঐতিহ্য ঘুড়ি উড়ানোকে বাঙালির নিজস্ব সংস্কৃতিকে নতুন প্রজন্মের কাছে তুলে ধরতে সিলেটের বিশ্বনাথে শুক্রবার ব্যতিক্রমী ঘুড়ি ও পিঠা উৎসব অনুষ্ঠিত হয়েছে।
বিশ্বনাথ মানবকণ্ঠ সেতুবন্ধনের আয়োজনে স্থানীয় চান্দশির কাপন মোহামেডান ফুটবল মাঠে এ উৎসব অনুষ্ঠিত হয়।
ঘুড়ি ও পিঠা উৎসবে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসহ ৪০ জন প্রতিযোগি স্থানীয় শিশু ও কিশোররা অংশগ্রহণ করে। আকাশে পড়ন্ত সকাল বেলার বিস্তৃত জোড়া নীল আকাশে হরেক রকমের বাহারি রংয়ের ঘুড়ি ওড়ানো দেখতে ভিড় করেছেন শত শত মানুষ। আয়োজক, প্রতিযোগী আর দর্শনার্থীদের উপচে পড়া ভিড় ঘুড়ির উৎসবকে আরও মোহনীয় করে তোলে। মাঘের সকালে মানুষের ঢল নেমেছিল চান্দশির কাপন মোহামেডান ফুটবল মাঠে। সবার হাতে ঘুড়ি।
রং বেরংয়ের ঘুড়ি। আকাশে বর্ণিল ঘুড়ি উড়িয়ে সুতার টানে প্রাণের উচ্ছাসে মেতেছিলেন প্রতিযোগীরা। এ প্রতিযোগিতায় কিশোর-তরুণদের সঙ্গে যোগ দিয়েছিলেন জনপ্রতিনিধি, প্রশাসনিক কর্মকর্তা, সাংবাদিকসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতাকর্মীরা। পিঠা উৎসবে ১১টি স্টল ছিল। ঘুড়ি প্রদর্শনীতে বিচারকদের রায়ে কাওছার আহমদ প্রথম, স্বপ্লীল বিশ্বনাথ দ্বিতীয় এবং শাহাবউদ্দিন সাবুল তৃতীয় স্থান লাভ করেন। পিঠা প্রদর্শনীতে বিচারকদের রায়ে গড়গাঁও সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় প্রথম, আল-এমদাদ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় দ্বিতীয়, সিন্গ্ধা ডেন্টাল ক্লিনিক তৃতীয় স্থান লাভ করেন।
মানবকণ্ঠ সেতুবন্ধন প্রথমবারের মতো এ ঘুড়ি ও পিঠা উৎসবের আয়োজন করে। প্রধান অতিথি হিসেবে উৎসবের উদ্বোধন ও পুরস্কার বিতরণ করেন বিশ্বনাথ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান সুহেল আহমদ চৌধুরী। অনুষ্ঠানের শুরুতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন বিশ্বনাথ মানবকন্ঠ সেতুবন্ধনের উপদেষ্ঠা মোহাম্মদ আলী শিপন।
সংগঠনের আহবায়ক শেখ ফজর রহমানের সভাপতিত্বে এবং যুগ্ম-আহবায়ক শামছুল ইসলাম মোমিন ও ফজল খানের যৌথ পরিচালনায় পুরস্কার বিতরণী অনুষ্টানে বিশেষ উপস্থিত ছিলেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার অমিতাভ পরাগ তালুকদার, থানার অফিসার ইন-চার্জ মনিরুল ইসলাম পিপিএম, বিশ্বনাথ উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বাবুল আখতার, বিশ্বনাথ সদর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ছয়ফুল হক, খাজাঞ্চি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান তালুকদার গিয়াসউদ্দিন, উত্তর বিশ্বনাথ আমজদ উল্লা ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষ নেছার আহমদ, মানবকণ্ঠ সিলেট ব্যুরো প্রধান মনোয়ার জাহান চৌধুরী, উপজেলা বিআরডিবি চেয়ারম্যান মহব্বত আলী জাহান, প্রবাসী জামাল মিয়া, শিক্ষক আবদুল বারী, গৌছ আলী, করুনা কান্ত দাশ, উম্মে কুলসুমা, আবদুল ওদুদ, হাবিবুর রহমান,সামছুজ্জামান, উপজেলা জাতীয় পাির্টর সাবেক যুগ্ম-আহবায়ক জয়নাল আবেদিন, সালেহ আহমদ তোতা, উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম-আহবায়ক আলতাব হোসেন, বিশ্বনাথ প্রেসক্লাবের সহ-সভাপতি তজম্মুল আলী রাজু, সাধারণ সম্পাদক প্রনঞ্জয় বৈদ্য অপু, যুগ্ম-সম্পাদক এমদাদুর রহমান মিলাদ, সদস্য অসিত রঞ্জন দেব, নূরউদ্দিন, জামাল মিয়া, আবুল কাশেম, সাংবাদিক মোসাদ্দিক হোসেন সাজুল, আশিক আলী, ইউপি সদস্য ইরন মিয়া, শামিম আহমদ, বিশ্বনাথ গ্রাম ডাক্তার ঐক্য পরিষদের সভাপতি প্রবীর কান্তি দে পিংকু, ডাক্তার বিভাংশু গুণ বিভু, মাস্টার এম এ রহিম, সিলেট মানবকণ্ঠ সেতুবন্ধনের সহ-সভাপতি হাসান আহমদ, সাধারণ সম্পাদক জাহাঙীর, সাংগঠনিক সম্পাদক নাহিদ হাসান, দপ্তর সম্পাদক সাইদুল ইসলাম, প্রবাসী মাসুক আহমদ, আবদুল হামিদ টিপু,।
এসময় উপস্থিত ছিলেন সেচ্ছাসেবক পার্টি নেতা আলাউদ্দিন, ব্যবসায়ী হাবিবুর রহমান, নুরুল আহমদ, ইমাদউদ্দিন দয়াল, যুবলীগ নেতা ফজলুর রহমান, উপজেলা ছাত্রলীগের আহবায়ক ফয়জুল ইসলাম জয়, উপজেলা ছাত্রদলের সদস্য আলাল আহমদ, ইমরান আহমদ সুমন, বিশ্বনাথ থিয়েটারের সভাপতি আনহার আলী, সাধারণ সম্পাদক নবীন সুহেল, বিশ্বনাথ ডেফডিল এসোসিয়েশনের সভাপতি কাওছার আহমদ বাপ্প্,ি বিশ্বনাথ নতুন বাজার বণিক সমিতির কমিশনার এমদাদ হোসেন নাঈম, কলেজ ছাত্রলীগ নেতা মিয়াদ আহমদ, বিশ্বনাথ মানবকণ্ঠ সেতুবন্ধনের সদস্য আমিনুর ইসলাম সরকার, কামরুল ইসলাম, ফয়ছুল আহমদ, আহমদ আলী হিরন প্রমুখ।
পিঠা উৎসবে অংশগ্রহন করেন উত্তর বিশ্বনাথ আমজদ উল্লা ডিগ্রি কলেজ, স্বপ্নীল গ্রæপ, অনুপম দেব অর্ক, শাহজিরগাঁও সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, মনিং স্টার একাডেমী, নাদিয়া পিঠা ঘর, ফাহমিদা এন্ড আবিদ পিঠা ঘর, রিপন পিঠা ঘর।

  •  

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

সর্বমোট পাঠক


বাংলাভাষায় পুর্নাঙ্গ ভ্রমণের ওয়েবসাইট