আল-আকসায় ঈদের নামাজে ৪০ হাজার ফিলিস্তিনি

প্রকাশিত: ৯:৪৩ অপরাহ্ণ, জুন ১৬, ২০২৪

আল-আকসায় ঈদের নামাজে ৪০ হাজার ফিলিস্তিনি

বিশ্বের অনেক দেশে মুসলিমরা আজ রোববার পবিত্র ঈদুল আজহা পালন করছেন। এর মধ্যে রয়েছে ইসরায়েলের নির্বিচার হামলায় বিধ্বস্ত ফিলিস্তিনও।

ঈদুল আজহার দিনে বাধা ঠেলে প্রায় ৪০ হাজার ফিলিস্তিনি অধিকৃত পূর্ব জেরুজালেমের আল-আকসা মসজিদে নামাজ আদায় করেছেন।

আনাদোলু এজেন্সি জানিয়েছে, আল-আকসায় ঈদের জামাত হলেও সেখানে উৎসবমুখর পরিবেশ ছিল না। বরং গাজা উপত্যকায় আট মাসেরও বেশি সময় ধরে চলমান যুদ্ধের শিকারদের জন্য শোক ঝরতে দেখা গেছে মুসল্লিদের মাঝে।

অপরদিকে জেরুজালেমের ইসলামিক ওয়াকফ বিভাগ বলেছে, ঈদের জামাত পড়তে যাওয়া হাজারও মুসল্লিকে প্রবেশে বাধা দিয়েছে ইসরায়েল।

ফিলিস্তিনি বার্তা সংস্থা ওয়াফা জানিয়েছে, ইসরায়েলি বাহিনী আল-আকসায় যাওয়ার পথে এবং সেখান থেকে বের হওয়ার সময় মুসল্লিদের ওপর হামলা চালায়। অনেককে ঈদের নামাজ পড়ার জন্য ঢুকতে বাধা দেয়। শুধু তা-ই নয়, এদিন সকালে ইসরায়েলি বাহিনী আল-আকসার আঙিনায় প্রবেশ করে। এ সময় তাদের মুসল্লিদের পরিচয় যাচাই করতে দেখা যায়। অনেককে মসজিদের দরজার বাইরে নামাজ পড়তে বাধ্য করা হয়।

তবে ইসরায়েলি বাহিনীর আরোপিত নিরাপত্তা নিষেধাজ্ঞা সত্ত্বেও অধিকৃত পশ্চিম তীরের শহর হেবরনের ইব্রাহিমি মসজিদে হাজারও ফিলিস্তিনি ঈদের নামাজ পড়েছে।

হেবরনের ওয়াকফ বিভাগের প্রধান ঘাসন আল-রাজাবি জানান, ইসরায়েলের উদ্দেশ্য হলো পবিত্র স্থানগুলোয়, বিশেষ করে ইব্রাহিমি মসজিদে ফিলিস্তিনিদের প্রবেশ রোধ করা। এসব ব্যবস্থা সত্ত্বেও আট থেকে ১০ হাজার ফিলিস্তিনি মসজিদটিতে ঈদুল আজহার নামাজ আদায় করেছে।

আনাদোলু এজেন্সি জানিয়েছে, ইব্রাহিমি মসজিদে ঢুকতে এবং সেখানে প্রার্থনা করতে মুসল্লিদের সামরিক চেকপয়েন্ট এবং ইলেকট্রনিক গেট দিয়ে যেতে হয়েছে।


 

সর্বমোট পাঠক


বাংলাভাষায় পুর্নাঙ্গ ভ্রমণের ওয়েবসাইট