সিসিকের অস্বাভাবিক হোল্ডিং ট্যাক্স প্রত্যাহার দাবিতে মানববন্ধন

প্রকাশিত: ৮:৫৫ অপরাহ্ণ, মে ১৯, ২০২৪

সিসিকের অস্বাভাবিক হোল্ডিং ট্যাক্স প্রত্যাহার দাবিতে মানববন্ধন

নগরীর সীমানা বর্ধিত হলেও এখনো নাগরিক সেবার মান বাড়ানো হয়নি। অথচ নাগরিক সমাজের ঘাড়ে ৫০০ গুণ বৃদ্ধি করে হোল্ডিং ট্যাক্সের বোঝা চাপিয়ে দেয়া হয়েছে। সিলেট সিটি কর্পোরেশনের এমন সিদ্ধান্ত নগরবাসীর প্রতি সীমাহিন জুলুম। এর ফলে নগরে বাসা ভাড়া বাড়বে। মানুষের জীবন জীবিকার উপর পড়বে অযৌক্তিক হোল্ডিং ট্যাক্স বৃদ্ধির নেতিবাচক প্রভাব। এতে সিলেটের সামাজিক অঙ্গনে চরম অস্থিরতা সৃষ্টি করতে পারে। সিটি কর্পোরেশনের এই ধরনের আত্মঘাতি সিদ্ধান্ত জনদুর্ভোগকে বহুগুণ বাড়িয়ে দিবে। অবিলম্বে বর্ধিত হোল্ডিং ট্যাক্স প্রত্যাহার করে নাগরিক সেবার মান বাড়াতে সিটি কর্পোরেশনকে কার্যকর উদ্যোগ নিতে হবে।

রোববার (১৯ মে) বিকেলে নগরীর কোর্ট পয়েন্টে ‘সচেতন সিলেটবাসী’র উদ্যোগে সিটি কর্পোরেশন কর্তৃক অস্বাভাবিক হারে হোল্ডিং ট্যাক্স বৃদ্ধির প্রতিবাদে অনুষ্ঠিত মানববন্ধনে বক্তারা উপরোক্ত কথা বলেন।

বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ ও সচেতন সিলেটবাসীর আহ্বায়ক লে. কর্ণেল (অব.) সৈয়দ আলী আহমদের সভাপতিত্বে, সিলেট জেলা বারের আইনজীবী এডভোকেট মোঃ আব্দুল খালিকের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত মানববন্ধনে সিলেটের বিভিন্ন শ্রেণী পেশার বিপুল সংখ্যক প্রতিনিধিত্বশীল ব্যক্তিবর্গ ও সাধারণ জনতা অংশ নেন।

মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন, সিলেট জেলা বারের সিনিয়র আইনজীবী এডভোকেট মোঃ আলীম উদ্দীন, বিশিষ্ট আলেমে দ্বীন অধ্যক্ষ মাওলানা আব্দুস সালাম আল মাদানী, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী নূরুল আলম, সিলেট জেলা আইনজীবী সমিতির সাবেক যুগ্ম সম্পাদক এডভোকেট সলমান উদ্দীন, সিনিয়র আইনজীবী আব্দুল ওয়াদুদ, সিলেট জেলা আইনজীবী সমিতির সাবেক সমাজ বিষয়ক সম্পাদক এডভোকেট আজীম উদ্দীন।

মানববন্ধনে উপস্থিত ছিলেন, সিলেট জেলা বারের সিনিয়র আইনজীবী এডভোকেট ওবায়দুর রহমান, জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরাম সিলেটের সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট বদরুল আহমদ চৌধুরী, সিলেট জেলা আইনজীবী সমিতির সাবেক যুগ্ম সম্পাদক এডভোকেট গোলাম রাজ্জাক চৌধুরী জুবের, সাবেক সমাজ বিষয়ক সম্পাদক এডভোকেট মতিউর রহমান, জেলা বারের আইনজীবী এডভোকেট মাসহুদ আহমদ মহসিন, মাওলানা আবুল কাশেম ও এডভোকেট দেলোয়ার হোসেন প্রমুখ।

সভাপতির বক্তব্যে শিক্ষাবিদ লে. কর্ণেল (অব.) সৈয়দ আলী আহমদ বলেন, নগরজুড়ে এখনো মানুষ সীমাহিন দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। সেদিকে সিটি কর্পোরেশনের নজর নেই। অথচ হোল্ডিং ট্যাক্স এক লাফে ৫০০ গুণ বাড়িয়ে দিয়ে সাধারণ মানুষকে উস্কে দেয়া হয়েছে। গোটা নগরবাসী সিটি কর্পোরেশনের এমন সিদ্ধান্তে বিক্ষোভে ফেটে পড়ছে। জনদাবীর প্রতি শ্রদ্ধাশীল হয়ে অবিলম্বে বর্ধিত অস্বাভাবিক হোল্ডিং ট্যাক্স বাতিল করুন। নগরবাসীর সাথে আলোচনা করে সহনীয় মাত্রায় হোল্ডিং ট্যাক্স নির্ধারণ করার জন্য সিটি কর্পোরেশন কর্তৃপক্ষের প্রতি জোর দাবী জানাচ্ছি।


 

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

সর্বমোট পাঠক


বাংলাভাষায় পুর্নাঙ্গ ভ্রমণের ওয়েবসাইট