সিলেটে বীর মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের শশ্মান মন্দির দখলের অভিযোগ

প্রকাশিত: ১০:৩৩ অপরাহ্ণ, এপ্রিল ১, ২০২৪

সিলেটে বীর মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের শশ্মান মন্দির দখলের অভিযোগ

সিলেট নগরীর বাগবাড়িতে সনাতন ধর্মাবলম্বী বীর মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের শ্মশান মন্দিরের দেওয়াল ভেঙে দখল করা হয়েছে। এ ঘটনায় ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের সদস্য, মুক্তিযোদ্ধা সন্তান লাভলী রানী কপালী কোতোয়ালি থানায় ও সিলেট সিটি করপোরেশনের মেয়র আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরীর কাছে লিখিত অভিযোগ করেছেন। খবর পেয়ে সোমবার বিকেলে কোতোয়ালি থানা পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে।

বীর মুক্তিযোদ্ধা সন্তান, শারীরিক প্রতিবন্ধী লাভলী রানী কপালীর অভিযোগ, প্রায় ৪/৫ বছর আগে স্থানীয় আজিজুর রহমান আলম উত্তর বাগবাড়ীস্থ বীর মুক্তিযোদ্ধা মৃত হরিদাস কপালীর পারিবারিক শ্মশান মন্দিরের দেওয়াল ভেঙ্গে বাসায় যাওয়ার রাস্তা দেওয়ার প্রস্তাব দেয়। এ প্রস্তাব প্রত্যাখান করে বীর মুক্তিযোদ্ধার পরিবার। এ অবস্থায় গত ৩০ মার্চ শনিবার একদল লোক দেশীয় অস্ত্রসস্ত্র নিয়ে বীর মুক্তিযোদ্ধা মৃত হরিদাস কপালীর পারিবারিক শশ্বান মন্দিরের দেওয়াল ভেঙ্গে জোরপূর্বক জায়গা দখলে নেয়। এ সময় স্থানীয়রা প্রতিবাদ জানালেও তা আমলে নেয়নি দখলকারীরা। প্রতিবাদকারীদের নানা ধরনের ভয়ভীতি প্রদর্শন করতে থাকে। পরে ঘটনাটি থানা পুলিশ ও মেয়রকে লিখিতভাবে জানানো হয়।

মুক্তিযোদ্ধা সন্তান অনুজ কুমার কপালী জানান, সম্পূর্ণ উদ্দেশ্যমূলকভাবে আমাদের পারিবারিক শশ্মান মন্দিরের দেওয়াল ভেঙে ফেলা হয়েছে। আমরা যারা প্রতিবাদ করেছি, তাদের নানা ধরনের হুমকি দেওয়া হচ্ছে।



সিলেট কোতোয়ালি থানার ওসি মঈন উদ্দিন জানান, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়। তবে ঘটনাস্থলে গিয়ে দেখা যায় সিটি করপোরেশনের রাস্তা সংস্কার কাজ চলছে। ঘটনার পর থেকে পুলিশ কয়েকদফায় তদন্ত করেছে। বিষয়টি নিয়ে স্থানীয় কাউন্সিলরও আমার সাথে কথা বলেছেন।

সিলেট সিটি কর্পোরেশন মেয়র আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরীর সাথে যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলে তিনি ফোন ধরেননি।


 

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

সর্বমোট পাঠক


বাংলাভাষায় পুর্নাঙ্গ ভ্রমণের ওয়েবসাইট