চট্টগ্রামে নারী এনজিও কর্মীকে গলা কেটে হত্যা

প্রকাশিত: ১০:১৫ পূর্বাহ্ণ, মার্চ ৬, ২০২৩

চট্টগ্রামে নারী এনজিও কর্মীকে গলা কেটে হত্যা

চট্টগ্রামের রাঙ্গুনিয়ায় কিস্তির (ঋণ) টাকা পরিশোধ নিয়ে বিরোধের জেরে বেসরকারি সংস্থার (এনজিও) কর্মী চম্পা চাকমাকে (২৮) গলা কেটে হত্যা করা হয়েছে।

রোববার (৫ মার্চ) রাত পৌনে ৯টার দিকে রাঙ্গুনিয়া উপজেলার লালানগর ইউনিয়নের ধামাইরহাট এইচ এ প্লাজার সামনে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত চম্পা চাকমা ‘পদক্ষেপ মানবিক উন্নয়ন সংস্থা’ নামে একটি এনজিও-এর সহকারী ম্যানেজার পদে কর্মরত ছিলেন।

ঘটনার পর হামলাকারী এনামুল হক এনাম (৩০) পালিয়ে যায়। সিসিটিভির ফুটেজ দেখে পুলিশ তাকে শনাক্ত করেছে বলে জানা গেছে।

ঘটনার প্রতক্ষ্যদর্শী ও এনজিও কর্মী সপ্তদী চাকমা জানান, এনামের বোন পদক্ষেপ সংস্থার উত্তর পারুয়া গ্রুপের সদস্য। বোনের নামে ঋণ নিয়েছিলেন তার পরিবার। কিন্তু ঋণের কিস্তি পরিশোধ করতেন ভাই এনাম। বেশ কিছুদিন ধরে তিনি নিয়মিত কিস্তি পরিশোধ করছেন না। সর্বশেষ গত বুধবার বকেয়া কিস্তি পরিশোধের কথা ছিল। তা না করায় বকেয়া কিস্তির জন্য তাকে চাপ দেয়া হয়। অফিসের নিচে এ বিষয়ে তর্কাতর্কির এক পর্যায়ে চম্পা চাকমাকে ছুরিকাঘাত করে পালিয়ে যান এনাম। ঘটনার পর স্থানীয়দের সহায়তায় গুরুতর আহত চম্পা চাকমাকে উদ্ধার করে রাঙ্গুনিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

রাঙ্গুনিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাহবুব মিল্কি ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, এনজিও থেকে নেয়া ঋণের বকেয়া কিস্তির টাকা পরিশোধ করতে বলায় রাঙ্গুনিয়ার হোছনাবাদ শাখায় কর্মরত নারী কর্মকর্তাকে ছুরিকাঘাত করে হত্যা করা হয়েছে। আমরা সিসিটিভির ফুটেজ দেখে খুনি এনামুল হক এনামকে শনাক্ত করেছি। এ বিষয়ে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে। এনাম রাঙ্গুনিয়া উপজেলার উত্তর পারুয়া গ্রামের মো: নুরুজ্জামানের ছেলে।’

স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদ সদস্য মোঃ সিরাজুল ইসলাম জানান, চম্পা চাকমা ও সপ্তদী চাকমা নামে পদক্ষেপ সংস্থার দুই কর্মী টাকা সংগ্রহ করে এইচ এ প্লাজায় তাদের অফিসে ফিরছিলেন। এ সময় অফিসের নিচে এনামের সাথে তাদের কথা তর্কাতর্কি হয়। এনাম একটি ছুরি বের করে চম্পা চাকমার গলায় আঘাত করে পালিয়ে যায়।


সূত্র : ইউএনবি


 

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

সর্বমোট পাঠক


বাংলাভাষায় পুর্নাঙ্গ ভ্রমণের ওয়েবসাইট