আরটিএমআই মানবসম্পদ উন্নয়ন কেন্দ্রের প্যারামেডিকদের ফেয়ারওয়েল অনুষ্ঠিত

প্রকাশিত: ৫:২৩ অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ২, ২০২২

আরটিএমআই মানবসম্পদ উন্নয়ন কেন্দ্রের প্যারামেডিকদের ফেয়ারওয়েল অনুষ্ঠিত

আরটিএমআই মানবসম্পদ ইন্সটিটিউটের ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষে অধ্যয়নরত প্যারামেডিকদের ফেয়ারওয়েল গতকাল দুপুরে সিলেট নগরীর পূর্ব শাহী ঈদগাহস্থ ইন্সটিটিউট মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত হয়।


আরটিএমআই মানবসম্পদ ইন্সটিটিউটের প্রিন্সিপাল ডা. এস এম ফরিদুল ইসলাম লতিফীর সভাপতিত্বে ফেয়ারওয়েল অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন আরটিএম আল কবির টেকনিক্যাল ইউনিভার্সিটির ডীন প্রফেসর ড. তোফায়েল আহমদ। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন আরটিএম আল কবির টেকনিক্যাল ইউনিভার্সিটির ছাত্র কল্যাণ উপদেষ্টা মাজেদ আহমেদ চঞ্চল, আরটিএম নার্সিং কলেজের প্রিন্সিপাল ফয়সল আহমদ চৌধুরী। অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ডা. সুবির ভট্টাচার্য, পার্থ সারথী, মোঃ নেজাম উদ্দিন, নিশাত ফারজানা, নয়ন রঞ্জন দাস, অনুজ সরকার শুভ, হাছনা বেগম ও নুরুল আমিন প্রমুখ সহ শিক্ষক-কর্মকর্তাবৃন্দ।
ইন্সটিটিউটের ছাত্রী সাদিয়া খন্দকার ও জান্নাতুল ফেরদাউসের সাবলীল সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানের শুরুতে পবিত্র কোরআন তেলাওয়াত করেন ফাহিম মিয়া, গীতা পাঠ করেন সঞ্চিতা দাস। স্বাগত বক্তব্য রাখেন ইন্সটিটিউটের কো-অর্ডিনেটর নয়ন রঞ্জন দাস। অনুষ্ঠানে অতিথিবৃন্দ ছাড়াও চলমান ব্যাচের ছাত্র-ছাত্রীদের পক্ষে এলিজা রহমান ও বিদায়ী ছাত্র ছাত্রীদের পক্ষে জাহাঙ্গীর আলম বক্তব্য রাখেন।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে ড. তোফায়েল আহমদ আরটিএমআই এর প্রতিষ্ঠাতা ও বিশিষ্ট মানবসম্পদ উন্নয়ন বিশেষজ্ঞ বীর মুক্তিযোদ্ধা ড. আহমদ আল কবিরের ভূয়সী প্রশংসা করে বলেন, তাঁর আগাম চিন্তাধারার অনন্য ফসল হিসেবে সিলেটের শিক্ষা ও স্বাস্থ্য খাতে বৈপ্লবিক উন্নয়ন ঘটছে। তারা ধারাবাহিকতা অব্যাহত রাখতে ও আরো সুনাম অর্জনে শিক্ষকদের আরো অগ্রণীভূমিকা পালন করতে হবে। তিনি বিদায়ী শিক্ষার্থীদের সেবা, মানব কল্যাণ ও সততার মাধ্যমে নিজেদের সম্মানজনক পেশা চালিয়ে সাধারণ মানুষের স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করার আহবান জানান।
সভাপতির বক্তব্যে প্রিন্সিপ্যাল এ এস এম লতিফী সততার সাথে পেশাগত দায়িত্ব পালনের মাধ্যমে নিজ প্রতিষ্ঠানের অব্যাহত সুনাম অব্যাহত রাখার জন্য শিক্ষার্থীদের উপদেশ দেন।
অনুষ্ঠানের শেষ পর্যায়ে অতিথিবৃন্দ ও শিক্ষার্থীদের ক্রেস্ট ও বই সহ বিভিন্ন ধরণের উপহার সামগ্রী প্রদান করা হয়।


 

সর্বমোট পাঠক


বাংলাভাষায় পুর্নাঙ্গ ভ্রমণের ওয়েবসাইট