সিলেটে পুলিশের হেল্প ডেস্ক হটলাইনে ২ মাসে ২০৬ প্রবাসীর কল

প্রকাশিত: ১২:১৯ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ২৪, ২০২২

সিলেটে পুলিশের হেল্প ডেস্ক হটলাইনে ২ মাসে ২০৬ প্রবাসীর কল

প্রবাসী অধ্যুষিত অঞ্চল সিলেট। প্রবাসীরা নানামুখী সমস্যায় থাকেন এবং তারা সেটা কীভাবে, কোথায় জানাবেন, তেমন কােনাে ব্যবস্থা নেই। ফলে প্রবাসীদের, অর্থাৎ রেমিট্যান্সযোদ্ধাদের কষ্ট লাঘবের জন্য সিলেট জেলা পুলিশ হটলাইন সার্ভিস চালুর পর ব্যাপক সাড়া মিলেছে।

প্রবাসী কল্যাণ ডেস্কের মাধ্যমে নিয়ন্ত্রিত এ সেবায় সহজেই বিদেশ থেকে প্রবাসীরা তাদের সমস্যার কথা জানাচ্ছেন এবং পুলিশ সে অনুযায়ী পদক্ষেপ নিচ্ছে। গত ২১ নভেম্বর পর্যন্ত দুই মাসে ২০৬ জন ভোক্তভোগী প্রবাসী দেশে এসে কিংবা প্রবাসে থেকে আইনী সহায়তা দিতে হটলাইন নম্বরে কল করেছেন। এরমধ্যে বেশিরভাগ জায়গা-জমি সংক্রান্ত সমস্যা নিয়ে কথা বলেন প্রবাসীরা।

নতুন পুলিশ সুপার আব্দুল্লাহ আল মামুন যােগদানের পর গত ১৫ সেপ্টেম্বর আনুষ্ঠানিকভাবে প্রবাসী কল্যাণ ডেস্কের আওতায় (হটলাইন নম্বর ০১৩২০-১১৭৯৭৯) এই সেবা চালু করেন। সপ্তাহের সাত দিন ২৪ ঘণ্টা এই নম্বরে নিজেদের অভিযোগ জানানোর পাশাপাশি সহায়তা চাইতে পারছেন প্রবাসীরা। প্রতিদিন ৮ ঘণ্টা করে রাত-দিন ২৪ ঘণ্টা প্রবাসী কল্যাণ ডেস্কের দায়িত্বে রয়েছেন নারী পুলিশ সদস্যরা।

যােগাযােগ করা হলে হটলাইন সার্ভিসের ইনচার্জ পুলিশ পরিদর্শক ফেরদৌসী শাহনাজ বলেন, এই সেবা চালু হওয়ার পর এপর্যন্ত ২০৬টি কল এসেছে। এরমধ্যে ২৪টি অভিযােগ ছিল। বাকিগুলাে ছিল নানা ধরণের পরামর্শ নেয়া।

তিনি বলেন, যুক্তরাজ্য, ওমান, দুবাই, সৌদী আরব প্রবাসীদের কল বেশি এসেছে। তাদের বেশির ভাগের সমস্যা জমিজমা সংক্রান্ত বিরােধ। তিনি আরাে বলেন, প্রবাসীরা তাদের কাছে মােবাইল ফােনের মাধ্যমে কথা বলার পর ই-মেইলে অভিযােগ পাঠান। এই অভিযােগগুলাে তারা সংশ্লিষ্ট থানায় পাঠিয়ে সমাধান করছেন।

ইতােমধ্যে জৈন্তাপুর, বিয়ানীবাজার ও গােলাপগঞ্জ এলাকার ৪টি অভিযােগ নিষ্পত্তি করা হয়েছে।

জানতে চাইলে পুলিশ সুপার আব্দুল্লাহ আল মামুন বলেন, এ অঞ্চলের বহু সংখ্যক মানুষ যুক্তরাজ্য ও যুক্তরাষ্ট্রসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশে বসবাস করেন। দেশে জায়গাজমিসহ নানা জটিলতার মুখোমুখি হতে হয়। এসব সমস্যার কারণে আত্মীয়স্বজন থেকে শুরু করে বিভিন্ন মানুষের দ্বারা হয়রানির শিকার হন। কিন্তু তারা সুনির্দিষ্টভাবে তাদের অভিযোগ অনুযোগের কথা জানানোর সুযোগ পান না। তাছাড়া অনেক দেশে প্রবাসীরা যখন কাজে থেকে ফেরেন, তখন বাংলাদেশে রাত হয়ে যায়। এ জন্য তাদের সুবিধার্থে প্রবাসী কল্যাণ ডেস্কে হটলাইন নাম্বার খোলা হয়েছে। এই নম্বরে হোয়াটঅ্যাপ, ভাইবার রয়েছে। রাত-দিন যেকোনো সময়ে তারা পুলিশের সেবা নিতে পারবেন।

তিনি বলেন, প্রবাসী কল্যাণ ডেস্কে হটলাইন নম্বরে ২৪ ঘণ্টা নারী পুলিশ সদস্যরা দায়িত্ব পালন করন। পাশাপাশি প্রবাসে থাকা এ অঞ্চলের মানুষ আঞ্চলিক ভাষায় কথা বলতে স্বাচ্ছন্নবোধ করেন। সে জন্য সিলেটের ভাষা বলতে পারেন, বুঝতে পারেন, এমন নারী পুলিশ সদস্যরা হেল্প ডেস্কে হটলাইনে দায়িত্ব পালন করছেন।