হানিফ সংকেতের মৃত্যুর গুজব

প্রকাশিত: ১:২৪ অপরাহ্ণ, মে ২৫, ২০২২

হানিফ সংকেতের মৃত্যুর গুজব

বিশিষ্ট সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব এবং উপস্থাপক হানিফ সংকেত আর নেই! গত মঙ্গলবার (২৪ মে) দিবাগত রাত থেকেই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এমন গুজবই ছড়িয়ে পড়েছে। এ ঘটনায় বর্তমানে বেশ বিব্রত হানিফ সংকেত।

গণমাধ্যমকে তিনি বলেছেন, এসব নিয়ে বলার কোনো ভাষা নেই। শুনেছি, টিকটকে প্রথমে গুজবটি ছড়ানো হয়। এরপর সেটিকে সত্য মনে করে কোনো খোঁজ খবর ছাড়াই দায়িত্বশীল অনেকেই আমার মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করে ফেসবুকে পোস্ট দিয়েছেন। মূলত সেখান থেকেই ভুয়া খবরটি ভাইরাল হয়ে যায়। এসব ঘটনা একজন মানুষ ও তার পরিবারকে দারুণভাবে আহত করে, বিব্রত করে। আমি সুস্থ আছি, ভালো আছি।

এরই মধ্যে বিষয়টি নিয়ে আইনি পদক্ষেপ নিয়েছেন হানিফ সংকেত। তিনি পুলিশের সাইবার ক্রাইম বিভাগে অভিযোগও জানিয়েছেন। গুজব প্রচারকারীদের আইনের আওতায় আনতে বেশকিছু ইউনিট কাজ করে যাচ্ছে।

তার ভাষায়, আমি পুলিশের সঙ্গে কথা বলেছি। যারা গুজবটি ছড়িয়েছেন তাদের শনাক্ত করে যেন শাস্তি দেওয়া হয়। দুইদিন পরপর দেশের বিভিন্ন অঙ্গনের মানুষকে নিয়ে এসব গুজব ছড়ানো হয়। এটা খুবই দুঃখজনক।

এ দিকে কিছু ফেসবুক পেজ থেকে দাবি করা হচ্ছে, হানিফ সংকেত নন, সড়ক দুর্ঘটনায় তার ভাই মারা গেছেন। এই তথ্যটিকেও ভুল বলে জানিয়েছেন জনপ্রিয় এই উপস্থাপক। তার ভাই বছর খানেক আগেই মৃত্যুবরণ করেছেন।

আরও পড়ুন : সাজার বিরুদ্ধে আপিলে গেলেন হাজী সেলিম

উল্লেখ্য, বাংলাদেশ টেলিভিশন বিটিভির জনপ্রিয় ‘যদি কিছু মনে না করেন’ ম্যাগাজিন অনুষ্ঠানের মাধ্যমে প্রথম দর্শকদের নজরে আসেন হানিফ সংকেত। এরপর ১৯৮৯ সালে তিনি বিটিভিতে নিয়ে আসেন ‘ইত্যাদি’। যা এখনো ধারাবাহিকভাবে চলছে।

প্রতি মাসেই টেলিভিশনে অনুষ্ঠানটির নতুন পর্ব প্রচারিত হয়। দেশের ইতিহাসে সবচেয়ে জনপ্রিয় ও দীর্ঘস্থায়ী ম্যাগাজিন অনুষ্ঠান ‘ইত্যাদি’।

এছাড়া গুণী এই মিডিয়া ব্যক্তিত্ব বহু নাটক নির্মাণ করেছেন। তার নির্মিত নাটকগুলোর মধ্যে রয়েছে- ‘দুর্ঘটনা’, ‘তোষামোদে খোশ আমোদে’, ‘আয় ফিরে তোর প্রাণের বারান্দায়’, ‘পুত্রদায়’, ‘বিপরীতে হিত’, ‘কিংকর্তব্য’, ‘শোধ বোধ’, ‘ভূত অদ্ভুত’ ইত্যাদি।


 

সর্বমোট পাঠক


বাংলাভাষায় পুর্নাঙ্গ ভ্রমণের ওয়েবসাইট