হাদিসুরের লাশ ফেরত আসার খবরে পরিবারে স্বস্তি

প্রকাশিত: ১:১৫ অপরাহ্ণ, মার্চ ১২, ২০২২

হাদিসুরের লাশ ফেরত আসার খবরে পরিবারে স্বস্তি

হৃদয়বিদারক খবর হলেও ইউক্রেনে বোমা হামলায় নিহত হাদিসুর রহমান আরিফের লাশ দেশে ফিরিয়ে আনা হচ্ছে, এমন সংবাদে কিছুটা হলেও স্বস্তি পাচ্ছেন পরিবার। আগামীকাল রোববার বাংলাদেশ সময় রাত ৮টার সময় তার লাশ আন্তর্জাতিক হযরত শাহজালাল বিমানবন্দরে পৌঁছাবে বলে জানা যায়। আগামী সোমবার (১৪ মার্চ ) বরগুনার বেতাগীর হোসনাবাদ নিজ গ্রামে তার লাশ এসে পৌঁছাবে।

দৈনিক নয়া দিগন্তকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন বেতাগী উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) মোঃ সুহৃদ সালেহীন। এর আগে হাদিসের লাশ দেশে ফেরত না আসায় হতাশা ও ক্ষোভ প্রকাশ করেছিলেন পরিবারসহ এলাকাবাসী।

এদিকে একমাত্র অর্থ উপার্জনকারীকে হারিয়ে পরিবারের আহাজারি কিছুতেই যেন থামছেন না। দিন যত বাড়ছে পরিবারের আহাজারি ততই বেড়ে চলছে। কেউ যেন এ অসহায় পরিবারের আহাজারি শুনেও শুনছেন না। রাজনৈতিক নেতাদের আশ্বাস নিরাশায় পরিনত হয়েছে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ও রাষ্ট্রদূতের সাথে দেখা না করতে পেরে এ অসহায় পরিবারটি হতাশা ও বেদনা প্রকাশ করেছেন। নিহত হাদিসুর রহমান আরিফের মা ও বাবা এক রকম বাকরুদ্ধ হয়ে পড়েছেন।

ইউক্রেন ও রাশিয়ায় যুদ্ধের সঙ্ঘাতে নিহত হন বাংলাদেশী ‘এমভি বাংলার সমৃদ্ধি’ জাহাজে কর্মরত থার্ড ইঞ্জিনিয়ার মোহাম্মদ হাদিসুর রহমান। তার মৃত্যুতে পুরো পরিবারের স্বপ্নের মৃত্যু হয়েছে।

নিহত হাদিসুরের বাড়ি বরগুনার বেতাগী উপজেলার হোসনাবাদ গ্রামে।

মা আমেনা বেগম আহাজারি করতে করতে বলেন, ‘সবার আগে এখন আমার বাবাকে দেখতে ব্যাকুল আমি। আমি কী করি, খাইছি কিনা, ঔষধ খাইছি কিনা তা আর কেউ জিগায় না। আমারে এ্যাহন কেডা ঔষধ কিন্না দেবে।’

তিনি বলেন, ঢাকা গেলাম মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ও রাষ্টদূতের সাথে দেখা করবো, তাও পারলাম না। এরপর বুধবার দুপুরে বিমানবন্দরে গিয়েছিলাম। ২৮ নাবিকের সাথে হাদিসুরের লাশ ফিরে পাবো এই আশা নিয়ে। তাও বাজানের লাশ পাইলাম না। এসব কথা বলতে বলতে কাঁন্নায় ভেঙে পড়েন তিনি।

এ বিষয়ে বেতাগী উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) মোঃ সুহৃদ সালেহীন নয়াদিগন্তকে বলেন, জেলা প্রসাশনের আন্তরিক সহযোগিতায় নিহত ইঞ্জিনিয়ার হাদিসুর রহমান আরিফের লাশ আগামী সোমবার বরগুনার বেতাগীর নিজ গ্রামে এসে পৌঁছাবে। আমি সাধ্য অনুযায়ী এ পরিবারের সাথে থেকে সার্বিক সহযোগিতার চেষ্টা করব।