সিলেট জেলা প্রেসক্লাবে নবীন সদস্যদের বরণ, মতবিনিময়

প্রকাশিত: ৯:৫৭ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ২২, ২০২১

সিলেট জেলা প্রেসক্লাবে নবীন সদস্যদের বরণ, মতবিনিময়

সিলেট সংবাদ ডেস্ক :: সিলেটের শতবর্ষের সাংবাদিকতার স্মারক প্রতিষ্ঠান ঐতিহ্যবাহী সিলেট জেলা প্রেসক্লাবে নবীন সদস্যদের ফুল দিয়ে বরণ করলেন কার্যনির্বাহী পরিষদ নেতৃবৃন্দ। এ উপলক্ষে সোমবার বিকেল ৪টায় প্রেসক্লাবের কনফারেন্স হলে নবীনবরণ অনুষ্ঠান ও মতবিনিময়ের আয়োজন করা হয়।
জেলা প্রেসক্লাবের সভাপতি আল আজাদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানের শুরুতেই নতুন সদস্যদের ফুল দিয়ে বরণ করে নেন কার্যনির্বাহী পরিষদ নেতৃবৃন্দ।
জেলা প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক ছামির মাহমুদের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন সিনিয়র সহসভাপতি মঈন উদ্দিন, কোষাধ্যক্ষ মিসবাহ উদ্দীন আহমদ, দপ্তর সম্পাদক এসএম রফিকুল ইসলাম সুজন ও নির্বাহী সদস্য মিঠু দাস জয়।
সভাপতির বক্তব্যে আল আজাদ বলেন, ‘সিলেট জেলা প্রেসক্লাব মুক্তিযুদ্ধের স্বপক্ষের শক্তির সাংবাদিকদের প্রতিনিধিত্ব করে বলেই আজ অনন্য উচ্চতায় স্থান করে নিয়েছে। সর্বমহলে আজ জেলা প্রেসক্লাবের অগ্রাধিকার এবং আলাদা গুরুত্ব। কারণ- একাত্তরের চেতনা যে সাংবাদিকের মধ্যে জাগ্রত হয় না, লালন করা হয় না তার জেলা প্রেসক্লাবের সঙ্গে থাকার যোগ্যতা নেই। এমন কোনো সাংবাদিক জেলা প্রেসক্লাবে নেইও।’
তিনি বলেন, ‘জেলা প্রেসক্লাব কয়েকটি যুগান্তকারী পদক্ষেপ নিয়েছে। যা দেশের আর কোনো প্রেসক্লাবও হয়তো নিতে পারেনি। এর মধ্যে অন্যতম হচ্ছে- জেলা প্রেসক্লাবই সর্বপ্রথম সিলেটের সকল উপজেলা প্রেসক্লাবকে নানা কার্যক্রমের সাথে সংযুক্ত করেছে।’
সহসভাপতি মঈন উদ্দিন তার বক্তব্যে বলেন, ‘সিলেট জেলা প্রেসক্লাবের প্রতিষ্ঠার গল্প অনেক ত্যাগ ও বিপ্লবের। পাকিস্তানপ্রীতির বিরুদ্ধে লড়াই করতে গিয়ে এই প্রেসক্লাবের জন্ম। আপনারা নতুন সদস্যরাও এই আজ এই বিপ্লবের অংশীদার। আপনাদের কাজ ও সহযোগিতায় জেলা প্রেসক্লাবের কার্যক্রম আরও নান্দনিক হবে বলে আমাদের বিশ্বাস।’
সাধারণ সম্পাদক ছামির মাহমুদ বলেন- ‘যারা নতুন সদস্য হলেন, আপনাদের পেশাদারী বা ব্যক্তিগত সৎ স্বার্থসংশ্লিষ্ট বিষয়ে দেখভাল করবে জেলা প্রেসক্লাব। কিন্তু কোনো অপেশাদারী বা অসৎ কাণ্ডে প্রেসক্লাবের সহায়তা পাবেন না। আশা করি আমাদের মূল্যায়নের অবমূল্যায়ন আপনারা করবেন না।’
কোষাধ্যক্ষ মিসবাহ উদ্দীন আহমদ তার বক্তব্যে বলেন, ‘আমাদের দৃঢ় বিশ^াস- নতুন যুক্ত হওয়া সদস্যরা প্রেসক্লাবের কার্যক্রম আরও বেগবান করতে ও সর্বক্ষেত্রে সম্মান অক্ষুণ্ন রাখতে সচেষ্ট থাকবেন। প্রেসক্লাবের স্বার্থবিরোধী কোনো কার্যকলাপের দায়ে কঠিন কোনো সিদ্ধান্ত নিতে পিছপা হবে না।’
নেতৃবৃন্দের বক্তব্যের শেষে নতুন সদস্যরা তাদের অনুভূতি ব্যক্ত করে জেলা প্রেসক্লাব নেতৃবৃন্দের প্রতি কৃতজ্ঞতা ও ধন্যবাদ ব্যক্ত করেন।
নতুন সাধারণ সদস্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন দৈনিক বিজয়ের কণ্ঠের বিশেষ প্রতিবেদক মো. রেজাউল হক ডালিম, দৈনিক উত্তরপূর্বের সাব এডিটর ফয়জুল আহমদ, দৈনিক শুভ প্রতিদিনের সহকারী বার্তা সম্পাদক মো. সোহেল আহমদ সুহেল (নবীন সোহেল), দৈনিক একাত্তরের কথার স্টাফ রিপোর্টার মো. ইয়াকুব আলী, দৈনিক জাগ্রত সিলেটের বার্তা সম্পাদক রাজীব আহমেদ রাসেল, দৈনিক আমার সংবাদের সিলেট জেলা প্রতিনিধি মুহাজিরুল ইসলাম রাহাত, দৈনিক জাগ্রত সিলেটের সিনিয়র রিপোর্টার তুহিন আহমদ, দৈনিক একাত্তরের কথার স্টাফ রিপোর্টার সাকিব আল মামুন, দৈনিক যুগভেরীর স্টাফ রিপোর্টার ইমরান আহমদ (আহমদ ইমরান), দৈনিক শুভ প্রতিদিনের স্টাফ রিপোর্টার সুমন ইসলাম, দৈনিক উত্তরপূর্বের স্টাফ ফটোসাংবাদিক পল্লব ভট্টাচার্য্য, দৈনিক একাত্তরের কথার স্টাফ রিপোর্টার মো. মেহেদী হাসান মিজু, দৈনিক শ্যামল সিলেটের স্টাফ ফটোগ্রাফার মো. শাহীন ও দৈনিক আমার সংবাদের সিলেট প্রতিনিধি এ. এস. রায়হান। সহযোগী সদস্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন এনটিভি ইউরোপের সিলেট প্রতিনিধি সাজলু লস্কর ও দৈনিক আমার সংবাদের ফটোসাংবাদিক মো. শহীদুল ইসলাম সবুজ।

  •