কানাইঘাট পৌরসভায় ভোটগ্রহণ শুরু

প্রকাশিত: ৮:০৫ পূর্বাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ১৪, ২০২১

কানাইঘাট পৌরসভায় ভোটগ্রহণ শুরু

সিলেটের কানাইঘাট পৌরসভা নির্বাচনে ভোটগ্রহণ শুরু হয়েছে। আজ রোববার (১৪ ফেব্রুয়ারি) সকাল ৮টায় এই ভোটগ্রহণ শুরু হয়েছে। চলবে বিকাল চারটা পর্যন্ত।

নির্বাচনে পৌরসভার ৯টি কেন্দ্রে প্রায় ২০ হাজার ভোটার মেয়রের পাশাপাশি ওয়ার্ড কাউন্সিলর ও সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর নির্বাচিত করতে ভোটাধিকার প্রয়োগ করবেন।

এর আগে শনিবার বিকেলে ৯ ভোটকেন্দ্রে ভোটের সরঞ্জাম পাঠানো হয়েছে। তবে নির্বাচন কমিশনের প্রজ্ঞাপন অনুসারে ব্যালট পেপার আজ সকালে কেন্দ্রে পৌঁছানো হয়।

পৌর নির্বাচনের সহকারি রিটার্নিং কর্মকর্তা ও উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা আবুল হাসনাত জানান, ‘নয়টি ভোটকেন্দ্রে ভোটকক্ষ রয়েছে ৫৭টি। ভোটগ্রহণের সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে। ভোটাররা যাতে নির্বিঘ্নে ভোটাধিকার প্রয়োগ করতে পারেন সে জন্য আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা সার্বক্ষণিক দায়িত্ব পালন করছেন।’

ভোটে নিরাপত্তা নিশ্চিতে কয়েক স্তরের নিরাপত্ত বলয় থাকবে বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা। ইতোমধ্যে এক প্লাটুন বিজিবি পৌর এলাকায় মোতায়েন করা হয়েছে। প্রতি ভোট কেন্দ্রে ২১ জন পুলিশ ও আনসার দায়িত্ব পালন করছেন। এছাড়া ভোটের দিনে প্রতি কেন্দ্রে একজন করে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট দায়িত্ব পালন করবেন। তাছাড়া র‌্যাবের একাধিক টহল দলও ভোটের দিনে পৌর এলাকায় নিরাপত্তার কাজে মোতায়েন থাকবে।

নির্বাচন কমিশন সূত্রে জানা গেছে, কানাইঘাট পৌরসভা ২০০৫ সালে গঠিত হয়। বর্তমানে এ পৌরসভা ‘খ’ শ্রেণীভুক্ত। এ নির্বাচন তৃতীয় নির্বাচন। এর আগে আরও দু’টি নির্বাচন হয়েছিল পৌরসভায়। ভোটার সংখ্যা ১৯ হাজার ৪২৭ জন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ৯ হাজার ৮৮০ জন এবং মহিলা ভোটার ৯ হাজার ৫৪৭ জন।

সর্বশেষ গত নির্বাচনে আওয়ামী লীগের নৌকার প্রার্থী লুৎফুর রহমানকে পরাজিত করে মেয়র নির্বাচিত হন বিদ্রোহী প্রার্থী নিজাম উদ্দিন। এবারের নির্বাচনেও এ দু’জন প্রার্থী মেয়র পদে লড়ছেন। এর বাইরে আরও ৪ জন মেয়র প্রার্থী রয়েছেন। এ ছাড়া ৯ ওয়ার্ডে ৩৯ জন কাউন্সিলর প্রার্থী এবং ৩টি সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলরের পদের জন্য ৯ জন প্রার্থী নির্বাচনে লড়ছেন।

মেয়র প্রার্থীরা হলেন- স্বতন্ত্র প্রার্থী ও বর্তমান মেয়র মো. নিজাম উদ্দিন (নারিকেল গাছ), বিএনপি মনোনীত শরিফুল হক (ধানের শীষ), আওয়ামী লীগের লুৎফুর রহমান নিয়ে (নৌকা), ইসলামী আন্দোলনের নজির আহমদ (হাতপাখা), স্বতন্ত্র প্রার্থী সোহেল আমীন (জগ) এবং কাওসার আহমেদ (মোবাইল ফোন) প্রতীক নিয়ে নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

সিলেট জেলা পুলিশের সহকারী পুলিশ সুপার (কানাইঘাট সার্কেল) মো. আব্দুল করিম জানান, ‘এ পৌরসভার সকল ভোট কেন্দ্রই গুরুত্বপূর্ণ। এজন্য গুরুত্বপূর্ণ ভোটকেন্দ্রে কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা থাকবে। পাশাপাশি নির্বাচনী এলাকায় বিশেষ নিরাপত্তা বলয় গড়ে তোলা হয়েছে।