আবারো কোয়ারেন্টাইনে ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন

প্রকাশিত: ১২:১২ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ১৬, ২০২০

আবারো কোয়ারেন্টাইনে ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন

কোভিড-১৯ আক্রান্ত সংসদ সদস্যের সংস্পর্শে আসার পর নিজেকে কোয়ারেন্টাইনে নিয়েছেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন।

ডাউনিং স্ট্রিটের এক মুখপাত্র রোববার বিবৃতিতে এ কথা জানিয়েছেন।

বরিস জনসন বৃহস্পতিবার সকালে ১০ নম্বর ডাউনিং স্ট্রিটে কিছু সংসদ সদস্যের সাথে বৈঠক করেন। সেখানে উপস্থিত ছিলেন অ্যাশফিল্ডের সাংসদ লি অ্যান্ডারসন। পরে তার করোনাভাইরাস ধরা পড়ে বলে জানায় স্কাই নিউজ।

ডাউনিং স্ট্রিটের বিবৃতিতে বলা হয়, ‘প্রধানমন্ত্রী ভালো আছেন এবং তার মাঝে কোভিড-১৯-এর কোনো লক্ষণ নেই।’

মুখপাত্র জানান, করোনাভাইরাস মহামারি বিষয়ে সরকারের কার্যক্রমে নেতৃত্ব দেয়াসহ অন্যান্য কাজ প্রধানমন্ত্রী ডাউনিং স্ট্রিট থেকে করবেন।

বরিস জনসন রোববার রাতে টুইটারে লিখেন, ‘আজ এনএইচএস টেস্ট অ্যান্ড ট্রেস থেকে আমাকে অবহিত করা হয়েছে যে আমার নিজেকে আইসোলেশনে নেয়া উচিত। কারণ কোভিড-১৯ ধরা পড়া একজনের সংস্পর্শে এসেছিলাম আমি।’

‘আমার মাঝে কোনো লক্ষণ নেই। তবে আমি নিয়মগুলো অনুসরণ করছি এবং মহামারিতে সরকারের সাড়াদানে নেতৃত্ব দেয়া অব্যাহত রাখতে ১০ নম্বরে কাজ চালিয়ে যাব,’ বলেন বরিস জনসন।

তিনি গত মার্চের শেষ দিকে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছিলেন এবং অসুস্থতার জন্য তাকে এপ্রিলের শুরুর দিকে তিন দিন নিবিড় পর্যবেক্ষণ কেন্দ্রে থাকতে হয়েছিল।

ব্রিটেনে করোনাভাইরাস প্রাদুর্ভাব দেখা দেয়ার পর ইংল্যান্ড দ্বিতীয়বারের মতো জাতীয় লকডাউনে রয়েছে। মাসব্যাপী এ লকডাউন চলবে ২ ডিসেম্বর পর্যন্ত।

রবিবার প্রকাশিত সরকারি তথ্য অনুযায়ী, ব্রিটেনে আরো ২৪ হাজার ৯৬২ জন কোভিড-১৯ আক্রান্ত হয়েছেন। যার ফলে মোট আক্রান্ত ১৩ লাখ ৬৯ হাজার ৩১৮ জনে পৌঁছেছে। আর দেশটিতে করোনাভাইরাসে নতুন ১৬৮ মৃত্যুতে মোট সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৫১ হাজার ৯৩৪ জনে।

স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসতে ব্রিটেন, চীন, জার্মানি, রাশিয়া ও যুক্তরাষ্ট্রের মতো দেশগুলো করোনাভাইরাসের টিকা উদ্ভাবনে জোর চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।

সূত্র : ইউএনবি


  •  

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

সর্বমোট পাঠক


বাংলাভাষায় পুর্নাঙ্গ ভ্রমণের ওয়েবসাইট