উন্নয়নের ছোঁয়া জনগণের দোরগোড়ায় পৌঁছে দিতে সরকার বদ্ধপরিকর : প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রী

প্রকাশিত: ২:২৬ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ২৯, ২০২০

উন্নয়নের ছোঁয়া জনগণের দোরগোড়ায় পৌঁছে দিতে সরকার বদ্ধপরিকর : প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রী

‘উন্নয়নের ছোঁয়া জনগনের দোরগোড়ায় পৌঁছে দিতে সরকার বদ্ধপরিকর’- উল্লেখ করে প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী ইমরান আহমদ এমপি বলেছেন, ‘শহর ও গ্রামের মধ্যে ব্যবধান কমাতে শেখ হাসিনার সরকার নানা কর্মসূচি বাস্তবায়ন করছে। গ্রামের মধ্যেই স্বাস্থ্য, শিক্ষা, বিনোদনসহ সব সুযোগ সুবিধা থাকবে। শহরের সকল সুযোগ-সুবিধা নিশ্চিত করে তৈরি হবে দেশের প্রতিটি গ্রাম। উন্নত বিশ্বের ন্যায় প্রতিটি গ্রাম হবে স্বয়ংসম্পূর্ণ। নাগরিকদের মৌলিক চাহিদা হিসেবে খাদ্য, বস্ত্র, বাসস্থান, শিক্ষা ও চিকিৎসা ব্যবস্থা প্রতিষ্ঠার পাশাপাশি সংস্কৃতিকে প্রাধান্য দিয়ে তৈরি করা হবে দেশের গ্রামগুলো।’

বৃহস্পতিবার সিলেটের গোয়াইনঘাট উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নে উন্নয়ন মূলক প্রকল্পের ভিত্তিপ্রস্থর ও উদ্বোধন কালে এসব কথা বলেন। উন্নয়ন মূলক প্রকল্প গুলোর মধ্যে রয়েছে- উপজেলার নবগঠিত ১০নং পশ্চিম আলীরগাওঁ ইউনিয়ন পরিষদের কার্যালয়ের উদ্বোধন, পশ্চিম আলীরগাওঁ ইউনিয়নের পুকাশ স্কুল অ্যান্ড কলেজের লাইব্রেরী ও জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তর এবং বিশ্ব ব্যাংকের যৌথ অর্থায়নে পূর্ণানগর গ্রামে পানি শোধনাগার প্রকল্পের উদ্বোধন, গোয়াইনঘাট উপজেলা সদরে ১৪ কোটি টাকা ব্যয়ে উপজেলা মডেল মসজিদের নির্মাণ কাজের ভিত্তিপ্রস্থর, এলজিইডির অর্থায়নে গোয়াইনঘাট উপজেলা সদরে অবস্থিত পুকুর পাড়ের চতুর্দিকের পাকা কাজের ভিত্তি প্রস্থর।

এসময় মন্ত্রী আরও বলেন, ‘প্রাথমিকভাবে দেশের ৮ বিভাগে ১৫টি গ্রামকে মডেল হিসেবে বেছে নেয়া হবে বলে জানা গেছে। পর্যায়ক্রমে তা বাড়িয়ে ২০৪১ সাল নাগাদ উন্নত বাংলাদেশের সকল গ্রামকেই এর অন্তর্ভুক্ত করা হবে। নাগরিকদের প্রাপ্য সকল প্রকার সুবিধা নিশ্চিত করতে যৌথভাবে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেবে সরকারের বিভিন্ন মন্ত্রণালয়। শহরের নাগরিকদের দেয়া সরকারের সকল প্রকার সেবার সুযোগ দেয়া হবে গ্রামে বসবাসকারীদের। উন্নত বিশ্বের ন্যায় দেশের প্রতিটি গ্রামকেই শহরের আদলে তৈরি করা হবে। প্রতিটি স্বয়ংসম্পূর্ণ গ্রামে বিদ্যুত, পানি, স্বাস্থ্য, শিক্ষা, উন্নত স্যানিটেশন, বর্জ্য ব্যবস্থাপনা, আধুনিক রাস্তা ঘাট, মার্কেট, খেলার মাঠ, পার্ক এবং বিনোদন কেন্দ্র তৈরি করা হবে। প্রাপ্য সকল নাগরিক সুবিধা দিয়ে তৈরি করা হবে ‘মডেল গ্রাম’। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশ অনুযায়ী উন্নত বাংলাদেশ গঠনে তাঁর স্বপ্ন বাস্তবে রূপ দিতে এমন আধুনিক সুবিধাযুক্ত গ্রাম গড়ে তোলার উদ্যোগ বাস্তবায়নের দিকেই সরকার এগোচ্ছেন।’

এদিকে উপজেলা সদরে অবস্থিত গোয়াইনঘাট উপজেলার একমাত্র বালিকা বিদ্যালয় ইমরান আহমদ বালিকা বিদ্যালয় পরিদর্শন করেন সরকারের প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী ইমরান আহমদ এমপি। অনুষ্ঠান মালায় উপস্থিত ছিলেন গোয়াইনঘাট উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ ফারুক আহমদ, ভাইস চেয়ারম্যান মাওলানা গোলাম আম্বিয়া কয়েছ, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান আফিয়া বেগম, গোয়াইনঘাট উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ নাজমুস সাকিব, গোয়াইনঘাট সার্কেলের সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার মোঃ নজরুল ইসলাম, গোয়াইনঘাট সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ মোঃ ফজলুল হক, গোয়াইনঘাট থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ আব্দুল আহাদ, সিলেটের জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরের নির্বাহী প্রকৌশলী আলমগীর হোসেন, কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা জনস্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সহকারী প্রকৌশলী রতন লাল সাহা, উপসহকারী প্রকৌশলী মোঃ ইউনুস আলী, গোয়াইনঘাট উপজেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহসভাপতি মোহাম্মদ আসলম, গোয়াইনঘাট উপজেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক ইসমাইল আলী মাস্টার, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সুভাস চন্দ্র পাল ছানা ও শামসুল আলম, ইউপি চেয়ারম্যান লুৎফুর রহমান লেবু ও আমিনুর রহমান চৌধুরী, সাংগঠনিক সম্পাদক ফরিদ আহমদ শামিম, দপ্তর সম্পাদক মুজিবুর রহমান প্রমুখ।


  •  

সর্বমোট পাঠক


বাংলাভাষায় পুর্নাঙ্গ ভ্রমণের ওয়েবসাইট