রাতে নিখোঁজ, সকালে মিলল হাত-পা বাঁধা লাশ

প্রকাশিত: ১:৩২ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ২২, ২০২০

রাতে নিখোঁজ, সকালে মিলল হাত-পা বাঁধা লাশ

শরীয়তপুরের ডামুড্যা উপজেলায় টিভি দেখতে গিয়ে নিখোঁজ এক কিশোরীর (১৫) হাত-পা ও মুখ বাঁধা মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। বৃহস্পতিবার সকালে উপজেলা পৌরসভার ৫নং ওয়ার্ডে পাশে খাল থেকে তার ভাসমান মরদেহ উদ্ধার করা হয়। নিহত ওই কিশোরীর নাম কাজল আক্তার। সে একই এলাকার আলাউদ্দিন ছৈয়ালের মেয়ে। স্থানীয়রা জানান, প্রতিদিন রাতে টিভি দেখতে পাশের ঘরে যেত কাজল। বুধবার রাতেও সে অনেকের সঙ্গে বসে টিভি দেখে। রাতে খাবারের সময় বাবা আলাউদ্দিন ঘরে কাজলের কথা জানতে চাইলে তার মা বুলু বেগম বলেন, মেয়ে টিভি দেখতে গেছে। অনেক রাত হয়ে যাওয়ায় কাজলের বাবা খোঁজ নেন। কিন্তু ওই বাড়িতে পাননি। না পেয়ে বিভিন্ন আত্মীয়স্বজনকে ফোন করে তার কোনো খোঁজ পাননি।

এর পর বাবা উপায় না পেয়ে বিভিন্ন জায়গায় নিজেই খোঁজ করেন, মেয়ের কোনো সন্ধান না পেয়ে হতাশ হয়ে চিন্তায় একপর্যায়ে অচেতন হয়ে ঘুমিয়ে পড়েন। সকালে বাড়ির পাশে খালে কাজলের মরদেহ ভাসতে দেখে পুলিশে খবর দেন স্থানীয়রা।

বাবা আলাউদ্দিন ছৈয়াল বলেন, আমি রাতে এশার নামাজ পড়ে এসে কাজলকে ঘরে পাইনি। পরে তার মাকে জিজ্ঞাসা করলে মেয়ে টিভি দেখতে গেছে বলে জানতে পারি।

রাতে খাওয়ার সময় কাজলকে খোঁজ করি না পেয়ে আমি বিভিন্ন জায়গায় খুঁজি। রাতে আমি আমার অন্য মেয়েদের বাড়িতে খবর নেই ওখানেও যায়নি। পরে সকালে আবার খোঁজ করি। ওর মা খালের পাশে গিয়ে দেখে মেয়ের হাত-পা বাঁধা, মেয়ের মরদেহ খালে উপুড় হয়ে রয়েছে।

ডামুড্যা থানার ওসি (তদন্ত) এমারত হোসেন বলেন, মরদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য পাঠিয়েছি। এখনও অভিযোগ হয়নি। অভিযোগের ভিত্তিতে পরবর্তী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।


  •  

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

সর্বমোট পাঠক


বাংলাভাষায় পুর্নাঙ্গ ভ্রমণের ওয়েবসাইট