সুরমার তীরে অবৈধভাবে পাথর পরিবহন ও স্টোন ক্রাশার স্থাপনকারীদের বিরুদ্ধে অভিযান

প্রকাশিত: ১২:৪৫ পূর্বাহ্ণ, জুলাই ১৪, ২০২০

সুরমার তীরে অবৈধভাবে পাথর পরিবহন ও স্টোন ক্রাশার স্থাপনকারীদের বিরুদ্ধে অভিযান

সিলেটে সুরমা নদীর দুই তীরে অবৈধভাবে পাথর পরিবহন ও অবৈধভাবে স্টোন ক্রাশার মেশিন স্থাপনকারীদের বিরুদ্ধে সোমবার মোবাইল কোর্ট/এনফোর্সমেন্ট অভিযান পরিচালিত হয়েছে। কদমতলী ফেরিঘাট, কুচাই, মিরেরচক ও মুক্তিরচক এলাকায় এ অভিযান চালিয়ে ১ কোটি ১০ লক্ষ টাকা মূল্যের পাথর ভাঙ্গার যন্ত্রপাতি ধ্বংস করা হয়। পাশাপাশি ১ লাখ ৩০ হাজার ঘনফুট পাথর জব্দ করা হয়।
এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, পরিবেশ অধিদপ্তর সিলেট বিভাগীয় অফিসের পরিচালক মোহাম্মদ এমরান হোসেনের সার্বিক সহযোগিতায় ও জেলা প্রশাসন সিলেট-এর সহকারী ম্যাজিস্ট্রেট মেজবাহ উদ্দিনের নেতৃত্বে এ অভিযান পরিচালনা করা হয়। অভিযানকালে সুরমা নদীর দুই পারে অবৈধভাবে পাথর পরিবহন করা ও অবৈধভাবে স্থাপিত স্টোন ক্রাশার মেশিন স্থাপনকারীদের বিরুদ্ধে পরিবেম সংরক্ষণ আইন-১৯৯৫ সালের(সংশোধিত ২০১০) ও স্টোন ক্রাশিং নীতিমালা-২০০৬ (সংশোধিত ২০১৩) অনুযায়ী মোবাইল কোর্ট/এনফোর্সমেন্ট অভিযান পরিচালনা করা হয়। এ সময় আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়নের ১০ সদস্য এবং ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের সদস্যগণ উপস্থিত ছিলেন।
অভিযানকালে অবৈধভাবে পাথর পরিবহন করায় দুটি বাল্কহেড জাহাজ বিকল করা হয় এবং ৩০টি ডিজেল ইঞ্জিন, ২৩টি ছোট বড় ক্রাশার মেশিন ও মেশিন সংশ্লিষ্ট যন্ত্রপাতি ধ্বংস করা হয়। ধ্বংসকৃত মালামালের আনুমানিক মূল্য ১ কোটি ১২ লাখ টাকা। এ সময় ১ লাখ ৩০ হাজার ঘনফুট পাথর জব্দ করা হয়। জব্দ করা পাথর নিলামে বিক্রি করা হবে বলে জেলা প্রশাসনের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়।


  •  

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

সর্বমোট পাঠক


বাংলাভাষায় পুর্নাঙ্গ ভ্রমণের ওয়েবসাইট