ট্যাঙ্কলরি শ্রমিক নেতা রিপনের খুনিদের ফাঁসির দাবীতে বিক্ষোভ মিছিল-সমাবেশ

প্রকাশিত: ৯:১০ অপরাহ্ণ, জুলাই ১৩, ২০২০

ট্যাঙ্কলরি শ্রমিক নেতা রিপনের খুনিদের ফাঁসির দাবীতে বিক্ষোভ মিছিল-সমাবেশ

আব্দুল খালিক :  সিলেট বিভাগীয় ট্যাঙ্কলরী শ্রমিক ইউনিয়ন-২১৭৪ এর সাধারণ সম্পাদক ইকবাল হোসেন রিপনের খুনিদের গ্রেফতার করে ফাঁসির দাবীতে ট্যাঙ্কলরী শ্রমিক ইউনিয়নের উদ্যোগে এক বিক্ষোভ মিছিল-সমাবেশ ও মানববন্ধন কর্মসূচি পালিত হয়েছে।

গতকাল ১৩ জুলাই সোমবার সকালে নগরীর দক্ষিণ সুরমার ষ্টেশন রোডস্থ বাবনা পয়েন্ট সংলগ্ন যমুনা ডিপোর সামনে বিশাল মানববন্ধন কর্মসূচি পালিত হয়। পরে সেখান থেকে বিক্ষুব্ধ শ্রমিক নেতৃবৃন্দ মিছিল বের করেন। মিছিলটি বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে চন্ডিপুলস্থ সাবেক মন্ত্রী আব্দুস সামাদ আজাদ চত্বরে এক সমাবেশে মিলিত হয়।
সিলেট বিভাগীয় ট্যাঙ্কলরী শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি মোঃ মনির হোসেনের সভাপতিত্বে ও দপ্তর প্রধান সহকারী রকিব হাসানের পরিচালনায় বিক্ষোভ সমাবেশে বক্তব্য রাখেন সিলেট সিটি কর্পোরেশনের প্যানেল মেয়র-১, ২৬নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর তৌফিক বকস লিপন, খোজারখলা আদর্শ সমাজকল্যাণ সংঘের সভাপতি আকবর আলী মালাই, দক্ষিণ সুরমা উপজেলা ট্রাক কমিটির সহ সভাপতি জুমায়েল ইসলাম জুমেল, ট্যাঙ্কলরী শ্রমিক ইউনিয়নের সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল আজিজ।
মানববন্ধন, বিক্ষোভ মিছিল-সমাবেশে একাত্বতা প্রকাশ করে উপস্থিত ছিলেন সড়ক পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়ন-১৪১৮, ট্রাক কাভার্ট, পিকআপ ভ্যান শ্রমিক ইউনিয়ন, খোজারখলা আদর্শ সমাজকল্যাণ সংঘ ও সিলেটের শ্রমিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ সহ সিলেট বিভাগীয় ট্যাঙ্কলরী শ্রমিক ইউনিয়নের অসংখ্য নেতাকর্মীরা।
বিক্ষোভ সমাবেশে শ্রমিক নেতৃবৃন্দ ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, প্রশাসনকে ২৪ ঘন্টার আল্টিমেটাম দেয়ার পর আজ ৪ দিন অতিবাহিত হয়েছে কিন্তু এখন পর্যন্ত মূল আসামী গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিশ। শ্রমিকনেতা ইকবাল হোসেন রিপনের খুনিদের গ্রেফতারের দাবী জানিয়ে বলেন, শ্রমিকরা সব সময় শান্তি প্রিয়। শান্ত এই শ্রমিকদের অশান্ত করে সিলেটে কোন ধরনের অনাকাঙ্খিত ঘটনা ঘটলে প্রশাসনকে এর দায়ভার নিতে হবে। বক্তারা বলেন, প্রিয় নেতা রিপন খুন হওয়ার পর আমরা শান্তি-শৃংখলা ভাবে কর্মসূচি পালন করে যাচ্ছি। চিহ্নিত সন্ত্রাসী ও খুনিদের গ্রেফতার ও ফাঁসি হওয়ার আগ পর্যন্ত শ্রমিকদের আন্দোলন চলবে। বক্তারা হুশিয়ারী উচ্চারণ করে বলেন, খুনীদের গ্রেফতার করা না হলে, সারাদেশের শ্রমিক নেতৃবৃন্দ কঠোর কর্মসূচি দিতে বাধ্য হবে।


  •  

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

সর্বমোট পাঠক


বাংলাভাষায় পুর্নাঙ্গ ভ্রমণের ওয়েবসাইট