করোনায় মৃত যুবকের লাশ (রামেক) হাসপাতালে ফেলে পালিয়েছে স্বজনরা

প্রকাশিত: ১১:২০ পূর্বাহ্ণ, জুলাই ৫, ২০২০

করোনায় মৃত যুবকের লাশ (রামেক) হাসপাতালে ফেলে পালিয়েছে স্বজনরা

রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে করোনায় মৃত যুবকের মরদেহ ফেলে পালিয়ে গেছেন স্বজনরা। আজাদ আলী (৩০) নামের ওই যুবক চিকিৎসাধীন অবস্থায় শনিবার দিবাগত রাত দেড়টার দিকে রামেক হাসপাতালের আইসিইউতে মারা যান। তিনি নওগাঁর পত্নীতলা উপজেলার জামগ্রাম এলাকার বাসিন্দা।

রামেক হাসপাতালের উপপরিচালক ডা. সাইফুল ফেরদৌস এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, নওগাঁ থেকে করোনা নিয়ে তিন দিন আগে আজাদ আলী রামেক হাসপাতালে এসেছিলেন। প্রথম দিন তিনি ভর্তি ছিলেন হাসপাতালের ২৯ নম্বর ওয়ার্ডে। অবস্থার অবনতি হওয়ায় দুদিন আগে তাকে আইসিইউতে নেয়া হয়। চিকিৎসাধীন অবস্থায় সেখানেই তিনি মারা যান।

ডা. সাইফুল ফেরদৌস আরো জানান, শুরু থেকেই রোগীর সঙ্গে তার স্বজনরা ছিলেন। কিন্তু মারা যাওয়ার পর তারা মরদেহ ফেলে চলে যান।

মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করা হলে প্রথম দিকে মরদেহ গ্রামের বাড়িতে নিতে চেয়েছিলেন স্বজনরা। কিন্তু গ্রামবাসীর বাধায় নেয়া সম্ভব নয় বলে মরদেহ রাজশাহীতেই দাফনের কথা জানিয়ে দেন। এরপর থেকে তাদের মোবাইলে সংযোগ পাওয়া যাচ্ছে না।

বিষয়টি সংশ্লিষ্ট থানা পুলিশকে জানানো হয়েছে। স্বজনরা মরদেহ না নিতে চাইলে শেষে বেওয়ারিশ হিসেবেই দাফন হবে। করোনায় মারা যাওয়ায় মরদেহ দাফন করবেন কোয়ান্টাম ফাউন্ডেশনের স্বেচ্ছাসেবকরা।


  •  

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

সর্বমোট পাঠক


বাংলাভাষায় পুর্নাঙ্গ ভ্রমণের ওয়েবসাইট