করোনা পজিটিভ নিয়ে ব্যক্তিগত চেম্বারে রোগী দেখছেন ডাক্তার !

প্রকাশিত: ২:২১ অপরাহ্ণ, জুলাই ১, ২০২০

করোনা পজিটিভ নিয়ে ব্যক্তিগত চেম্বারে রোগী দেখছেন ডাক্তার !

নমুনা পরীক্ষায় করোনা পজিটিভ হিসেবে শনাক্ত হয়েছেন শরীয়তপুর সিভিল সার্জন অফিসের দায়িত্বরত মেডিকেল অফিসার ডা. সৈয়দা শাহিনুর নাজিয়া। শরীরে কোনো উপসর্গ না থাকায় করোনা পজিটিভ নিয়েই তিনি সিভিল সার্জন অফিসে ও ব্যক্তিগত চেম্বারে রোগী দেখছেন।

শরীয়তপুর সিভিল সার্জন অফিস সূত্রে জানা যায়, নড়িয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিকেল অফিসার ডা. রাজিবের করোনা পজিটিভ রিপোর্ট আসে। তার সংস্পর্শে থাকায় ডা. নাজিয়ার নমুনা পরীক্ষা করে স্বাস্থ্য বিভাগ। গত ১০ জুন তার করোনা পজিটিভ রিপোর্ট আসে। এরপর তিনি হোম কোয়ারেন্টিনে ছিলেন। ১৮ জুন দ্বিতীয়বারও নমুনা পরীক্ষায় তার করোনা পজিটিভ রিপোর্ট আসে। তবে তার শরীরে করোনার কোনো উপসর্গ নেই। তিনি তাই কোয়ারেন্টিনে না থেকে সিভিল সার্জন অফিসে ও ব্যক্তিগত চেম্বারে রোগী দেখছেন।

এ বিষয়ে ডা. সৈয়দা শাহিনুর নাজিয়া বলেন, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও) থেকে বলা হয়েছে করোনা পজিটিভ হলে ১৪ দিন হোম কোয়ারেন্টিনে থাকলে আর নমুনা পরীক্ষার প্রয়োজন নেই। তাকে সুস্থ ঘোষণা করা যায়। ডব্লিউএইচওর গাইড লাইন আছে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চললেই হবে। তাই আমি ১৪ দিন হোম কোয়ারেন্টিনে থাকার পর গত রোববার (২৮ জুন) থেকে অফিস করছি ও ব্যক্তিগত চেম্বারে রোগী দেখছি।

মঙ্গলবার (৩০ জুন) সন্ধ্যায় ডা. নাজিয়ার ব্যক্তিগত চেম্বার শরীয়তপুর শহরের নূর জেনারেল হাসপাতালে সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, তিনি গর্ভবতী নারীদের আলট্রাসনোগ্রাম করছেন এবং তাদের চিকিৎসা দিচ্ছেন।

শরীয়তপুরের সিভিল সার্জন ডা. এসএম আব্দুল্লাহ্ আল মুরাদ জানান, নাজিয়ার দ্বিতীয়বার পরীক্ষায়ও করোনা পজিটিভ এসেছে। ১৪ দিন হোম কোয়ারেন্টিনে ছিলেন তিনি। তার শরীরে করোনার উপসর্গ নেই। তাই ১৮ দিন পর কর্মস্থলে যোগদান করেছেন। এখন রোগী দেখছেন। ডব্লিউএইচওর গাইড লাইন অনুযায়ী স্বাস্থ্যবিধি মেনে চললে সমস্যা নেই।


  •  

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

সর্বমোট পাঠক


বাংলাভাষায় পুর্নাঙ্গ ভ্রমণের ওয়েবসাইট