লোভ-লালসা দেখিয়ে বিদেশে নেওয়া বন্ধ হোক : প্রবাসী কল্যাণমন্ত্রী

প্রকাশিত: ১২:১৩ পূর্বাহ্ণ, জুন ২, ২০২০

লোভ-লালসা দেখিয়ে বিদেশে নেওয়া বন্ধ হোক : প্রবাসী কল্যাণমন্ত্রী

প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থানমন্ত্রী ইমরান আহমদ বলেছেন, আমি চাই লোভ-লালসা দেখিয়ে বাংলাদেশিদের বিদেশে নেওয়া বন্ধ হোক।

সোমবার (১ জুন) প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের নিজ দফতরে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে মন্ত্রী এসব কথা বলেন। এ সময় লিবিয়ায় মানবপাচারকারীদের অন্যতম হোতা হাজি কামালকে গ্রেপ্তারের জন্য র‍্যাবকে সাধুবাদ জানান তিনি।

ইমরান আহমদ বলেন, অবৈধভাবে বিদেশে গেলেও সেতো আমার দেশের নাগরিক, আমার ভাই। আমাদের কিন্তু ওই হিসেবে চিন্তা করতে হবে। কারা নিয়ে গেলো, কীভাবে নিয়ে গেল, কীভাবে বন্দি করল, কীভাবে মুক্তিপণ নিলো–এগুলো সব আমরা কিন্তু উদ্ঘাটন করছি। আমার কাছে যা তথ্য আছে আমি সঙ্গে সঙ্গে র‍্যাবকে দিয়ে দিচ্ছি। এরইমধ্যে র‍্যাব একজন হোতাকে গ্রেপ্তর করেছে। আমার বিশ্বাস এই যে পদক্ষেপগুলো র‍্যাব নিচ্ছে, এগুলো ইতিবাচক পদক্ষেপ। তথ্য কিন্তু খুব সীমিত, এরপরও তারা উদ্ঘাটন করে বের করে নিচ্ছে। আমি চাই র‍্যাব যেসব তথ্য উদঘাটন করে জানিয়েছে সেগুলো বেশি করে প্রচার হোক। আমাদের নিরীহ মানুষ যারা আছে, তাদেরকে যেভাবে লোভ লালসা দেখিয়ে বিদেশ নিয়ে যাওয়া হচ্ছে, এটা বন্ধ হোক।

তিনি আরও বলেন, লিবিয়া (লিবিয়াতে লোক নিয়োগ) ২০১৫ সাল থেকে বন্ধ। তাহলে তারা কিভাবে যাচ্ছে, নিশ্চয়ই কেউ না কেউ পাঠাচ্ছে। যারা লিবিয়া যাচ্ছে তাদের উদ্দেশ্য কিন্তু সাগর পাড়ি দিয়ে ইউরোপের দেশে যাওয়া। আমি জানি না মানুষ এতো ডেসপারেট কেন হয়ে যায়, ডেসপারেট হওয়ার সময় কিন্তু এখন না।

মন্ত্রী বলেন, দলীয় পরিচয় এবং ক্ষমতাবানদের পরিচয় আমি দেখি না। আমি অপরাধীকে অপরাধী হিসেবেই দেখি। আমি আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকে অনুরোধ করবো, অপরাধীকে তার ন্যায্য শাস্তি দেওয়ার ব্যবস্থা নিন। আমি কিন্তু কারও জন্য তদবির করতে যাবো না। আমার কাছে কেউ যদি তদবির করতে আসে, আমি সোজা মুখের ওপর ‘না’ করে দেবো। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর কাছে অনুরোধ, অন্যায়ভাবে কাউকে ছেড়ে দেবেন না।


  •