দীর্ঘ ৭৮৭ দিন পর বিএনপি কার্যালয় থেকে বাসায় ফিরলেন রিজভী

রাজনীতি

অবশেষে বাসায় ফিরলেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী। ২০১৮ সালের ৩০ জানুয়ারি বাসা ছাড়েন রিজভী। ওঠেন নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের তৃতীয় তলায়।

নিজের প্রতিজ্ঞামতো দীর্ঘ ৭৮৭ দিন পর  বিএনপি কার্যালয় থেকে বৃহস্পতিবার (২৬ মার্চ) নিজ বাসায় ফিরেছেন তিনি।

২০১৮ সালের ৮ ফেব্রুয়ারি দলের চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলায় সাজাপ্রাপ্ত হয়ে কারাগারে বন্দি হন। সে সময় রিজভী প্রতিজ্ঞা করেন খালেদা জিয়া ঘরে না ফেরা পর্যন্ত তিনিও ফিরবেন না ঘরে।

বাসায় ফেরার সময় রিজভী বলেন, দুই বছরেরও বেশি সময় পর আজ বাসায় ফিরছি। ম্যাডামকে (খালেদা জিয়া) কারাগারে নেওয়ার সময় প্রতিজ্ঞা করেছিলাম তিনি বাসায় না ফেরা পর্যন্ত আমিও বাসায় ফিরব না। গতকাল বুধবার তিনি বাসায় ফিরেছেন, তাই আজ আমি বাসায় ফিরছি।

তিনি বলেন, বাসায় যাচ্ছি তবে প্রতিদিনই অফিসে আসব। অফিসের কাজকর্ম করব। নেতাকর্মীদের আগামী কিছুদিন অফিসে আসতে নিষেধ করা হয়েছে। সাংবাদিকদেরও  ডাকছি না। ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে যতটুকু সম্ভব তথ্য দেওয়ার চেষ্টা করব।

বিএনপির এই নেতা বলেন, দেশবাসীর প্রতি আমার অনুরোধ, সবাই যেন সব নির্দেশ মেনে চলেন। বিশ্বব্যাপী মহামারি করোনা ভাইরাস থেকে মুক্তি পাওয়ার জন্য সবাইকে চিকিৎসকদের নির্দেশ মেনে ঘরে থাকতে হবে।

২০১৮ সালের ৮ ফেব্রুয়ারি ৭৯ নম্বর সড়কের ওই বাসা থেকে বকশিবাজারের বিশেষ আদালতে দুর্নীতি মামলায় হাজিরা দিয়েছিলেন বিএনপি চেয়ারপারসন। ওইদিনই সেই আদালত জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলায় দণ্ড দিয়ে তাকে কারাগারে পাঠান। দুর্নীতির দায়ে ২ বছর ১ মাস ১৭ দিন সাজা ভোগের পর ‘মানবিক বিবেচনায়’ সরকারের নির্বাহী আদেশে শর্তসাপেক্ষে ৬ মাসের জন্য মুক্তি পেলেন খালেদা জিয়া।

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট ও জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় ১৭ বছরের কারাদণ্ড নিয়ে কারাগারে বন্দি ছিলেন তিনি। প্রথমে পুরান ঢাকার পরিত্যক্ত কেন্দ্রীয় কারাগারে রাখা হলেও গত বছর ১ এপ্রিল থেকে তাকে বঙ্গবন্ধু মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালে রেখে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছিল।

Leave a Reply