সুনামগঞ্জে অস্ত্র’সহ নবম শ্রেণির ছাত্র আটক

প্রকাশিত: ১:০২ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ১৩, ২০২০

সুনামগঞ্জে অস্ত্র’সহ নবম শ্রেণির ছাত্র আটক

সুনামগঞ্জের তাহিরপুর উপজেলায় চাইনিজ কুড়াল ও অন্যান্য দেশীয় অস্ত্রসহ নবম শ্রেণির এক ছাত্রকে আটক করেছে পুলিশ। আটককৃত স্কুলছাত্রের নাম শিহাব সারোয়ার শিপু। সে টেকেরঘাট চুনাপাথর খনি প্রকল্প মাধ্যমিক স্কুল অ্যান্ড কলেজের নবম শ্রেণির ছাত্র। বুধবার বিকেল ৫টার দিকে পুলিশ তাকে আটক করে।

জানা গেছে, টেকেরঘাট চুনাপাথর খনি প্রকল্প মাধ্যমিক স্কুল অ্যান্ড কলেজের নবম শ্রেণির ছাত্র শিহাব সারোয়ার শিপু প্রায় ১ বছর পূর্বে সিলেটের একটি বিদ্যালয়ে পড়াশুনা করার সময় পিস্তল ও ইয়াবাসহ শিপুকে র‌্যাবের হাতে গ্রেফতার হয়। এ ঘটনায় শিপুকে সিলেটের ওই স্কুল থেকে তাকে বহিষ্কারও করা হয়েছিল। এরপর তার বাবা আজাদ মিয়া শিপুকে টেকেরঘাট চুনাপাথর খনি প্রকল্প মাধ্যমিক স্কুল অ্যান্ড কলেজে নবম শ্রেণিতে ভর্তি করে দেন। এখানে ভর্তি হওয়ার পরও শিহাব মদ, গাঁজা ও ইয়াবা সেবন করত। চাইনিজ কুড়াল নিয়ে রাস্তাঘাটে কলেজে ছাত্রীদের উত্যক্তও করত সে।

বুধবার দুপুর একটার দিকে একই কাজ আবারও করলে কলেজের দ্বাদশ শ্রেণির ছাত্র মিথুন প্রতিবাদ করেন। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে চাইনিজ কুড়াল ও দেশীয় অস্ত্র নিয়ে তার ওপর হামলা করে শিহাব। এ সময় শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা দ্রুত ছুটে গিয়ে মিথুনকে বাঁচান। এরপর সবাই মিলে শিপুকে অস্ত্র’সহ আটক করে বেঁধে রাখেন।

খবর পেয়ে পুলিশ ও স্থানীয় লোকজন ঘটনাস্থলে আসেন। কলেজ পরিচালনা কমিটির সদস্যদের নিয়ে বিকাল ৩টায় এ নিয়ে সালিশ হয়। তবে সালিশে সুষ্ঠু কোনো সমাধান না হওয়ায় কলেজ প্রাঙ্গণে বিক্ষোভ শুরু করেন শিক্ষার্থীরা। ফলে শিহাবকে পুলিশ হেফাজতে নেয়া হয়।

কলেজের সহকারী শিক্ষক আজিজুল হক বলেন, আমি ও অন্যান্য ছাত্ররা মিলে কলেজ ছাত্র মিথুনকে শিহাবের হাত থেকে বাঁচাই। শিপুকে অস্ত্রসহ আটক করে বেঁধে রাখি।

কলেজের অধ্যক্ষ খাইরুল আলম ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, বুধবার এ ঘটনা নিয়ে সালিশ হয়। তবে শেষ পর্যন্ত কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি। তাই বৃহস্পতিবার আবার সালিশের মাধ্যমে শিপুর বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

  •  

সর্বমোট পাঠক


বাংলাভাষায় পুর্নাঙ্গ ভ্রমণের ওয়েবসাইট