শহীদ আসাদ দিবস আজ

জাতীয়

৬৯’গণঅভ্যূত্থানের মহানায়ক আসাদুজ্জামান আসাদের ৫১তম মৃত্যুবার্ষিকী আজ।। ১৯৬৯ সালের ২০ জানুয়ারি স্বৈরাচার আইয়ুব সরকারের বিরুদ্ধে ঐতিহাসিক ১১ দফা আন্দোলনের হরতাল চলাকালে ঢাকা মেডিকেল কলেজের সামনে পুলিশের গুলিতে শহীদ হন ছাত্রনেতা মোহাম্মদ আসাদুজ্জামান। সেই থেকে দিনটি শহীদ আসাদ দিবস হিসেবে পালিত হয়ে আসছে।

শহীদ আসাদের পুরো নাম আমানুল্লাহ মোহাম্মদ আসাদুজ্জামান। তিনি ১৯৪২ সালের ১০ জুন নরসিংদী জেলার হাতিরদিয়ায় জন্মগ্রহণ করেন। তার পিতা আলহাজ্ব মওলানা মোহাম্মদ আবু তাহের বিএবিটি হাতিরদিয়া সাদত আলী হাই স্কুলের প্রতিষ্ঠাতা প্রধান শিক্ষক ছিলেন।

১৯৬৯ সালে ১৭ জানুয়ারি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বটতলা কেন্দ্রীয় ছাত্র সংগ্রাম কমিটির সমাবেশ থেকে ১১ দফা দাবিতে এবং পুলিশ-ইপিআর বাহিনীর ছাত্র-জনতা ওপর বর্বর নির্যাতনের প্রতিবাদে ২০ জানুয়ারি পূর্ণ দিবস হরতাল কর্মসূচী ঘোষণা করা হয়। ওই দিন ঢাকা শহরে ১৪৪ ধারা জারি করেন গর্ভনর মোনায়েম খাঁন।

১১ দফা দাবিতে ১৪৪ ধারা ভঙ্গ করলে পুলিশ বাধার মুখে পড়ে প্রায় ১০ হাজার ছাত্রের বিশাল মিছিল । আসাদসহ কিছু ছাত্র ছত্রভঙ্গ মিছিলটি আবার সংগঠিত করে ঢাকা হলের (বর্তমান শহীদুল্লাহ হল) পাশ দিয়ে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করেন। সে সময়ই পুলিশের গুলিতে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সামনের সড়কে শহীদ হন আসাদ।

আসাদ শহীদ হওয়ার পর ২৪ জানুয়ারি আওয়ামী লীগের ছয় দফা ও ছাত্রদের ১১ দফার ভিত্তিতে সর্বস্তরের মানুষের বাঁধভাঙা জোয়ার নামে ঢাকাসহ সারা বাংলার রাজপথে। উনসত্তরের গণ-অভ্যুত্থানে আইয়ুব খানের পতন ঘটে। এরপরই স্বৈরশাসক ইয়াহিয়া খান ক্ষমতায় বসে সাধারণ নির্বাচনের ঘোষণা দেন।

এদিকে, দিবসটি উপলক্ষে সোমবার (২০ জানুয়ারী) সকালে ঢাকা মেডিকেল কলেজের সামনে শহীদ আসাদ বেদিতে শ্রদ্ধা জানিয়েছে বাংলাদেশ ওয়ার্কার্স পার্টি, সাম্রাজ্যবাদ বিরোধী গণতান্ত্রিক ঐক্যসহ বিভিন্ন সংগঠন।এছাড়াও ব্যক্তিগতভাবেও অনেকেই শ্রদ্ধা জানান।

Leave a Reply