শিক্ষার আলো ছড়িয়ে দিচ্ছে বাঘার ‘লিপি একাডেমি’

সিলেট বিভাগ

এম এ মালেক :
মায়ের মমতা আর ভালোবাসার মতোই শিক্ষিকা আর শিক্ষকরা দিচ্ছেন ছোট্র শিশুদের পাঠদান।   শিশুদের পরম আদরে শিক্ষা প্রদানের পাশাপাশি মাতৃভাষা বাংলা, ইংরেজী আর ধর্মীয় শিক্ষা দানে আলো ছড়াচ্ছে গোলাপগঞ্জের বাঘা ইউনিয়নের তুরুকবাগ গ্রামে প্রতিষ্ঠিত ‘লিপি একাডেমি’।  ২০০৬ ইং সালে যাত্রা শুরু করা লিপি একাডেমিতে কর্মরত রয়েছেন ১৪ জন শিক্ষক ও শিক্ষিকা।

প্লে-গ্রুপ, নার্সারী, স্ট্যান্ডার্ড ওয়ান থেকে শুরু করে স্ট্যান্ডার্ড এইট পর্যন্ত শিক্ষার্থীরা পড়ালেখা করছেন।  নিরিবিলি পরিবেশে অভিজ্ঞ শিক্ষক শিক্ষিকা সকাল সাড়ে আটটা থেকে বিকেল পর্যন্ত বিভিন্ন ক্লাসে পাঠদান করছেন।  ২০১২ সালে প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষা থেকে অদ্যাবধি প্রত্যেক প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষায় ধারাবাহিকভাবে এ প্লাসসহ শতভাগ সাফল্য অর্জন করেছে লিপি একাডেমি।

এছাড়া ট্যালেন্টপুল ও সাধারণ বৃত্তি অর্জনসহ ২০১৬ ইং সাল থেকে জেএসসি পরীক্ষায় শতভাগ সাফল্য অর্জনকারী লিপি একাডেমি গোলাপগঞ্জ উপজেলার ১ নং বাঘা ইউনিয়নের শ্রেষ্ঠ বিদ্যালয়ের গৌরব অর্জন করেছে। সরকারী বৃত্তি এবং উপজেলা ,জেলা ও বিভাগীয় বেসরকারী বৃত্তিতে এ বিদ্যালয় সফলতার স্বাক্ষর ধরে রেখেছে।

প্রতি বছরের পহেলা জানুয়ারী থেকে ৩১ শে জানুয়ারী পর্যন্ত প্লে-গ্রুপে ৪ বছর বয়সী শিশুরা ভর্তি হয়ে থাকে। এখানে এনসিটিবি কর্তৃক প্রদত্ত বই বিনামূল্যে বিতরণ করা হয়। শিক্ষার্থীদের ভর্তি ফি, টিউশান ও অন্যান্য ফিও সীমিত। সাদা ফুল হাতা শার্ট গাঢ় নীল পোশাকে কোমলমতি শিশুদের আরো আকর্ষণীয় করে তুলেছে। লিপি একাডেমিতে ভর্তির ক্ষেত্রে জন্ম নিবন্ধন কার্ডের ফটোকপি ও পাসপোর্ট সাইজের ১ কপি ছবি প্রদান করা আবশ্যক।

লিপি একাডেমির প্রিন্সিপাল হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন হাবিবুর রহমান। বিদ্যালয়ের শিক্ষকরা বলেন, আমরা শিক্ষার্থীদের নৈতিক মানোন্নয়নসহ সীমিত সংখ্যক ছাত্র ছাত্রীদের ক্লাস পরিচালনা করে থাকি, ক্লাসের পড়া ক্লাসেই সম্পাদন, শিক্ষক-অভিভাবক সমন্নয়, মাসিক পরীক্ষার মাধ্যমে মেধা মূল্যায়ন, প্রত্যেক শিক্ষার্থীদের জন্য ডায়রির ব্যবস্থা, মেধা ভিক্তিক ফলাফল প্রগ্রেস রিপোর্ট এর মাধ্যমে অভিভাবকদের অবহিত করে থাকি।

শাস্তি নয়, শাসন নয়,প্রতিযোগিতামূলক মনোভাব তৈরি করার পাশাপাশি বিভিন্ন শিক্ষামূলক কর্মকান্ডে অংশ গ্রহনসহ শিক্ষকদের হোম ভিজিট করানো হয়। প্রতি বছর বার্ষিক ক্রিড়া ও সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতার আয়োজন ও হাতের লেখা সুন্দর করার বিশেষ ব্যবস্থা রয়েছে লিপি একাডেমিতে। বনভোজন ও পঞ্চম শ্রেণি থেকে অষ্টম শ্রেণির শিক্ষার্থীদের জন্য মডেল টেষ্টের ব্যবস্থা রয়েছে বলে জানান শিক্ষক শিক্ষিকারা।

লেখক : এম এ মালেক, সদস্য ও সাবেক তথ্য প্রযুক্তি সম্পাদক-সিলেট জেলা প্রেসক্লাব।

Leave a Reply