অপকর্ম নির্মূলে বিএনপিকে পাশে চান তথ্যমন্ত্রী

প্রকাশিত: ১:২৩ পূর্বাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ২৬, ২০১৯

অপকর্ম নির্মূলে বিএনপিকে পাশে চান তথ্যমন্ত্রী

তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ দেশে অনিয়ম ও অপকর্ম নির্মূলে সরকারের পাশে দাঁড়ানোর জন্য বিএনপিসহ সব রাজনৈতিক দলের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন।

তিনি বুধবার (২৫ সেপ্টেম্বর) দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবের আব্দুস সালাম হলে বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোটের ৪২তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী ও বিপ্লবী নারী প্রীতিলতা ওয়াদেদ্দারের আত্মহুতি দিবস উপলক্ষে আয়োজিত এক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন।

হাছান মাহমুদ বলেন, ‘আসুন আমরা সকলে মিলে সরকারের উদ্যোগের সমালোচনা না করে সকল অন্যায়-অনিয়ম থেকে মুক্ত করতে দুর্নীতি ও অনিয়ম নির্মূল করি।’

তিনি বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মদ ও জুয়ার ব্যবসা নিষিদ্ধ করেছিলেন। কিন্তু বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা ‘জিয়াউর রহমান সংবিধানে বিসমিল্লাহ রেখেছেন, আবার মদ-জুয়াও চালু করেছেন। মানুষ এখন অনেক সচেতন, এসব বোঝে। বিএনপিই দেশে মদ-জুয়া চালুর হোতা। জিয়াউর রহমান দেশে মৌলবাদ প্রতিষ্ঠিত করেছিলেন, আবার মদ ও জুয়ার অবৈধ ব্যবসা চালু করেছিলেন এবং নগ্ন নৃত্যের সঙ্গেও দেশের মানুষকে পরিচিত করেছিলেন।

ড. হাছান বলেন, বিএনপি নেত্রী বেগম খালেদা জিয়া যারা দেশের স্বাধীনতা চায়নি, তাদের মন্ত্রী বানিয়ে জিয়াউর রহমানের স্বপ্ন পূরণ করেছিলেন।

তিনি বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে চলমান অভিযান প্রশংসনীয়। কিন্তু, যারা এ অভিযানকে স্বাগত জানাচ্ছেন না, প্রশংসা করছেন না, এটি তাদের রাজনৈতিক হীনমন্যতা।

বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোট কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি সারাহ বেগম কবরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন আওয়ামী লীগের উপপ্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক আমিনুল ইসলাম আমিন, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহে আলম মুরাদ, প্রচার সম্পাদক আক্তার হোসেন, সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক অরুন সরকার রানা প্রমুখ।

হাছান মাহমুদ বলেন, বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর সাম্প্রতিক ক্যাসিনোর বিষয়ে কথা বলছেন এবং এ ব্যবসার সঙ্গে যারা দেশকে পরিচিত করেছিলেন সেই মির্জা আব্বাস ও মোসাদ্দেক হোসেন ফালুর পক্ষে সাফাই গাইছেন। বিএনপি তাদের সরকারের সময় সকল অনিয়ম, দুর্নীতি প্রাতিষ্ঠানিক রূপ দিয়েছেল। কিন্তু বর্তমানে যখন দেশ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার গতিশীল নেতৃত্বে দেশ উন্নয়নের মহাসড়কে রয়েছে তখন কতিপয় ষড়যন্ত্রকারী চক্রান্ত করছে। দলে অনেক অনুপ্রবেশকারী রয়েছে। ক্যাসিনো ব্যবসার সঙ্গে জড়িতরা সকলেই অনুপ্রবেশকারী।

তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সকল দুর্নীতিবাজ ও অনিয়মকারীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার জন্য নির্দেশ দিয়েছেন। অপকর্মের সঙ্গে জড়িতদের কেউই রেহাই পাবে না।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের কয়েকটি পোস্ট ও কয়েকটি অনলাইন ওয়েব পোর্টালের সংবাদের উল্লেখ করে তথ্যমন্ত্রী বলেন, তারেক রহমান লন্ডনে তার আয়কর বিবরণীতে ক্যাসিনো থেকে আয়ের কথা উল্লেখ করেছেন। কারো সমালোচনা করার আগে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের উচিত আয়নায় আগে নিজেদের মুখ দেখা।

তিনি বলেন, জাতীয় পার্টিসহ দেশের প্রায় সকল রাজনৈতিক দল প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার মহৎ উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়ে সন্তোষ প্রকাশ করেছে। কিন্তু বিএনপি সরকারের এই অভিযানকে স্বাগত না জানিয়ে সমালোচনা করছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার এই মহৎ উদ্যোগকে স্বাগত না জানানোর মধ্য দিয়েই বিএনপি দেউলিয়াত্ব ফুটে উঠেছে।

প্রীতিলতার প্রতি গভীর শ্রদ্ধা জানিয়ে তিনি বলেন, প্রীতিলতা ভারতীয় উপমহাদেশের এক বাঙালি বিপ্লবী জাতীয়তাবাদী ছিলেন। ভারতের স্বাধীনতা আন্দোলনে তার নাম সোনালী হরফে লেখা থাকবে।

তথ্যমন্ত্রী নতুন প্রজন্ম যাতে প্রীতিলতার জীবন থেকে অনুপ্রেরণা লাভ করতে পারে সেজন্য তার জীবন ও কর্মের গুরুত্ব দেয়ার জন্য সবার প্রতি আহ্বান জানান। বাসস।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

সর্বমোট পাঠক


বাংলাভাষায় পুর্নাঙ্গ ভ্রমণের ওয়েবসাইট