পার্লামেন্টে যারা বসে আছে তাদের কত টাকা, প্রশ্ন গয়েশ্বরের

প্রকাশিত: ১২:৩৫ পূর্বাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ২৫, ২০১৯

পার্লামেন্টে যারা বসে আছে তাদের কত টাকা, প্রশ্ন গয়েশ্বরের

বিএনপির জাতীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেছেন, লুটপাট করে বাংলাদেশের অর্থনীতি ধব্বংসের শেষ সীমানায় নিয়ে গেছে সরকার। মদের আসর, জুয়ার আসর, ক্যাসিনো মাত্র তিন আইটেম। এই তিন আইটেমে থেকে যদি হাজার হাজার কোটি টাকার মালিক হয়ে থাকে তাহলে পার্লামেন্টে যারা বসে আছে তাদের কাছে কত টাকা আছে?

মঙ্গলবার (২৪ সেপ্টেম্বর) সিলেট নগরীর রেজিস্টারি মাঠে বিভাগীয় সমাবেশে তিনি এসব কথা বলেন।

গয়েশ্বর বলেন, যে সব কারণে সরকারের পতন দরকার তা গত সাতদিনে প্রকাশ পেয়েছে। তিনি বলেন, আপনারা যদি দেশ প্রেমের তাগিদে শুদ্ধি অভিযানে নেমে থাকেন, আপনারা যদি দেশকে ধব্বংসের স্তুপ থেকে বাঁচানোর তাগিদে নামেন, আপনাদের পাশে জনগণ আছে, আমরাও আছি।

সিলেট জেলা বিএনপির সভাপতি আবুল কাহের চৌধুরী শামীমের সভাপতিত্বে সমাবেশে আরও বক্তব্য দেন, বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, বিএনপির জাতীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, ব্যারিষ্টার মওদুদ আহমেদ, ভাইস চেয়ারম্যান মো. শাহজাহান, ডা. এজেড এম জাহিদ হোসেন, বিএনপি চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা এম এ হক, তাহসীনা রুশদীর লুনা, খন্দকার আব্দুল মুক্তাদির, সাংগঠনিক সম্পাদ,ক ফজলুল হক মিলন, ডা. সাখাওয়াত হোসেন জীবন, প্রচার সম্পাদক শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানি, সমাজ কল্যাণ সম্পাদক কামরুজ্জামান রতন, যুবদলের সাধারণ সম্পাদক সুলতান সালাউদ্দীন টুকু, বিএনপির সহ শ্রমবিষয়ক সম্পাদক হুমায়ুন কবির খান, বিএনপি নেতা দিলদার হোসেন সেলিম, কলিম উদ্দিন মিলন, জিকে গউছ, আব্দুর রাজ্জাক, নাসিম হোসাইন, ডা. শাহরিয়ার হোসেন চৌধুরী, নাসির উদ্দিন আহমেদ, মিজানুর রহমান চৌধুরী, হুমায়ুন কবীর, মোরতাজুল করিম বাদরু, হাসান জাফির তুহিন, মামুন হাসান, আবুল কালাম আজাদ, মীর হেলাল উদ্দিন প্রমুখ।

সমাবেশে পরিচালনা করেন, মহানগর বিএনপির সভাপতি নাসিম হোসাইন, জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আলী আহমদ, মহানগর সাংগঠনিক সম্পাদক মিফতা সিদ্দিকী।

নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্য করে গয়েশ্বর বলেন, শেখ হাসিনাকে ক্ষমতায় রেখে খালেদা জিয়ার মুক্তি কি ভাবে কামনা করেন। খালেদা জিয়ার মুক্তি জন্য শেখ হাসিনার পতনের আন্দোলন রাজপথে সূচনা করেন।

  •  

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

সর্বমোট পাঠক


বাংলাভাষায় পুর্নাঙ্গ ভ্রমণের ওয়েবসাইট