বিয়ানীবাজারে যাবজ্জীবন দণ্ডপ্রাপ্ত আসামি গ্রেপ্তার

প্রকাশিত: ১:০৪ পূর্বাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ৫, ২০১৯

বিয়ানীবাজারে যাবজ্জীবন দণ্ডপ্রাপ্ত আসামি গ্রেপ্তার

সিলেটের বিয়ানীবাজারে বোরকা পরিধান করে নারীবেশে মাদক মামলার যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত এক আসামীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

ধৃত আব্দুস সত্তার উরফে কটাই মিয়া বিয়ানীবাজার উপজেলার দত্তপাড়া গ্রামের সাজ্জাদ আলীর ছেলে।

জানা যায়, আব্দুস সত্তার ওরফে কটাই মিয়ার বয়স এখন ৪৫। তার বয়স যখন ২১ ছিল, তখন একটি হত্যা মামলায় আদালত তাকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছিলেন। কিন্তু দীর্ঘ ২৪ বছর ধরে পালিয়ে বেড়াচ্ছিলেন তিনি। গোপনে চালিয়ে যাচ্ছিলেন মাদক ব্যবসা। অবশেষে এই দণ্ডপ্রাপ্ত আসামিকে বোরকা পড়ে ছদ্মবেশ ধরে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। মঙ্গলবার রাতে তাকে ২০ বোতল মদসহ নিজ বাড়ি থেকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

বুধবার বিকেলে বিষয়টি নিশ্চিত করে সিলেট জেলা পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (মিডিয়া) মো. আমিনুল ইসলাম জানান, ১৯৯৫ সালের একটি হত্যা মামলায় আব্দুস সত্তার আদালত কর্তৃক যাবজ্জীবন দন্ডপ্রাপ্ত আসামি। তিনি পরিচয় গোপন করে ছদ্মবেশে মাদক ব্যবসা চালিয়ে আসছিলেন। গত ২৫ আগস্ট তার বাড়ি থেকে ৫০ বোতল মদ জব্দ করে বিয়ানীবাজার থানায় মামলা করা হয়।

তিনি জানান, পলাতক আব্দুস সত্তারকে ধরতে কৌশলের আশ্রয় নেয় পুলিশ। তার অবস্থান সনাক্ত করে সিলেট জেলার মাদকবিরোধী সেলের অফিসার ইনচার্জ সজল কুমার কানুর নেতৃত্বে অভিযান চালানো হয়। অভিযানের শুরুতে দুজন পুলিশ সদস্য বোরকা পড়ে তার বাড়িতে যান। তাকে ঘর থেকে কৌশলে বের করে এনে গ্রেফতার করা হয়। এসময় বাড়ি থেকে ২০ বোতল মদ জব্দ করা হয়।

আমিনুল ইসলাম জানান, সাজাপ্রাপ্ত আসামি হিসেবে আব্দুস সত্তারকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে প্রেরণ করা হয়েছে। এছাড়া মদ জব্দের ঘটনায় আরো একটি মামলা হয়েছে তার বিরুদ্ধে।

  •  

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

সর্বমোট পাঠক


বাংলাভাষায় পুর্নাঙ্গ ভ্রমণের ওয়েবসাইট