নতুন প্রজন্মকে বঙ্গবন্ধু ও মুক্তিযুদ্ধের সঠিক ইতিহাস জানাতে হবে : কামরান

প্রকাশিত: ১২:১৬ পূর্বাহ্ণ, আগস্ট ২, ২০১৯

নতুন প্রজন্মকে বঙ্গবন্ধু ও মুক্তিযুদ্ধের সঠিক ইতিহাস জানাতে হবে : কামরান

আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের সদস্য, সিলেট মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাবেক মেয়র বদর উদ্দিন আহমদ কামরান বলেছেন, আগস্ট বাঙ্গালি জাতির জন্য শোকের ও কষ্টের। ১৯৭৫ সালের এ মাসে পাকিস্তানি পেতাত্মারা জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবকে স্বপরিবারে নির্মমভাবে শহীদ করে মুক্তিকযুদ্ধের চেতনাকে নস্যাৎ করতে চেয়েছিল। এদের উত্তরসূরীরাই ২০০৪ সালের ২১শে আগস্ট বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনাকে হত্যা করতে গ্রেনেড হামলা চালিয়েছিল। তাদের উদ্দেশ্য ছিল এদেশ থেকে আওয়ামী লীগ ও মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের শক্তিকে চিরতরে বিলীন করে দেয়া। কিন্তু আল্লাহর রহমতে শেখ হাসিনা দেশের মানুষের সমর্থন নিয়ে দেশকে উন্নত রাষ্ট্রের দিকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন। বাংলাদেশকে আত্মমর্যাদাশীল জাতি ও উন্নয়নের রোল মডেল হিসেবে বিশে^র কাছে তুলে ধরেছেন। উন্নয়নের এ ধারা অব্যাহাত রাখতে ও স্বাধীনতাবিরোধীদের সম্পর্কে সজাগ থাকতে তরুণ প্রজন্মকে বঙ্গবন্ধু ও মুক্তিযুদ্ধের সঠিক ইতিহাস জানাতে হবে। এজন্য প্রতিটি স্কুল-কলেজে বঙ্গবন্ধু ও মুক্তিযোদ্ধা কর্ণার স্থাপন করতে হবে। এখানে মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতি সম্বলিত ছবি ও বই স্থান পাবে। এতে শিক্ষার্থীরা সহজেই সঠিক ইতিহাস জানতে পারবে।

বৃহস্পতিবার (০১ আগস্ট) সকাল ১১টায় সিলেট মহানগর ২৫নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের উদ্দ্যোগে আয়োজিত ১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবসের আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল এবং নগরীর কায়েস্থরাইল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে মুক্তিযুদ্ধ ও জাতির জনকের নানা ছবি সম্বলিত মুক্তিযোদ্ধা কর্ণা উদ্ধোধনকালে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

এর আগে শোকাবহ আগস্টের গুরুত্ব তুলে ধরে কায়েস্থরাইল সারকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে মুক্তিযুদ্ধ ও জাতির জনকের নানা ছবি সম্বলিত মুক্তিযোদ্ধা কর্ণার উদ্ধোধন করেন অতিথিবৃন্দ।

আলোচনা সভায় প্রধান বক্তার বক্তব্য রাখেন সিলেট চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রিজের প্রশাসক ও মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আসাদ উদ্দিন আহমদ। এসময় তিনি বলেন, ১৯৭৫ সালে বঙ্গবন্ধুকে হত্যা ও ২০০৪ সালে শেখ হাসিনাকে হত্যার চেষ্ঠা করা হয়েছিল। বিভিন্ন সময় বঙ্গবন্ধুর পরিবার, আওয়ামী লীগ ও মুুক্তিযুদ্ধের পক্ষের শক্তিকে থামিয়ে দেয়ার অপচেষ্ঠা চালানো হলেও তারা সফল হয়নি। মুক্তিযুদ্ধের পরাজিত শক্তি দেশকে পিছিয়ে দিতে এখনো চেষ্ঠা চালিয়ে যাচ্ছে। কিন্তু শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশের মানুষ এখন ঐক্যবদ্ধ।

মহানগর আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা মন্ডলির সদস্য ও ২৫নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি আমির উদ্দিনের সভাপতিত্বে এবং ছাত্রলীগ নেতা আব্দুস সামাদের পরিচালনায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, মহানগর আওয়ামী লীগের স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক ডা. মিফতাহুল হোসেন সুইট, বীর মুক্তিযোদ্ধা অ্যাডভোকেট রফিকুল ইসলাম, বীর মুক্তিযোদ্ধা সিরাজুল ইসলাম, কায়েস্থরাইল বিদ্যালয়ে ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি মো. নিজাম উদ্দিন, ২৫নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি সমসের আলম খালিক, সাধারণ সম্পাদক সেলিম আহমদ শামীম, সাবেক সাধারণ সম্পাদক জাকির হোসেন, মহানগর যুবলীগ নেতা সামাদ আহমদ, সুমন আহমদ। আরো উপস্থিত ছিলেন, কায়েস্থরাইল উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. মোয়াজ্জেম হোসেন, সহকারী প্রধান শিক্ষক ফারুক আহমদ, সহকারী শিক্ষক আব্দুল হাফিজ, মহিউদ্দিন, কায়েস্থরাইল সারকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা মোছা. হুরোল জান্নাত রীপা, সহকারী শিক্ষক কল্যাণ গত বিশ্বাস, মনজুর কাদের দিপু, এম এ নছির, ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ নেতা জুনেদ আহমদ, ছাত্রলীগ নেতা এজাজ আহমদ সানী, আনসার উদ্দিন, নাহিদ আহমদ, রাহাত আহমদ, হেলাল আহমদ, আনহার আহমদ রুসন, লিলু মিয়া, সাজেল আহমদ ও সাকিল আহমদ প্রমুখ।
আলোচনা সভা শেষে কায়েস্থরাইল উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক মাওলানা আব্দুল আজিজ মিলাদ ও দোয়া পরিচালনা করেন। পরে এলাকাবাসী ও ছাত্রছাত্রীদের মধ্যে শিরনী বিতরণ করা হয়।

  •  

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

সর্বমোট পাঠক


বাংলাভাষায় পুর্নাঙ্গ ভ্রমণের ওয়েবসাইট