জকিগঞ্জে ধর্ষনের ঘটনায় সাবেক ইমাম কারাগারে

সিলেট বিভাগ

২৯ জুন ২০১৯, শনিবার : সিলেটের জকিগঞ্জ উপজেলায় নবম শ্রেণীর এক স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে শনিবার মসজিদের ইমামকে কারাগারে পাঠিয়েছে আদালত। এ ঘটনায় পুরো উপজেলা জুড়ে তোলপাড় সৃষ্টি হয়েছে। জানা যায়, অভিযুক্ত কাজী জাহিদ হাসান জকিগঞ্জ উপজেলার হাজারীচক জামে মসজিদের সাবেক ইমাম ও একই উপজেলার উত্তরকুল গ্রামের মৃত ইছহাক আলীর ছেলে। গত রমজান মাসে নির্যাতিত কিশোরীটি দারুল ক্বেরাত’র অর্ন্তগত হাজারীচক জামে মসজিদ শাখায় কাজী জাহিদের কাছে পড়াশুনা করে। এ সুবাদে মেয়েটিকে সে প্রেমের ফাঁদে ফেলে নিয়মিত মোবাইল ফোনে কথা-বার্তা বলতে শুরু করে। গত ২৫ জুন মেয়েটিকে সিলেটের একটি আবাসিক হোটেলে নিয়ে ধর্ষণ করে এক সন্তানের জনক এই ইমাম।

পরদিন অপ্রাপ্ত বয়স্ক মেয়েটি গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়লে জকিগঞ্জগামী একটি বাসে তুলে দেয়। এ ঘটনায় মেয়ের বাবা বাদী হয়ে গত ২৬ জুন জকিগঞ্জ থানায় মামলা দায়ের করেন। শুক্রবার ইমামের শশুড়বাড়ী থেকে তাকে পুলিশ আটক করে। শনিবার তাকে জকিগঞ্জ সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে হাজির করা হলে আদালত তাকে কারাগারে পাঠায়।

জকিগঞ্জ থানার ওসি হাবিবুর রহমান হাওলাদার জানান, অভিযুক্ত ইমাম কাজী জাহিদ হাসান পুলিশের নিকট ধর্ষণের বিষয়টি স্বীকার করেছে। সে মেয়েটিকে নিয়ে সিলেট নগরীর আম্বরখানা এলাকার একটি হোটেলে রাত্রিযাপন করে। এছাড়া এই ইমামের বিরুদ্ধে মোবাইল চুরি’সহ একাধিক নারী নির্যাতনের অভিযোগ রয়েছে। সে হাফেজ বা আলেম বলে কোন ডকুমেন্ট দেখাতে পারেনি।

Leave a Reply