ঢালাই কাজে বাঁশ ব্যবহার করা যাবে না : মাহুমুদস সামাদ চৌধুরী

প্রকাশিত: ১:২৩ পূর্বাহ্ণ, জুন ২৬, ২০১৯

ঢালাই কাজে বাঁশ ব্যবহার করা যাবে না : মাহুমুদস সামাদ চৌধুরী

দক্ষিণ সুরমা থেকে আশরাফুল ইসলাম ইমরান : আমার এলাকায় ঢালাই কাজে কোন বাঁশ ব্যবহার করা যাবেনা বলে হুংকার দিলেন দক্ষিণ সুরমা-ফেঞ্চুগঞ্জ আসনের এমপি মাহুমুদস সামাদ চৌধুরী।

সোমবার (২৪ জুন) দক্ষিন সুরমা উপজেলা পরিষদে জরুরী এক সভায় এমন হুংকার দেন তিনি।

জানাযায়, দক্ষিণ সুরমা উপজেলার মোগলাবাজার ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ডের বৈরাগীবাজার থেকে বারইগ্রাম মসজিদ রোডের সোয়া ২ কিলোমিটার পাকা রাস্তা (পিচ) মেরামতের কাজ গত ১৯ মে শুরু হয়েছে। ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান সিলেট নগরীর সোবহানীঘাটের ২৩ মৌবনস্থ মেসার্স অনুপমা এন্টারপ্রাইজ সড়কটি সংস্কার কাজ করছে। প্রায় ৬৪ লক্ষ টাকা ব্যায়ে ঠিকাদার বিধান রঞ্জনের তত্ত্বাবধানে সড়কের উন্নয়নের কাজ হচ্ছে।

সড়ক সংস্কার কাজে ব্যবহৃত ইট-পাথর খুবই নিম্নমানের ব্যবহার করায় এলাকার মানুষ ক্ষুব্ধ হয়ে ওঠেন। ৩নং ওয়ার্ডের মেম্বার আইয়ুব হোসেন বিষয়টি উপজেলা প্রকৌশলী আফছর আহমদকে অবহিত করেন। উপজেলা প্রকৌশলী এ ব্যাপারে ঠিকাদার বিধান রঞ্জন বরাবর পর পর ৩টি নোটিশ প্রদান করেন। কিন্তু নোটিশের কোন জবাব দেননি বিধান রঞ্জন।

বিশেষ জরুরী সভা শেষে এমপি মাহমুদ উস সামাদ চৌধুরীকে বিষয়টি জানান উপজেলা প্রকৌশলী আফছর আহমদ। বিস্তারিত জানার পর এমপি সামাদ চৌধুরী ক্ষুব্ধ হয়ে ওঠেন। তিনি সাথে সাথে প্রকৌশলী আফছর আহমদকে ঠিকাদার বিধান রঞ্জনকে ফোন দিতে বলেন। ফোন রিসিভের পর এমপি সামাদ চৌধুরী ঠিকাদার বিধান রঞ্জনকে বলেন, সিলেট-৩ নির্বাচনী এলাকায় কোন দু’নম্বরী কাজ চলবে না। এখানে ঢালাই কাজে কোন বাঁশ ব্যবহার করা যাবে না। এ সময় তিনি আগামী ২৯ জুন শনিবার ঠিকাদারকে সাথে নিয়ে রাস্তার কাজ পরিদর্শনের কথা জানান।

মাহুমুদস সামাদ চৌধুরী এমপি বলেন, দেশের সকল জনপ্রতিনিধিগণ যদি সচেতন হন, তবে সরকারের উন্নয়ন কাজগুলোর গুণগতমান ঠিক থাকবে।

  •  

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

সর্বমোট পাঠক


বাংলাভাষায় পুর্নাঙ্গ ভ্রমণের ওয়েবসাইট