ভারতের বিরুদ্ধে রূপকথা লেখা হলো না আফগানিস্তানের

খেলার খবর

মাত্র ২২৪ রান তুলে বেশ টেনশনেই পড়ে গেছে ভারতীয় ক্রিকেট দল। বল হাতে ভারতকে ভোগানোর পর ব্যাট হাতেও তাদের ভোগাচ্ছিল আফগানিস্তান। কিন্তু চোখে চোখ রেখে লড়াই করার পরও শেষ বলের আগের বলে হার মানতে হয়েছে আফগান সেনাদের। যে হারে থমকে গেছে তাদের রূপকথা লেখার সুযোগ। ভারতের ২২৪ রানের জবাবে ২১৩ রানেই থেমে যায় আফগানদের ইনিংস। ফলে ১১ রানে হেরে মাঠ ছেড়েছে মোহাম্মদ নবীরা।

ভুবনেশ্বর কুমার না থাকায় একাদশে এসেছিলেন মোহাম্মদ শামি। এসেই তিনি দেখিয়েছেন নিজের খেল। এবারের বিশ্বকাপে প্রথম হ্যাটট্রিক করেই ভারতকে জেতান তিনি। শেষ ওভারে যখন দরকার ছিলো ১২ রান। সেখানে কোনো রান না দিয়ে বাকি ৩টি উইকেটের প্রতিটা শিকার করেই ভারতকে এখন পর্যন্ত অপরাজিত রেখেছেন শামি।

যদিও মোহাম্মদ নবী আর রশিদ খান আফগানিস্তানকে জয়ের দিকে নিয়ে যাচ্ছিলেন কিন্তু শেষ রক্ষা হলো না। দারুণ লড়াই করেও হার মানতে হয়েছে ফিল সিমন্সের শিষ্যদের।
বিশ্বসেরা ব্যাটিং লাইন নিয়ে মাঠে নেমে পুরো ৫০ ওভার খেলে মাত্র ২২৪ রান তুলেছে ভারত। তাও আবার পয়েন্ট টেবিলের তলানীতে থাকা দল আফগানিস্তানের বিরুদ্ধে! বিরাট কোহলি, মহেন্দ্র সিং ধোনি, রোহিত শর্মা, লোকেশ রাহুল ও হার্দিক পান্ডিয়ার মতো ব্যাটিং লাইন থাকলেও আফগান বোলারদের মোকাবেলা করতে গিয়ে হিমশিম খেয়েছে ভারত।

হ্যাম্পশায়ারে প্রথম ৫ ওভারে ১০ রান তোলার আগেই রোহিত শর্মার উইকেট হারিয়ে বিপদে পড়েছিলো ভারত। টস জিতে ব্যাটিং নিয়ে বড় লক্ষ্য দাঁড় করাতে চেয়েছিলো বিরাট কোহলিরা। কিন্তু সেটার পথে বাঁধা হয়ে দাঁড়িয়েছে আফগান স্পিন মন্ত্র। লোকেশ রাহুলকে নিয়ে দারুণ জুটি গড়ে প্রতিরোধের চেষ্টা করেছিলেন কোহলি। কিন্তু নবীর বোলিংয়ে রাহুল ফিরলে (৩০) ছন্দ পতন ঘটে।
পরে বিজয়কে সঙ্গে নিয়ে লড়েন কোহলি। বিজয়কে (২৯) ফিরিয়ে আফগানদের ম্যাচে আনেন রহমত শাহ। বিজয় ফেরার পর ধোনিকে নিয়ে এগিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করার আগেই ফেরানোর পরে কোহলিকেও (৬৭) সাজঘরে ফিরিয়েছেন আফগান অলরাউন্ডার মোহাম্মদ নবী।

কেদার যাদবকে নিয়ে মহেন্দ্র সিং ধোনি ৫৭ রানের জুটি গড়েন। কিন্তু নিজে ধীর গতিতে খেলে ৫২ বলে ২৮ রান করে ফেরেন তিনি। মিডল অর্ডাররা হাল ধরলেও শেষদিকে লোয়ার অর্ডারের ব্যর্থতায় বেশি দূর এগোতে পারেনি অল বøুজরা।
বল হাতে এদিন মরণ কামড় দিয়ে লেগেছিলো আফগান সেনারা। মুজিবুর রহমান ১০ ওভার বোলিং করে মাত্র ২৬ রান দিয়ে ১টি উইকেট নেন। রশিদ খানও আজ কম খরুচে বোলিং করে ৩৮ রানে ১টি উইকেট নেন। গুলবেদিন নাঈব ও মোহাম্মদ নবী ২টি করে উইকেট নেন।

Leave a Reply