সুনামগঞ্জ সীমান্তে ২৪ জন অপরাধীকে আলোর পথে আনলো বিজিবি

প্রকাশিত: ১২:৪০ পূর্বাহ্ণ, মার্চ ১২, ২০১৯

সুনামগঞ্জ সীমান্তে ২৪ জন অপরাধীকে আলোর পথে আনলো বিজিবি

সুনামগঞ্জ-২৮ বর্ডারগার্ড বিজিবি উদ্যোগে ‘আলোকিত সীমান্ত’ কর্মসূচির আওতায় সীমান্ত এলাকায় বিভিন্ন অপরাধে জড়িত ২৪ জনকে স্বাভাবিক জীবনে ফিরিয়ে আনা হয়েছে।
বিজিবি সূত্রে জানা যায়, গেল ২৬ ফেব্রুয়ারি বাশঁতলা বিওপি ক্যাম্পের অধীনে আলোকিত সীমান্ত নামে ব্যাতিক্রম অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। এসময় বিভিন্ন সময় সীমান্তের ওপারে চুরি, মাদকপাচার ও অবৈধভাবে সীমান্ত পার করাসহ জড়িত ২৪ জনের স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসার ইচ্ছার কথা জানায় ওই এলাকার স্থানীয়রা। এক পর্যায়ে বিজিবির কাছে ওই ২৪ জন আত্মসমর্থন করে ।

পরে ২৮ বিজিবি ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লে.কর্ণেল মো. মাকুসুদুল আলম তাদেরকে স্বাভাবিক জীবনে ফিরিয়ে নিয়ে আসার সুযোগ এবং তাদের পূনর্বাসন করার আশ্বাস প্রদান করেন। গেল ৪ মার্চ থেকে ১০ মার্চ পর্যন্ত ২৪ জনের মধ্যে ১৯ জনকে স্বাভাবিক জীবনে ফিরিয়ে আনতে ইলেকট্রিক কাজের উপর প্রশিক্ষণ প্রদান করে সুনামগঞ্জ-২৮ বিজিবি।

এরই ধারাবাহিকতায় সোমবার দুপুরে বাঁশতলা বিওপিতে সুনামগঞ্জ ২৮ বিজিবি ব্যাটালিয়নের ব্যবস্থপনায় এবং সিলেট সেক্টর কামান্ডার উপ-মহাপরিচালক লে. কর্ণেল মো. শহিদুল ইসলাম পিএসসি ও ২৮ বিজিবি ব্যাটেলিয়নের অধিনায়ক মাকসুদুল আলমের নেতৃত্বে আলোর পথে ফিরে আসা ২৪ জনকে ট্রাস্ট ব্যাংকে ঋণের ব্যবস্থা করে দেওয়া হয়।

এছাড়া ২৪ জনের মধ্যে ৩ জনকে অস্থায়ী ভিত্তিতে বিজিবিতে নিয়োগের ব্যবস্থা গ্রহণ, প্রতিষ্ঠিত হওয়ার লক্ষ্যে ৩ জনকে নগদ অর্থ প্রদান, ১ জনকে বর্ডার গার্ড বিদ্যালয়ে ১টি পোস্টে স্থায়ী চাকরির ব্যবস্থা করা হয়। এই কর্মসূচির আওতায় ১৯ জনকে রেশন সামগ্রী প্রদান করা হয়।

এছাড়াও কিছুদিন আগে সীমান্ত অতিক্রম করে ভারতীয় খাসিয়াদের গুলিতে নিহত নুরু মিয়ার স্ত্রীকে নগদ অর্থ প্রদান করা হয় বিজিবির পক্ষ্য থেকে ।

স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসা আলাল উদ্দিন বলেন, আমরা অবৈধভাবে সীমান্ত পার করবো না, আর অবৈধ পথে যাবো না। বিজিবি আমাদের নতুন জীবনে ফিরিয়ে নিয়ে এসেছে আমরা তাদের প্রতি সম্মান রাখবো।

উপ-মহাপরিচালক লে. কর্ণেল মো. শহিদুল ইসলাম পিএসসি বলেন, যারা অপরাধ জগৎ থেকে বেরিয়ে এসেছে আমরা তাদের স্বাগত জানাই, কিন্তু এখনো যারা অপরাধ কার্যক্রমের সাথে জড়িত রয়েছেন তাদেরকে আমরা চিহ্নিত করে আইনের আওতায় নিয়ে আসবো।

সর্বমোট পাঠক


বাংলাভাষায় পুর্নাঙ্গ ভ্রমণের ওয়েবসাইট