আলী আহমদের মুক্তির দাবি বিএনপি মহাসচিবের

প্রকাশিত: ১:২৩ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ২৬, ২০১৮

আলী আহমদের মুক্তির দাবি বিএনপি মহাসচিবের

২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮, বুধবার : পুলিশের কাজে বাধা’ দানের অভিযোগে দায়েরকৃত মামলায় সিলেট জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আলী আহমদকে কারাগারে পাঠিয়েছেন আদালত।

মঙ্গলবার সকালে সিলেট মহানগর দায়রা জজ আদালতে হাজির হয়ে জামিন আবেদন করলে আদালত শুনানি শেষে আবেদন নামঞ্জুর করে তাকে কারাগারে পাঠান।

জেলা বিএনপির এই নেতাকে কারাগারে পাঠানোর তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

এক বিবৃতিতে বিএনপি মহাসচিব বলেন, ‘দেশ পরিচালনায় সকল ক্ষেত্রে ব্যর্থ হয়ে আওয়ামী সরকার ফ্যাসিবাদী আচরণে আশ্রয় নিয়ে দেশকে এক ভয়াবহ অরাজকতার দিকে ঠেলে দিচ্ছে।’

তিনি বলেন, ‘মানুষের ভোটের অধিকারকে তুচ্ছ জ্ঞান এবং গণতান্ত্রিক অধিকারের প্রতি তাদের অগ্রাহ্যের কারনে সমগ্র দেশটাই এখন বন্দীশালায় পরিণত হয়েছে। পাইকারিভাবে বিএনপিসহ বিরোধী দলগুলোর নেতা-কর্মীদেরকে গ্রেফতার এবং তাদের বিরুদ্ধে মিথ্যা ও কাল্পনিক কাহিনী তৈরি করে মামলা দায়ের করা হচ্ছে, কারান্তরীণ করা হচ্ছে। ভূয়া, বানোয়াট ও সাজানো মামলায় সিলেট জেলা বিএনপির সাধারন সম্পাদক আলী আহমেদ এর জামিন বাতিল করে কারাগারে প্রেরণ বর্তমান জনবিচ্ছিন্ন সরকারের ধারাবাহিক অপকর্ম থেকে কোনো বিচ্ছিন্ন ঘটনা নয়। এটি গণবিরোধী সরকারের চলমান দমন নীতিরই ধারাবাহিকতা।’

তিনি বলেন, বর্তমান সরকারকে তাদের সকল অপকর্ম ও দুঃশাসনের জন্য জনগণের নিকট জবাবদিহি করার সময় অত্যাসন্ন। বিএনপি মহাসচিব অবিলম্বে সিলেট জেলা বিএনপির সাধারন সম্পাদক আলী আহমদ এর বিরুদ্ধে দায়েরকৃত গায়েবী মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার করে তার ‘নিঃশর্ত’ মুক্তির দাবি জানান।

  •  

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

সর্বমোট পাঠক


বাংলাভাষায় পুর্নাঙ্গ ভ্রমণের ওয়েবসাইট