বিয়ানীবাজারে স্কুল ম্যানেজিং কমিটির নির্বাচন নিয়ে সংঘর্ষ

প্রকাশিত: ১০:৫৪ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ২৩, ২০১৮

বিয়ানীবাজারে স্কুল ম্যানেজিং কমিটির নির্বাচন নিয়ে সংঘর্ষ

বিয়ানীবাজারের সীমান্তবর্তী দুবাগ স্কুল অ্যান্ড কলেজের ম্যানেজিং কমিটির নির্বাচনকে কেন্দ্র করে দুই প্রতিদ্বন্ধী প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে।

সংঘর্ষের সময় একপক্ষ আরেকক্ষকে লক্ষ্য করে ব্যাপক ইটপাটকেল নিক্ষেপ করে। এসময় স্কুল সংলগ্ন এলাকাসহ পুরো দুবাগ বাজারে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে।

রবিবার দুপুরে সংঘটিত এ ঘটনায় উভয়পক্ষের ৫জন আহত হয়েছেন।

আহতদের মধ্যে রাসেল ও তাজুলকে সিলেট প্রেরণ করা হয়েছে। তাদের বাড়ি ইউনিয়নের মেওয়া এলাকায়।

অন্য আহতরা হলেন ইউপি সদস্য গজুকাটা এলাকার বাসিন্দা ও ম্যানেজিং কমিটির নির্বাচনে প্রতিদ্বন্ধী প্রার্থী আপ্তাব আলী।

জানা যায়, দুবাগ ইউনিয়নের দুবাগ স্কুল এন্ড কলেজের ম্যানেজিং কমিটির নির্বাচন ছিলো আজ রবিবার। নির্বাচন চলাকালীন সময়ে কেন্দ্রের ভেতরে প্রতিদ্বন্ধী প্রার্থীর সমর্থকরা ভেতরের যাওয়ার চেষ্টা করলে এতে একপক্ষ আরেকপক্ষকে বাধা প্রদান করে। এ নিয়ে কেন্দ্রের সীমানার মধ্যে বাকবিতন্ডা ও হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। এ সময় পুলিশ ও উপস্থিত ব্যক্তিদের সহযোগিতায় পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করা হয়। পুলিশ দুই পক্ষকে সীমানা বাইরে বের করে দেয়। এক পর্যায়ে প্রতিদ্বন্ধি প্রার্থী ও ইউপি সদস্য আপ্তাব আলীর সমর্থকরা অপর প্রতিদ্বন্ধি প্রার্থী জামাল হোসেনের সমর্থকদের উপর হামলা চালায়। অর্তকিত হামলায় উপজেলা ছাত্রলীগ নেতা তাজুল ইসলাম ও রাসেল আহমদ আহত হন। পাল্টা আক্রমনে ইউপি সদস্য আপ্তাব আলী আহত হয়েছেন বলে তার সমর্থকরা জানিয়েছেন। অন্য আহত ব্যক্তিদের পরিচয় পাওয়া যায়নি।

আহতদের মধ্যে তাজুল ও রাসেলকে বিয়ানীবাজার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসা হলে সেখান থেকে তাদের সিলেট প্রেরণ করা হয়েছে।

এ ব্যাপারে বিয়ানীবাজার থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) অবনী শংকর কর বলেন, কেন্দ্রের ভেতরে পুলিশ মোতায়েন ছিল। সংঘর্ষ ঘটনাটি কেন্দ্রের বাইরে ঘটেছে। পুলিশ দ্রুত সময়ের মধ্যে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করেছে। থানা থেকে ঘটনাস্থলে আরও পুলিশ পাঠানো হয়েছে। তিনি বলেন, বর্তমানে পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে।

এ ঘটনায় থানায় অভিযোগ দায়ের হলে আমরা আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করবো।

  •  

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

সর্বমোট পাঠক


বাংলাভাষায় পুর্নাঙ্গ ভ্রমণের ওয়েবসাইট