রক্তাক্ত সড়ক আরও ১৮ জনের প্রাণহানি

প্রকাশিত: ৩:২১ পূর্বাহ্ণ, আগস্ট ২১, ২০১৮

রক্তাক্ত সড়ক আরও ১৮ জনের প্রাণহানি

বেপরোয়া চালকদের কারণে সড়কে প্রাণহানি বেড়েই চলেছে। প্রতিদিনই সড়কে ঝরছে রক্ত; নিভে যাচ্ছে তাজা প্রাণ; দীর্ঘ হচ্ছে মৃত্যুর মিছিল। সর্বশেষ গতকাল সোমবার ফেনীর ছাগলনাইয়া, নরসিংদীর বেলাবো ও গাইবান্ধার পলাশবাড়ীতে পৃথক দুর্ঘটনায় প্রাণহানি ঘটে দুই শিশুসহ আরও ১৮ জনের।

ফেনীর ছাগলনাইয়া উপজেলার মুহুরীগঞ্জ সুলতানা ফিলিং স্টেশনের সামনে রবিবার রাত ২টা ৪০ মিনিটের দিকে গরুবোঝাই ট্রাক ও মাইক্রোবাসের মুখোমুখি সংঘর্ষে একই পরিবারের পাঁচজনসহ ৬ জন নিহত হন। নরসিংদীর বেলাবোয় সোমবার রাত সোয়া ৯টায় বাস ও লেগুনার সংঘর্ষে নিহত হন ৮ জন। একই দিন দুপুরে রংপুর-বগুড়া মহাসড়কের গাইবান্ধার পলাশবাড়ী উপজেলার মহেশপুরে বাসচাপায় নিহত হন সিএনজিচালকসহ চারজন। তিনটি দুর্ঘটনাই বেপরোয়া চালকদের সড়ক আইন লঙ্ঘনের কারণে ঘটেছে বলে জানিয়েছেন হাইওয়ে পুলিশ কর্মকর্তা ও দুর্ঘটনাগুলোর প্রত্যক্ষদর্শীরা।

নরসিংদী : ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের বেলাবো উপজেলার জঙ্গুয়া নামক স্থানে রাত পৌনে ৯টার দিকে যাত্রীবাহী বাস ও লেগুনার সংঘর্ষে ৮ জন নিহত ও ১৩ জন আহত হন। নরসিংদীর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার জাকির হোসেন এই তথ্য নিশ্চিত করেন। তবে হতাহতদের পরিচয় তাৎক্ষণিকভাবে জানা যায়নি। আহতদের নরসিংদীর জেলা সদর হাসপাতাল ও বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।

পুলিশ জানায়, ভৈরব থেকে মহাখালীগামী ‘ঢাকা বস’ পরিবহনের একটি যাত্রীবাহী বাসের সঙ্গে বিপরীত দিক থেকে আসা একটি যাত্রীবাহী লেগুনার সংঘর্ষ হয়। এতে লেগুনাটি দুমড়ে-মুচড়ে যায়। ঘটনাস্থলেই আটজন নিহত হন। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিস, থানা পুলিশ, হাইওয়ে পুলিশ এবং স্থানীয়রা উদ্ধার তৎপরতা চালান। হতাহতদের পরিচয় জানার চেষ্টা চলছে।

ফেনী : তিন বছর পর কাতারফেরত লক্ষ্মীপুরের চন্দ্রগঞ্জ থানার বাসিন্দা সবুজকে আনতে একটি মাইক্রোবাস ভাড়া করেন তার পরিবারের সদস্যরা। রবিবার রাত ১২টার দিকে পরিবারের ১৩ সদস্যকে নিয়ে গাড়িটি চট্টগ্রাম শাহ আমানত বিমানবন্দরের উদ্দেশে রওনা দেয়। রাত ২টা ৪০ মিনিটের দিকে সুলতানা ফিলিং স্টেশনের সামনে মাইক্রোবাসটির সঙ্গে মুখোমুখি সংঘর্ষ হয় গরুবোঝাই ট্রাকটির। এতে ঘটনাস্থলেই ৬ জনের মৃত্যু হয়।

মুহুরীগঞ্জ হাইওয়ে থানার অফিসার ইনচার্জ মো. মাহবুব আলম মুঠোফোনে জানান, রাতে মুহুরীগঞ্জ সুলতানা ফিলিং স্টেশনের ৫০ গজ দক্ষিণে রং সাইড দিয়ে ইউটার্ন নেওয়া চট্টগ্রাম থেকে ঢাকামুখী একটি গরুবোঝাই ট্রাকের সঙ্গে মাইক্রোবাসটির মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। পরে ঘটনাস্থল থেকে দুই শিশু, তিন নারী ও এক পুরুষের লাশ এবং আহত আরও ৭ জনকে উদ্ধার করে পাঠানো হয় হাসপাতালে।

গাইবান্ধা : রংপুর-বগুড়া মহাসড়কের গাইবান্ধার পলাশবাড়ী সদরের মহেশপুরে গতকাল দুপুরে বাসচাপায় সিএনজিচালকসহ চারজন নিহত হন। তারা হলেনÑ পলাশবাড়ী উপজেলা সদরের উদয়সাগর গ্রামের আবদুল হান্নান (৬০), তার ছেলে মোহাম্মদ (১০), সাদুল্লাপুর উপজেলার ইদিলপুর ইউনিয়নের মহিপুর বাজারের সিএনজিচালক সুমন (২৬) এবং একই উপজেলার খোর্দ্দকোমরপুর ইউনিয়নের জানিপুর গ্রামের আরজিনা বেগম (২৮)।

  •