রাজধানী ঢাকা জুড়ে শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ

প্রকাশিত: ৩:২১ অপরাহ্ণ, আগস্ট ৫, ২০১৮

রাজধানী ঢাকা জুড়ে শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ

নিরাপদ সড়কের দাবি ও জিগাতলায় ছাত্রছাত্রীদের উপর হামলার প্রতিবাদে রাজধানীজুড়ে বিক্ষোভ-অবরোধ করছে বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা। আজ রোববার সকাল ১১টা থেকে রাজধানীর মিরপুর, মধ্যবাড্ডা, বসুন্ধরা আবাসিক, রামপুরার প্রধান সড়কগুলোয় বিক্ষোভ-অবরোধ করছে ছাত্র-ছাত্রীরা।

আমাদের সময় প্রতিনিধিদের পাঠানো তথ্যে জানা গেছে, নিরাপদ সড়কের দাবিতে রাজধানীর মিরপুরে অষ্টম দিনের মতো মিছিল করছেন শিক্ষার্থীরা। রোববার বেলা সাড়ে ১২টার দিকে মিরপুর-২ নম্বর থেকে প্রায় তিনশ শিক্ষার্থী একটি মিছিল নিয়ে মিরপুর-১০ নম্বর গোলচত্বর এলাকায় যান।

গোলচত্বর এলাকায় ছাত্র-ছাত্রীরা সমবেত হওয়ার পর পুলিশ তাদের আবারও মিরপুর-২ এর দিকে ফেরত পাঠায়। বর্তমানে শিক্ষার্থীরা মিরপুর সুইমিংপুল এলাকায় অবস্থান করছেন।

ছাত্রলীগ, যুবলীগ ও শ্রমিক লীগের প্রায় তিনশ নেতাকর্মী পুরো মিরপুরে অবস্থান নিয়েছেন।

রাজধানীর বসুন্ধরা আবাসিক এলাকায় সেখানকার শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোর শিক্ষার্থীরা অবস্থান নিয়েছে। জানা গেছে, দুপুর সাড়ে ১২টার কিছু সময়পর এলাকার প্রধান সড়ক অবরোধ করেন শিক্ষার্থীরা। রাস্তায় অ্যাম্বুলেন্স বা রোগিবাহী গাড়ী ছাড়া কিছুই চলাচল করতে দিচ্ছেন না তারা।

আওয়ামীলীগ, ছাত্রলীগ, যুবলীগের নেতাকর্মীরাও ওই এলাকায় নিজেদের অবস্থানে রয়েছেন বলে জানা গেছে।

মধ্যবাড্ডার লিংকরোড এলাকার কনফিগার ব্যাপারী টাওয়ারের নিচে সকাল ১০টায় অবস্থান নিয়েছেন আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা। তাদের বাধা দিতে একই সময় থেকে অবস্থান করছে আওয়ামীলীগসহ যুব ও ছাত্রলীগের সদস্যরা।

রাজধানীর রামপুরায় ইস্ট ওয়েস্ট বিশ্ববিদ্যালয় থেকে শুরু করে বাংলাদেশ টেলিভিশন পর্যন্ত শক্ত অবস্থান নিয়েছে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা। বেলা ১২টার পর ওই এলাকার বিভিন্ন স্কুল কলেজের শিক্ষার্থীরা সেখানে সমবেত হতে শুরু করেন। দুপুর ১টার দিকে আওয়ামীলীগের কয়েকজন নেতকর্মী যুবলীগ,ছাত্রলীগ ও সেচ্ছাসেবকলীগসহ প্রায় ১০০জনের একটি দল আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের উপর হামলা চালাতে এগিয়ে যায়। এ সময় হাজার হাজার শিক্ষার্থী তাদের পাল্টা ধাওয়া দিলে পিছু হটে দলীয় লোকজন।

তারা চলে যাওয়ার পর এলাকার প্রধান রাস্তা অবরোধ করে শিক্ষার্থীরা। ইস্ট ওয়েস্ট বিশ্ববিদ্যালয় পেছনে অবস্থিত বাঁশের আড়ৎ থেকে বাঁশ সংগ্রহ করে তারা রাস্তায় অবস্থান নিয়েছে। রাস্তায় অ্যাম্বুলেন্স বা রোগিবাহী গাড়ী ছাড়া কিছুই চলাচল করতে দিচ্ছেন না তারা।

  •