প্লিজ তোমরা শান্ত হও, ক্লাসে যাও : শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে ওবায়দুল কাদের

প্রকাশিত: ৪:২২ অপরাহ্ণ, জুলাই ৩১, ২০১৮

রাজধানীর কুর্মিটোলার এয়ারপোর্ট রোডে জাবালে নূর পরিবহনের বাসের চাপায় দুই শিক্ষার্থী নিহত হওয়ার প্রতিবাদে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের শান্ত হওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

মঙ্গলবার দুপুরে ধানমণ্ডিতে আওয়ামী লীগ সভানেত্রীর রাজনৈতিক কার্যালয়ে তিন সিটির নির্বাচন নিয়ে দলীয় অবস্থান তুলে ধরতে সংবাদ সম্মেলনে আসেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল আলম হানিফ, জাহাঙ্গীর কবির নানক, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার আব্দুস সবুর, দপ্তর সম্পাদক ড. আবদুস সোবহান গোলাপ, আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক সাম্মী আক্তার, বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক দেলোয়ার হোসেন, উপ-দপ্তর সম্পাদক বিপ্লব বড়ুয়া প্রমুখ।

আন্দোলনকারীদের উদ্দেশে তিনি বলেন, জড়িত দোষীদের বিচার হবে, শাস্তিও হবে। কোমলমতি ছাত্রছাত্রীদের কাছে আমি অনুরোধ করব- প্লিজ তোমরা শান্ত হও, ক্লাসে যাও।

রবিবার বেলা সাড়ে ১২টার দিকে জাবালে নূর পরিবহনের একটি বাসের চাপায় শহীদ রমিজউদ্দিন ক্যান্টনমেন্ট কলেজের দুই শিক্ষার্থীর মৃত্যু হয়। এর প্রতিবাদে গত দুদিন ধরেই রাজধানীর বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা সড়ক অবরোধ ও বিক্ষোভ চালিয়ে আসছে। সকাল থেকে ঢাকার বিভিন্ন স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ-ভাঙচুরের কারণে রাজধানীর সড়ক যোগাযোগ বিপর্যস্ত অবস্থায় পড়েছে।

এর প্রেক্ষিতে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, সড়কে দুটি কচি প্রাণ ঝরে গেছে। এ ঘটনায় আমরা মর্মাহত। আমাদের সরকার চুপ করে বসে নেই। দোষীদের শাস্তি নিশ্চিত করতে সরকার কঠোর অবস্থানে আছে। ঘটনার সঙ্গে যারা জড়িত তাদের গ্রেফতার করা হয়েছে। গাড়ি জব্দ করা হয়েছে।

ওবায়দুল কাদের বলেন, সরকার এ বিষয়ে অত্যন্ত কঠোর অবস্থানে রয়েছে। আমরা চুপ করে বসে নেই। ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে গ্রেফতার করা হয়েছে। তাদের আইনের আওতায় আনা হয়েছে। বিচারের সম্মুখীন করা হবে। আমি কোমলমতি শিক্ষার্থীদের বলবো- ক্লাসে ফিরে যাও, তোমরা শান্ত হও, পড়াশুনায় মনোযোগী হও।

প্রসঙ্গত, গত রবিবার রাজধানীর কুর্মিটোলার এয়ারপোর্ট রোডে জাবালে নূর পরিবহনের বাসের চাপায় দুই কলেজ শিক্ষার্থী নিহত হয়। তারা আর্মড ফোর্সেস মেডিকেল কলেজের সামনে রাষ্ট্রপতি মো. জিল্লুর রহমান ফ্লাইওভারের শেষ প্রান্তে দাঁড়িয়েছিল।নিহত শিক্ষার্থীরা হলো শহীদ রমিজ উদ্দিন ক্যান্টনমেন্ট কলেজের একাদশ শ্রেণির বিজ্ঞান বিভাগের ছাত্রী দিয়া খানম মীম ও দ্বাদশ শ্রেণির ছাত্র আবদুল করিম।

এদিকে, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল নিহত দুই শিক্ষার্থীর বাড়িতে গিয়ে তাদের পরিবারের সদস্যদের সান্ত্বনা জানিয়েছেন। একইসঙ্গে বাসচাপার ঘটনায় জড়িতদের শাস্তি নিশ্চিত করা হবে বলে জানিয়েছেন তিনি।

  •  

সর্বমোট পাঠক


বাংলাভাষায় পুর্নাঙ্গ ভ্রমণের ওয়েবসাইট