এটা কিসের আলামত…আরিফুল হক চৌধুরীর প্রশ্ন

প্রকাশিত: ১২:০১ পূর্বাহ্ণ, জুলাই ৩০, ২০১৮

সিলেট সিটি করপোরেশন (সিসিক) নির্বাচনের শেষ সময়ে এসে প্রিসাইডিং কর্মকর্তা পরিবর্তনে ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেছেন বিএনপি মনোনীত মেয়র প্রার্থী আরিফুল হক চৌধুরী।

রবিবার দুপুরে দলের নেতাকর্মীদের গ্রেপ্তারসহ বেশ কয়েকটি অভিযোগ নিয়ে ক্ষুব্ধ হয়ে সিসিক নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয়ে যান আরিফুল হক চৌধুরী।

এসময় শেষবারের মতো অভিযোগ করছি উল্লেখ করে আরিফ রিটার্নিং কর্মকর্তাকে বলেন, এর আগেও অভিযোগ করেছি, লাভ হয়নি। এরপর সুষ্ঠু নির্বাচনে আপনি আমাকে কীভাবে আশ্বস্ত করবেন? নির্বাচনের শেষ মুহূর্তে এসে প্রিসাইডিং কর্মকর্তা পরিবর্তন করছেন। এটা কিসের আলামত?

নির্বাচন পর্যন্ত রাজনৈতিক নেতাদের গ্রেপ্তার না করতে হাইকোর্টের সুস্পষ্ট নির্দেশ থাকার পরও তার নির্বাচন পরিচালনা কমিটির সদস্যকে পুলিশ শনিবার রাতে গ্রেপ্তার করেছে বলে অভিযোগ করেন আরিফ।

এসময় তিনি বলেন, আমাদের রাজনৈতিক প্রার্থীদের মধ্যে ঝামেলা নেই। সম্প্রীতির সম্পর্ক আছে। অথচ আপনার অধীনে পুলিশ অতি উৎসাহী। তারা বাড়াবাড়ি করছে। পোলিং এজেন্টের তালিকা চাইছে। পোলিং এজেন্টের তালিকা নিয়ে পুলিশ কী করবে? গ্রেপ্তার করে নিয়ে যাবে? আওয়ামী লীগ নেতারা প্রিসাইডিং কর্মকর্তাদের বাড়ি বাড়ি যাচ্ছেন। এটা সুষ্ঠু নির্বাচনের জন্য শঙ্কা নয় কি?

রিটার্নিং কর্মকর্তা মো. আলীমুজ্জামান এসব অভিযোগের বিষয়ে মেয়র প্রার্থী আরিফুল হক চৌধুরীকে বলেন, পুলিশ পোলিং এজেন্টদের তালিকা চাইছে বা আওয়ামী লীগ নেতারা প্রিসাইডিং কর্মকর্তাদের বাড়ি বাড়ি যাচ্ছেন এমন তথ্য তার জানা নেই। তিনি বিষয়গুলো খতিয়ে দেখবেন।

  •  

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

সর্বমোট পাঠক


বাংলাভাষায় পুর্নাঙ্গ ভ্রমণের ওয়েবসাইট