আওয়ামীলীগকে খালি মাঠে গোল দেয়ার সুযোগ দেয়া হবে না : মোরতাজুল করিম বাদরু

প্রকাশিত: ১০:০২ অপরাহ্ণ, জুলাই ২৪, ২০১৮

২৪ জুলাই ২০১৮, মঙ্গলবার : সিলেট সিটি করপোরেশন নির্বাচনে ২০ দলীয় জোটের মেয়র প্রার্থী আরিফুল হক চৌধুরীর পক্ষে নির্বাচনী মাঠ চষে বেড়াচ্ছেন যুবদলের কেন্দ্রীয় নেতারা।

নেতৃবৃন্দ প্রচণ্ড রোদ-বৃষ্টি উপেক্ষা করে বিভিন্ন এলাকায় ভোটারদের পিছু নিয়ে হন্যে হয়ে ছুটছেন। ভোটারদের খোঁজে যাচ্ছেন বাসা-বাড়ি, দোকানপাট, মার্কেট, মিল-কারখানা ও অফিস আদালতে। তারা নানা কৌশলে ভোটারদের দৃষ্টি আকর্ষণ করে ভোট ও সমর্থন আদায়ের জন্য গণসংযোগ অব্যাহত রেখেছেন।

২৪জুলাই মঙ্গলবার সিলেট সিটি করপোরেশন নির্বাচনে সিলেট জেলা ও মহানগর যুবদলের উদ্যোগে কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ সিলেট নগরীর সোবানীঘাট থেকে শুরু করে বিভিন্ন বাসা, বাড়ী ও ব্যাবসা প্রতিষ্ঠানে প্রচারণা চালান।

এসময় প্রধান অতিথির বক্তব্যে কেন্দ্রীয় যুবদলের সিনিয়র সহ-সভাপতি মোরতাজুল করিম বাদরু বলেন ২০ দলীয় জোটের নেতৃবৃন্দের সাথে সমন্বয় করে আমরা জোটের মনোনীতপ্রার্থীর পক্ষে ধানের শীষে ভোটের জন্য ব্যাপক প্রচার প্রচারনা চালাচ্ছি। সিলেট জেলা ও মহানগর যুবদল নিয়মিত নির্বাচনী মাঠে চষে বেড়াচ্ছে। আজকেও যুবদলের বিভিন্ন গ্রুপ মাঠে কাজ করছে।

তিনি বলেন বিএনপির পক্ষে গণজোয়ার দেখে আওয়ামীলীগের মাথা খারাপ হয়ে গেছে। হতাশাগ্রস্ত আওয়ামীলীগ এখন অপপ্রচার ও নির্বাচনী মাঠে পুলিশ লেলিয়ে দিচ্ছে। মামলা, ধরপাকড় ও ভয়-ভীতি দেখিয়ে কোন লাভ হবে না মন্তব্য করে তিনি বলেন, কোন অবস্থাতেই আওয়ামীলীগকে খালি মাঠে গোল দেয়ার সুযোগ দেয়া হবে না।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে কেন্দ্রীয় যুবদলের ভারপ্রাপ্ত সাধারন সম্পাদক নুরুল ইসলাম নয়ন বলেন, ‘সরকার পুলিশকে ব্যবহার করে নির্বাচনী এলাকা থেকে ধানের শীষ প্রতীকের সমর্থকদের তাড়িয়ে দেয়ার চেষ্টা করছে। তারা সিলেটে গাজীপুর, খুলনার মতো ভোটারবিহীন নির্বাচন করতে চায়। ভোটগ্রহণের শুরু থেকে ফলাফল ঘোষণা পর্যন্ত যুবদলের নেতাকর্মীদের ভোটকেন্দ্র পাহারা দেয়ার আহ্বান জানান তিনি।

সিলেট জেলা যুবদলের সিনিয়র সহ-সভাপতি ইকবাল বাহার চৌধুরীর সভাপতিত্বে, সাধারন সম্পাদক মামুনুর রশিদ মামুন ও সাংগঠনিক সম্পাদক সাদিকুর রহমান সাদিকের পরিচালনায় বক্তব্য রাখেন সিলেট জেলা যুবদলের সাবেক সাধারন সম্পাদক ফালাকুজ্জামান চৌধুরী, সুনামগঞ্জ বিএনপির যুগ্ম-সম্পাদক আনসার আহমদ, মহানগর যুবদল নেতা আব্দুল আজিজ, কামরুল হাসান শাহীন, জেলা যুগ্ম-সম্পাদক নিজাম উদ্দিন জায়গীরদার, সিদ্দিকুর রহমান পাপলু , নেওয়াজ বকত তারেক , আব্দুল মালেক, আলাউদ্দিন আলাই, হাবিবুর রহমান হাবিব, দিলোয়ার হোসেন দিলু, সোহেল মাহমুদ , আলী আকবর, শাহ মাহমুদ আলী, মন্তাজ হোসেন মুন্না, কামাল আহমদ, মকসুদুল করিম নুহেল, সামছুল ইসলাম টিটু, মনির মুন্সি, নুরুল মুত্তাকিন বাদশা , আব্দুর রকিব মুস্তাক, মাছুম আহমদ লস্কর , মইন উদ্দিন, খোকন রঞ্জন দে,এনামুল হক পাবেল, আব্দুল মুকিত সুমেল, আব্দুস সাহিদ, হাবিবুর রহমান, সোলেমান তালুকদার আজাদ আহমদ ‘সহ বিভিন্ন স্তরের নেতৃবৃন্দ।

  •  

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

সর্বমোট পাঠক


বাংলাভাষায় পুর্নাঙ্গ ভ্রমণের ওয়েবসাইট