প্রধানমন্ত্রীর পদত্যাগের প্রশ্নই আসে না : ওবায়দুল কাদের

প্রকাশিত: ২:২৪ পূর্বাহ্ণ, মার্চ ২৫, ২০১৮

প্রধানমন্ত্রীর পদত্যাগের প্রশ্নই আসে না : ওবায়দুল কাদের

‘দেশে যথাসময়ে নির্বাচনের প্রক্রিয়া অনুযায়ী জাতীয় সংসদ নির্বাচন হবে। আর প্রধানমন্ত্রীর পদত্যাগেরও প্রশ্নই আসে না’ বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

শনিবার দুপুরে নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ উপজেলার নয়াপুর এলাকায় ঢাকা বাইপাস সড়ক মেরামতকাজের উদ্বোধন শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন।

ওবায়দুল কাদের বলেন, খালেদা জিয়ার পুরো বিষয়টা উচ্চ আদালতের এখতিয়ার। এসব মামলাগুলো তত্ত্বাবধায়ক সরকারের আমলে। মামলাগুলো আদালতে বিচারাধীন। উচ্চ আদালত যদি নিম্ন আদালতের রায় বাতিল করেন কিংবা দণ্ড মওকুফ করেন সাজা থেকে মুক্তি দেন, তাহলে খালেদা জিয়া নির্বাচন করবেন। এখানে আমাদের কিছু করার নাই। এসব ব্যাপারে আমরা অহেতুক কোনো মন্তব্য করতে চাচ্ছি না। কারণ বিষয়টা সরকারের না। পুরো বিষয়টা আদালতের।

বিএনপির ৪ দফা দাবির বিষয়টি নাকোচ করে দিয়ে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘বিএনপি নির্বাচন করবে কি করবে না সেটা তাদের ব্যাপার। যথাসময়ে নির্বাচনের প্রক্রিয়া অনুযায়ী নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। কারো জন্য নির্বাচন থেমে থাকবে না। নির্বাচনকালীন সময়ে নির্বাচন কমিশনকে সরকার সকল প্রকার সহায়তা করবে।’

‘পৃথিবীর কোনো গণতান্ত্রিক দেশে নির্বাচনের আগে প্রধানমন্ত্রীকে পদত্যাগ করতে হয়—এমন কোনো নজির নেই’ মন্তব্য করে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘বিএনপি নির্বাচন করবে কি করবে না, সেটা তাদের ব্যাপার। যথাসময়ে নির্বাচনের প্রক্রিয়া অনুযায়ী নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। নির্বাচনকালে নির্বাচন কমিশনকে সরকার সব ধরনের সহায়তা করবে। আর প্রধানমন্ত্রীর পদত্যাগেরও প্রশ্নই আসে না।’

ওবায়দুল কাদের বিএনপিকে বিদেশিদের কাছে নালিশ না করে দেশের মানুষের সমর্থন নেওয়ার পরামর্শ দেন। তিনি বলেন, ‘বিএনপি আন্দোলনে ব্যর্থ হয়ে বিদেশিদের কাছে নালিশ দিচ্ছে, কিন্তু তারা জনগণের কাছে যাচ্ছে না। তারা আন্দোলন করতে চাইলে করুক। তবে জনগণের কাছে তাদের যেতে হবে।’

এর আগে ওবায়দুল কাদের ঢাকা বাইপাস সড়কটির মেরামতকাজের ব্যাপারে সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে কথা বলেন। তিনি বলেন, ৬২ কোটি টাকা ব্যয়ে আড়াইহাজার ও ঢাকা বাইপাস সড়কসহ চারটি সড়কের সংস্কার করা হবে। আগামী বর্ষা মৌসুমের আগেই অর্থাৎ মে মাসের মধ্যে এই সংস্কারকাজ শেষ করা হবে বলেও জানান তিনি। এ সময় সড়ক ও জনপথ বিভাগের কর্মকর্তারা তার সঙ্গে ছিলেন।

  •  

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

সর্বমোট পাঠক


বাংলাভাষায় পুর্নাঙ্গ ভ্রমণের ওয়েবসাইট