ব্যাপক জমায়েত ঘটানোর প্রস্তুতি সুনামগঞ্জে

প্রকাশিত: ৯:০৯ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ২৯, ২০১৮

ব্যাপক জমায়েত ঘটানোর প্রস্তুতি সুনামগঞ্জে

আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক আহমেদ হোসেন (সিলেট বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত) বলেছেন,‘আওয়ামী লীগ সভানেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সিলেট থেকে নির্বাচনী প্রচারণা শুরু করবেন। সিলেটে হযরত শাহ্জালাল (র.) এবং শাহপরান (র.) এর মাজার জিয়ারতের মধ্য দিয়েই তিনি নির্বাচনী প্রচার কার্যক্রম শুরু করতে চান। জননেত্রী শেখ হাসিনার আগামী জাতীয় নির্বাচনের এই প্রচার সমাবেশে সুনামগঞ্জ থেকে মতিউর-ইমনের নেতৃত্বে লংমার্চ করে লাখো নেতা-কর্মী সমর্থকদের সিলেট যেতে হবে।’ তিনি বলেন,‘জননেত্রী শেখ হাসিনার সমাবেশকে সুনামগঞ্জের সকল নেতা-কর্মীদের ঐক্যবদ্ধভাবে সফল করতে হবে।’ তিনি বলেন,‘আগামী জাতীয় নির্বাচনে নৌকা যেই পাবে দলীয় নেতা-কর্মীদের ঐক্যবদ্ধভাবে তার পক্ষেই থাকতে হবে।’
রবিবার দুপুরে আগামী ৩০ জানুয়ারি সিলেটে আওয়ামী লীগ সভানেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সমাবেশ সফল করার লক্ষে সুনামগঞ্জে প্রচার মিছিল শেষে শহরের আলফাত স্কয়ারে সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে আহমেদ হোসেন এসব কথা বলেন।
জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মতিউর রহমানের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক ব্যারিস্টার এম এনামুল কবির ইমনের সঞ্চালনায় সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। সংক্ষিপ্ত সমাবেশে সঞ্চালনার শুরুতে ব্যারিস্টার ইমন এবং আহমেদ হোসেনের পর মতিউর রহমান সংক্ষিপ্ত বক্তব্য দিয়ে সমাবেশ শেষ করেন।
আহমেদ হোসেন বলেন, ‘সুনামগঞ্জের আওয়ামী লীগকে ঐক্যবদ্ধ দেখে নেতা-কর্মীরা খুশি হয়েছেন। তিন মাস আগেও জেলা আওয়ামী লীগের
সভাপতি মতিউর রহমান ও সাধারণ সম্পাদক ব্যারিস্টার ইমনের মধ্যে মুখ দেখাদেখি হতো না, এখন তাঁরা হাতে হাত ধরে মিছিল করছেন, সমাবেশ করছেন, আওয়ামী লীগকে সংগঠিত করছেন।’
তিনি বলেন,‘সুনামগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠন নিয়ে কানাঘুষা শুরু হয়েছে, কারো কারো মধ্যে মান অভিমান চলছে, আমি মতিউর রহমান ও ব্যারিস্টার ইমনের দেওয়া পূর্ণাঙ্গ কমিটি দেখেছি, সকলকেই কমিটিতে রাখা হয়েছে, কাউকে বাদ দেওয়া হয়নি।’ তিনি বলেন,‘আগামী জাতীয় নির্বাচনে নৌকা যেই পাবে, দলীয় নেতা-কর্মীদের ঐক্যবদ্ধভাবে তার পক্ষেই থাকতে হবে।’
বিএনপি ও খালেদা জিয়াকে উদ্দেশ্য করে আহমেদ হোসেন বলেন,‘৯৬ হাজার কোটি টাকা দেশের বাইরে পাচার করেছেন খালেদা, তারেক ও খুকু, এখন বিচার শুরু হবার আগেই কান্নাকাটি শুরু হয়েছে, যত অপকর্ম ও কিলিং খালেদা জিয়া করে, বিচার করেন শেখ হাসিনা। খালেদা জিয়ার কাজ মানুষ খুন করা, আগুন দেওয়া।’ তিনি বিএনপিকে উদ্দেশ্যে করে বলেন,‘ছাগলের তিননম্বর বাচ্চা চিৎকার দিতে দিতে সাগরে ঝাপ দেবে। ক্ষমতায় আসতে পারবে না।’
সভাপতির বক্তব্যে জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মতিউর রহমান বলেন,‘বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ ও জননেত্রী শেখ হাসিনা যতবারই ক্ষমতায় ছিল ততবারই দেশের ব্যাপক উন্নয়ন হয়েছে। প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বাধীন শাসনামলে দেশ এখন খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণ হয়েছে। শিক্ষা-স্বাস্থ্য ও যোগাযোগ ব্যবস্থায় ব্যাপক উন্নয়ন হয়েছে। গ্রামের প্রতিটি ঘরে বিদ্যুতের আলো জ্বলছে। দেশে নতুন নতুন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও হাসপাতাল হচ্ছে। উন্নয়নের ধারাবাহিকতায় সুনামগঞ্জে ২৫০ শয্যার হাসপাতাল হয়েছে। সুনামগঞ্জে মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে হচ্ছে। সুরমা নদীতে সেতু নির্মাণ হয়েছে। সুনামগঞ্জ-সিলেট সড়ক প্রসস্তকরণ হচ্ছে।
তিনি আরও বলেন,‘সুনামগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগ এখন ঐক্যবদ্ধ। দুর্দিনে আওয়ামী লীগের তৃণমূলের নেতাকর্মীরাই দলের পক্ষে মাঠে কাজ করেন। শেখ হাসিনার সরকারের উন্নয়নের ধারাবাহিকতা রক্ষা করতে আওয়ামী লীগকে ঐক্যবদ্ধ থাকতে হবে। দলের সকল নেতাকর্মীকে ঐক্যবদ্ধ থেকে আওয়ামী লীগকে আবারও ক্ষমতায় আনতে হবে। যারা দলের মধ্যে বিভেদ সৃষ্টি করতে চায় তাদের বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নিতে হবে।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

সর্বমোট পাঠক


বাংলাভাষায় পুর্নাঙ্গ ভ্রমণের ওয়েবসাইট