জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলা জাল নথির ওপর সাজানো : রিজভী

প্রকাশিত: ২:৫৯ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ২৭, ২০১৮

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলা জাল নথির ওপর সাজানো : রিজভী

নীলফামারী : ‘বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে করা জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলা ভুয়া এবং জাল নথির ওপরে সাজানো’ বলে দাবি করেছেন দলটির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী।

শনিবার সকালে জিয়াউর রহমান ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে কুড়িগ্রামে শীতার্তদের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ অনুষ্ঠানে যাওয়ার আগে নীলফামারীর সৈয়দপুর বিমানবন্দরে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ মন্তব্য করেন।

রিজভী বলেন, ‘জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলাটি ভুয়া, জাল নথির ওপরে সাজানো মামলা। দেশে আইনের শাসন থাকলে এর অভিযোগ হতো না, মামলাও হতো না। আমরা রাজনৈতিক ও আইনিভাবে মামলাটি মোকাবেলা করব’।

তিনি বলেন, ‘জাতীয় ও আন্তর্জাতিকভাবে আওয়ামী লীগ এখন বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে। তারা এখন ভাঙা কলসি। আর ভাঙা কলসির আওয়াজ একটু বেশিই হয়’।

এর আগে সাংবাদিকদের সাথে আলাপকালে রিজভী বলেন, ওবায়দুল কাদের সাহেবের উদ্দেশ্যে বলতে চাই-অতি ক্ষমতা, অতি দম্ভ, অতি দুর্নীতি, অতি নিপীড়ণ-নির্যাতন, অতি অস্ত্রের আস্ফালন এবং অতি মিথ্যাচারে আপনারা নিজেরাই অতিকায় ডাইনোসরে পরিণত হয়েছেন। সুতরাং আপনারাই প্রাণীকুল থেকে অতি শীঘ্রই অবলুপ্ত হয়ে যাবেন। কাদের সাহেব, দু:শাসন বিদায়ের সময় চলে এসেছে। প্রতিবাদী জনগোষ্ঠী আজ লুটেরাদের বিরুদ্ধে জেগে ওঠেছে। ভোটের অধিকার ফিরিয়ে পেতে সোচ্চার হয়েছে।

রিজভী বলেন, শেখ হাসিনার অধীনে নির্বাচনের কথা বলা আপনাদের জন্য হবে অরণ্যে রোদন। গণতন্ত্র হত্যাকারীদের অধীনে নির্বাচন হলে সেখানে মানুষের ভোটাধিকার যে আবারো ২০১৪ এর ৫ জানুয়ারীর মতোই কবরস্থানে চলে যাবে তা দেশবাসী খুব ভাল করেই জানে।

রিজভী বলেন, জাতীয় ও আন্তর্জাতিকভাবে আওয়ামী লীগ এখন এখন ভাঙ্গা কলসি। তারা সবকিছু থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে এখন ভাঙ্গা কলসির মতো বাঁজছে। আওয়ামী লীগ এখন ভাঙ্গা কলসি। আর ভাঙ্গা কলসিই বাজে বেশী। ভয় দেখিয়ে, রক্ত ঝরিয়ে, জনগণের বিরুদ্ধে বন্দুক ব্যবহার করে ক্ষমতায় থাকার মজাতে জনগণের কথার আওয়াজ আপনাদের কানে ঢোকে না। নির্দলীয় নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে অবাধ, সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ নির্বাচন হলে আওয়ামী লীগের পরিণতি কী হবে এটা অনুধাবণ করেই ওবায়দুল কাদের সাহেবরা হুমকি আর ধমকের পথ অবলম্বন করেছেন।

বিএনপির এ নেতা বলেন, যারা ইতিহাসের সত্যকে অস্বীকার করে তারা নিজেরাই নিজেদের ধ্বংসের বীজ রোপন করে। ভোটারবিহীন সরকারের লোকেরা ৫ জানুয়ারী কলঙ্কিত নির্বাচনের মাধ্যমে জোর করে ক্ষমতায় আসীন থেকে শেষ সময়ে আবারো অবৈধ পথে ক্ষমতায় যেতে নানা মতলববাজী কথাবার্তা বলছেন।

প্রসঙ্গত, গত শুক্রবার আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছিলেন, বিএনপি নির্বাচনে অংশ না নিলে তাদের রাজনৈতিক ভবিষ্যৎ অন্ধকার হয়ে যাবে। বিরল প্রাণীর মতো বিলুপ্ত হয়ে যাবে বিএনপি। তাদের অবস্থা মুসলিম লীগের চেয়েও খারাপ হয়ে যাবে। নির্বাচনে না আসা হবে বিএনপির আরেকটি আত্মহত্যার শামিল।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

সর্বমোট পাঠক


বাংলাভাষায় পুর্নাঙ্গ ভ্রমণের ওয়েবসাইট