সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের কাছে সিলেট বিভাগ গণদাবী ফোরামের স্মারকলিপি

প্রকাশিত: ১০:৪৪ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ২১, ২০১৭

সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের কাছে সিলেট বিভাগ গণদাবী ফোরামের স্মারকলিপি

বাংলাদেশের আধ্যাত্মিক ও অর্থনৈতিক রাজধানী বিভাগীয় শহর পুণ্যভ‚মি সিলেট সহ সিলেট বিভাগের যোগাযোগ ব্যবস্থা উন্নয়নের দাবীতে গতকাল ২১ অক্টোবর শনিবার সকালে সিলেট সার্কিট হাউসে মাননীয় সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের এম.পি’র হাতে স্মারকলিপি প্রদান করেছেন সিলেট বিভাগ গণদাবী ফোরামের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি এডভোকেট চৌধুরী আতাউর রহমান আজাদ। এ সময় বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এডভোকেট মিসবাহ উদ্দিন সিরাজ, আওয়ামীলীগের কেন্দ্রীয় সদস্য অধ্যাপক রফিকুল ইসলাম, ছাতক পৌর মেয়র কালাম চৌধুরী, ফোরামের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা মহি উদ্দিন আহমদ, মহানগর সভাপতি এডভোকেট শামীম হাসান চৌধুরী, কেন্দ্রীয় সদস্য এডভোকেট আব্দুল মালিক, চৌধুরী সামিউর রহমান সায়েম, ইমরান উদ্দিন সহ জেলা ও পুলিশ প্রশাসনের ঊর্ধ্বত কর্মকর্তাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।
স্মারকলিপিতে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার গতিশীল নেতৃত্বে সরকারের অভ‚তপূর্ব সাফল্যে বিশ^বাসীর নিকট বাংলাদেশ আজ মধ্যম আয়ের দেশ হিসেবে আত্মপ্রকাশ করায় এদেশের নাগরিক হিসেবে গণদাবী ফোরামের নেতৃবৃন্দ যেমন গর্বিত ও আনন্দিত এবং এ জন্য মন্ত্রীর মাধ্যমে সরকারকে সিলেট বিভাগের অধিবাসীগণের পক্ষ থেকে ধন্যবাদ জানানো হয়।
অসংখ্য পীর আউলিয়া ও গুণীজনের স্মৃতি বিজড়িত প্রাকৃতিক সম্পদের অফুরন্ত ভান্ডার ও প্রাকৃতিক সৌন্দর্য্যরে লীলাভ‚মি সিলেট। প্রবাসী জনগোষ্ঠী অধ্যুষিত সিলেট জাতীয় ও অর্থনীতির উন্নয়নের সকল ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভ‚মিকা পালন করলেও উন্নয়নের দিক থেকে অনেক পিছিয়ে রয়েছে। প্রাকৃতিক সম্পদ, ঐতিহ্য ও ভৌগলিক অবস্থানের দিক দিয়ে সিলেট বিভাগ বাংলাদেশের একটি অতি গুরুত্বপূর্ণ অঞ্চল। এই গুরুত্বের কথা বিবেচনা করে সিলেট বিভাগের বিভিন্ন জেলা ও বিভাগের উন্নয়নে নানা প্রকল্প গৃহিত ও বাস্তবায়িত করা সিলেট বিভাগের অধিবাসীগণের দীর্ঘদিনের লালিত স্বপ্ন ও ন্যায্য ২৫টি দাবী সম্বলিত স্মারকলিপি মন্ত্রীকে প্রদান করা হয়। দাবী সমূহ হচ্ছে ঃ
সিলেট বিভাগের যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়নকল্পে সিলেট-ঢাকা মহাসড়ককে অবিলম্বে চার লেন বিশিষ্ট জাতীয় মহাসড়কে উন্নিত করণ। সিলেট-আখাউড়া রেল লাইনকে ডাবল লাইনের উন্নিত করণ। সিলেট-সুনামগঞ্জ সড়ককে চার লেন বিশিষ্ট জাতীয় মহাসড়কে উন্নিতকরণ। কুলাউড়া-বড়লেখা-সাবাজপুর রেলপথ পুনরায় চালু এবং ঐ রেলপথের সকল পুরাতন ব্রীজ ও স্টেশন সমূহের অবকাঠামো নির্মাণের যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ। দেশের অন্যতম পর্যটন স্থান জাফলং যাতায়াতের রাস্তা সিলেট-তামাবিল-জাফলং সড়ককে চার লেন বিশিষ্ট জাতীয় মহাসড়কে উন্নিত করণ। সিলেট-সুলতানপুর-বালাগঞ্জ-ফেঞ্চুগঞ্জ-মৌলভীবাজার সড়ককে আঞ্চলিক মহাসড়কে উন্নিত করে কুশিয়ারা নদীর উপর সেতু নির্মাণের মাধ্যমে ফেঞ্চুগঞ্জ ও রাজনগর থানার সাথে ঐ সড়কের সংযোগ স্থাপন করা। সিলেট-গোলাপগঞ্জ-চারখাই-জকিগঞ্জ সড়ক, সিলেট-বিয়ানীবাজার-বারইগ্রাম-সাবাজপুর-বড়লেখা-জুড়ী সড়ক, সুনামগঞ্জ-মদনপুর-দিরাই-শাল্লা-জলশুকা-আজমিরীগঞ্জ-হবিগঞ্জ আঞ্চলিক মহাসড়ক, সুনামগঞ্জ-মোহনগঞ্জ-নেত্রকোণা-কিশোরগঞ্জ-ময়মনসিংহ-ঢাকা সড়ক, হবিগঞ্জ-নবীগঞ্জ-বানিয়াচং আঞ্চলিক সড়ক, সুনামগঞ্জ জেলার পাগলা-জগন্নাথপুর-রাণীগঞ্জ-আউশকান্দি আঞ্চলিক সড়ক, সুনামগঞ্জ জেলা সদর হতে সকল উপজেলা সদরের সংযোগ আঞ্চলিক সড়ককে জাতীয় মহাসড়কে উন্নিত করণ। সিলেট-বিশ^নাথ-জগন্নাথপুর-সুনামগঞ্জ সড়কের, ওসমানীনগর থানার গোয়ালাবাজার-রাণীগঞ্জ-জগন্নাথপুর-সুনামগঞ্জ সড়কের উন্নয়ন ও সম্প্রসারণ, সিলেট জেলার ফেঞ্চুগঞ্জ থানার মানিককোণা-ঘিলাছড়া-মৌলভীবাজার জেলার বড়লেখা থানার সুন্ধিসাইল-বড়লেখা-জুড়ী সংযোগ সড়ক নির্মাণ, মৌলভীবাজার জেলার কুলাউড়া-জুড়ী-ফুলতলা-বটুলী সড়ক, মৌলভীবাজার জেলার কুলাউড়া-রবিরবাজার-শমসেরনগর-কমলগঞ্জ-শ্রীমঙ্গল সড়ক, মৌলভীবাজার জেলার কুলাউড়া-ব্রাহ্মণবাজার-বরমচাল-ভাটেরা-মাইজগাঁও-ফেঞ্চুগঞ্জ সড়ক, মৌলভীবাজার জেলার কুলাউড়া-বড়লেখা সড়ক হতে মাধবকুন্ড পর্যটন স্পটের সংযোগ সড়ক, সিলেট-গোয়াইনঘাট-বিছনাকান্দি সড়ক, সিলেট-গোবিগঞ্জ-ছাতক-দোয়ারাবাজার সড়ক, মৌলভীবাজার জেলার কুলাউড়া থানার ব্রাহ্মণবাজার-হিংগাজিয়া-টিলাগাঁও-শরিফপুর-শমসেরনগর-কমলগঞ্জ-শ্রীমঙ্গল-শায়েস্তাগঞ্জ সংযোগ সড়ককে আঞ্চলিক মহাসড়কে উন্নতি করণ। গোলাপগঞ্জ-বিয়ানীবাজার-বড়লেখা সড়কের বহরগ্রাম শিবপুর ফেরী পুনরায় চালু সহ বাংলাদেশের অন্যতম পর্যটন অঞ্চল সিলেট বিভাগের যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়ন কল্পে বিশেষ প্রকল্প গ্রহণ করে সিলেট বিভাগের সকল জেলা সদর হতে থানা ও উপজেলা সদরের সংযোগ সড়ক সহ সকল পর্যটন স্পটের যাতায়াতের রাস্তা মেরামত, সংস্কার, সম্প্রসারণ ও উন্নয়ন করে যানবাহন চলাচলের উপযুক্ত করার জোর দাবী জানানো হয়েছে। বিজ্ঞপ্তি

  •  

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

সর্বমোট পাঠক


বাংলাভাষায় পুর্নাঙ্গ ভ্রমণের ওয়েবসাইট