সুষমা-খালেদার বৈঠকের এজেন্ডা নিয়ে হোমওয়ার্কে বিএনপি

রাজনীতি

আগামী ২৩ অক্টোবর ভারতের পরাষ্ট্রমন্ত্রী সুষমা স্বরাজের সাথে বৈঠকের সিডিউল রয়েছে বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার। এই বৈঠকের এজেন্ডা ঠিক করতে হোমওয়ার্ক করছেন বিএনপির সিনিয়র কয়েকজন নেতা।

এরই মধ্যে বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া দীর্ঘদিন চিকিৎসা শেষে লন্ডন থেকে আগামী ২২ অক্টোবর এমিরেটস এয়ারলাইন্সের একটি ফ্লাইটে বিএনপি নেত্রী দেশের উদ্দেশে রওনা দিবেন।

বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া নভেম্বরে দেশে ফেরার পরিকল্পনা থাকলেও মূলত সুষমা স্বরাজের সাথে ২৩ অক্টোবর বৈঠকের সিডিউল হওয়ার পর তার ফেরার তারিখ পরিবর্তন করে এগিয়ে নিয়ে এসেছেন। এটাকে ভারতের সঙ্গে সম্পর্কের ব্যাপক অগ্রগতি হিসেবেই দেখছেন বিএনপি নেতারা।

সুষমা স্বরাজের সাথে বৈঠক দেশের পরবর্তী রাজনীতিতে ব্যপক প্রভাব ফেলবে বলে মনে করছেন রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা। বিএনপি নেত্রীর এই বৈঠক সফল হলে পাল্টে যেতে পারে আগামী নির্বাচনের সব হিসেব নিকেশ।

এই জন্য সুষমার সাথে খালেদা জিয়ার বৈঠক সফল করতে বিএনপি নেতারা এই বৈঠকের এজন্ডা তৈরির কাজ এগিয়ে নিচ্ছেন কেননা খালেদা জিয়া দেশ ফেরার পরের দিনই সুষমার সাথে বৈঠক।

এদিকে খালেদা জিয়া চিকিৎসা শেষে দেশে ফেরায় দলটির পক্ষ থেকে সংবর্ধনা ও সুষমা স্বরাজের সাথে বৈঠক নিয়ে আলোচনার জন্য শুক্রবার সন্ধ্যায় রাজধানীর গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে দলের সিনিয়র নেতারা এক রুদ্ধদার বৈঠক করেছেন।

ওই বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন, বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফকরুল ইসলাম আলমগীর, স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, ব্যারিস্টার জমির উদ্দীন সরকারসহ স্থায়ী কমিটির সদস্যগণ।

এদিকে বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার দেশে ফেরার খবরে নড়েচড়ে উঠেছে বিএনপি নেতাকর্মীরা। বেগম জিয়ার গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারির ঘটনায় সারাদেশেই বিক্ষোভ-প্রতিবাদ অব্যাহত রয়েছে। এসব কর্মসূচিতে নেতাকর্মীদের উপস্থিতি আগের তুলনায় অনেক বেড়েছে বলে জানা যাচ্ছে। এছাড়াও কেন্দ্রীয় নেতারাও আগের তুলনায় বেশি সক্রিয় হয়ে উঠেছেন। এছাড়া বিএনপির সূত্রগুলো বলছে, শুধু দলের নেতাকর্মীদের সক্রিয়তাই বাড়েনি, কূটনীতিক পর্যায়েও বিএনপির বেশ অগ্রগতি হয়েছে।

বিএনপি নেতারা আশা করছেন, দলের চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া নিশ্চয়ই দলের নেতাকর্মীদের জন্য কিছু নতুন দিকনির্দেশনা নিয়ে ফিরছেন। ফলে বেগম জিয়া দেশে ফেরার পর দেশের রাজনীতির প্রেক্ষাপট দ্রুত পাল্টে যাবে এমন বদ্ধমূল ধারণা দলীয় নেতাকর্মীদের।

Leave a Reply