তারেক রহমানের ১০ম কারামুক্তি দিবস উপলক্ষে মহানগর ছাত্রদলের আলোচনা সভা

সিলেট বিভাগ

বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী ছাত্রদল সিলেট মহানগরের উদ্যোগে বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানের ১০ম কারামুক্তি দিবস উপলক্ষে নগরীর আম্বরখানাস্থ একটি অভিজাত হোটেলে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।
মহানগর ছাত্রদলের সাবেক সহ আইন বিষয়ক সম্পাদক কামরুল হাসান চৌধুরী তুহিন এর পরিচালনায় সভাপতির বক্তব্যে ছাত্রদল নেতা শাকিলুর রহমান বলেন জননেতা তারেক রহমানের কারামুক্তি দিবসে আজ শুভেচ্ছা নয়! তারেক রহমানকে কারান্তরীন করার মধ্য দিয়ে বাংলাদেশের অগ্রযাত্রাকে সেদিন যারা রুখে দিয়েছিলো তাদের প্রতি ঘৃণা প্রকাশ করুন। সেই রুখে দেওয়া অগ্রযাএাকে সংগী করে আজও এগিয়ে যাচ্ছে এই অগণতান্ত্রীক সরকার। ২০০৭ সাল থেকে শুরু হওয়া সেই স্বৈরাচার শাসকগোষ্ঠী দ্বারা পরিচালিত শাসন ব্যাবস্থা আজও নব্য রুপে তার থেকেও হাজার গুন ভয়াবহ উপায়ে বর্তমান স্বৈরাচার শাসকগোষ্ঠী দ্বারা পরিচালিত হচ্ছে, আওয়ামীলীগ সরকার প্রতিবারের মতো এবারো ক্ষমতায় গিয়ে গণতন্ত্রকে নির্বাসনে পাঠিয়েছে। দেশে আজ আইনের শাসন, মানবতা, মানবাধিকার বলতে কিছু নেই। অপহরণ,খুন,গুম আজ নিত্য দিনের ব্যাপার হয়ে গেছে। তিনি বিএনপির দেয়া ভিশন ২০৩০ এর কথা উলে­খ করে বলেন শত প্রতিকুলতার মাঝেও স্বাধীনতা ঘোষক, বাংলাদেশের প্রথম রাষ্ট্রপ্রতি, শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের হাতে গড়া দল বিএনপি, সর্বকালের ন্যায় দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া ও সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানের নেতৃত্বে সবসময় বাংলাদেশের সাধারণ জনগণসহ নির্যাতিত নিপীড়িত মানুষের কথা বলে, তাদের পাশে থাকে কারন বিএনপি জনগণের দল, তারা সাধারণ জনগণের কথা বলে। তিনি ছাত্রদলের প্রত্যেকটা নেতা কর্মিদের উদ্দেশ্যে আরও বলেন বিএনপির ভ্যানগার্ড খ্যাত বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী ছাত্রদল পূর্বের ন্যায় বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানের এই কারা মুক্তি দিবসে আবারো অংগীকার করছে তারা শত প্রতিকুলতার মধ্যে দিয়ে হলেও দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া ও আগামীর রাষ্ট্র নায়ক তারেক রহমানের দেয়া প্রত্যেকটা ম্যান্ডেট শেষ রক্ত বিন্দু দিয়ে হলেও পালন করে যাবে।
সভায় অন্যান্য দের মধ্যে বক্তব্য রাখেন এবং উপস্থিত ছিলেন সিলেট মহানগর ছাত্রদলের সাবেক সহ স্কুল সম্পাদক মাজহারুল ইসলাম মূর্শেদ, সদর উপজেলা ছাত্রদলের যুগ্ম আহবায়ক সাফওয়ান আহমদ, মহানগর ছাত্রদলের সাবেক সহ অর্থ সম্পাদক রাজিব আহমদ, হুমায়ন আহমদ সুলেমান, উপজেলা ছাত্রদলের যুগ্ম আহবায়ক দেলওয়ার হোসেন সায়েম, উপজেলা ছাত্রদলের যুগ্ম আহবায়ক মীর মো: আয়াত, সিলেট মহানগর ছাত্রদলের সাবেক সদস্য কাওসার হোসেন রকি, হোসেন খান এমাদ, নাসিম হোসেন, সাইদুল আলম সোহান, শাহরিয়ার আশরাফ শাহী, রাফি আনোয়ার, শাহেদ আহমদ, জিহাদ খান, মিনহাজুল ইসলাম, তৌফিক আহমদ, আহমদ তুষার, তানভীর আহমদ, তুহিন আহমদ, ফাহিম রাব্বি, সুস্মিত সিং রাশা, কামরুল খান মিঠু, আজহার আবীর, আফজাল উল নাইম, তাসনিম ইসলাম, শাহরিয়ার আল জাকারিয়া, এহসানুল হক সজিব, জাহাঙ্গীর আলম, জুবেদ আহমদ, শিবলু আহমদ, হিমেল আহমদ, মকবুল মিয়াঁ, শাহিন খান, সাব্বির আহমদ, সাগর আহমদ, পাপলু খান, জাকির আহমদ জিসান, শাওন আহমদ, পাবেল আহমদ, মুসা আহমদ, কামিল খান, জুবায়ের হোসেন, ইয়াহিয়া খান, ফয়সল আহমদ, নাইমুল ইসলাম, আব্দুল আজিজ খান, আতিকুর রহমান, ইয়ামিন আহমদ, নাবিল চৌ, মনির হোসেন, সোহাগ আহমদ, নুরুল ইসলাম, মাহদী হাসান তালহা, সুমন আহমদ, আনসার আলি, সুভাষ দেবনাথ, মাসুম আহমদ, সুরঞ্জিত সেন প্রমুখ।

Leave a Reply